1. litonsaikat@gmail.com : neelsaikat :
  2. shahjahanauh@gmail.com : কক্সবাজার আলো : কক্সবাজার আলো
  3. syedalamtek@gmail.com : syedalam :

অবাক করা এক বাল্ব, যা জ্বলছে ১১৫ বছর ধরে

  • আপডেটের সময় : বৃহস্পতিবার, ১৫ সেপ্টেম্বর, ২০১৬
  • ৬ দেখা হয়েছে

১১৫ বছর ধরে জ্বলছে এক বাল্ব। এখনও পর্যন্ত কেউ সঠিকভাবে বলতে পারছেন না এর পিছনের কারণ। মাথায় হাত পড়ে গিয়েছে বিজ্ঞানীদের। এমনও হতে পারে? তা ভেবে ভেবেই আকুল পাথারে তাঁরা।

১৯০১ সালে ক্যালিফোর্নিয়ার লিভারমোরে ফায়ারহাউসে এই বাল্বটি লাগানো হয়েছিল। তারপর থেকে মাঝে মধ্যে সামান্য সময়ের জন্য বাল্বটি নেভানো হত। ২০১৬ সালেও বহাল তবিয়েতে জ্বলে চলেছে বাল্বটি।

একটা বাল্ব ১০০ বছরেরও বেশি সময় ধরে জ্বলছে! এই খবর জানার পর সকলেই অবাক। বিজ্ঞানীরাও এর কোনও কুল-কিনারা করতে পারছেন না। এক এক জনে একেক রকমের ব্যাখ্যা দিচ্ছেন।

এই ধরনের কার্বন ফিলামেন্টের বাল্বের আয়ু সাধারণত ১ হাজার থেকে ২ হাজার ঘণ্টার হয়। এই সময়ে যে ফ্লুরোসেন্ট বাল্ব বা এলইডি লাইটের চল হয়েছে তাদেরও আয়ু ২৫ থেকে ৫০ হাজার ঘণ্টা। সেখানে পুরনো আমলের ফিলামেন্ট লাগানো বাল্ব এত বছর ধরে জ্বলছে জেনেই বিস্মিত সকলে।

মাস্টারমাইন্ড ইলেক্ট্রিশিয়ান অ্যাডলফে এ চেইলট-এর করা নক্সায় এই বাল্বটি তৈরি করেছিল শেলবি ইলেক্ট্রিক নামে একটি সংস্থা। বাল্বের ফিলামেন্টে ব্যবহার করা হয়েছিল কার্বন। কিন্তু, এই ধরনের বাল্বের আয়ু কোনওভাবেই এক বছরের বেশি হয় না। মাঝে বাল্বটি নিভেছিল এলাকায় লোডশেডিং হওয়ায়। এছাড়া বাল্বটি কখনও নেভানো হয়নি।

বিজ্ঞানীদের হাতে এই বিস্ময়কর বাল্বটি তুলে দেওয়া হয়নি পরীক্ষা-নিরিক্ষার জন্য। ফলে, অনেকে বাল্বটির শতায়ু নিয়ে যে ব্যাখ্যা দিয়েছেন তার বেশিরভাগটাই অনুমান সাপেক্ষে। এঁদের অনেকের মতে, ফিলামেন্টে ব্যবহৃত কার্বনের মান খুব ভাল হওয়ায় বাল্বটি এখনও আলো দিচ্ছে। আবার কারোর মতে, বাল্বের যে কাচের খোল আছে তা খুবই সুগঠিত এবং ভেতরে বাতাস প্রবেশ করতে দেয় না। যার ফলে বাল্বটি এখনও টিকে আছে।

উৎসঃ   kalerkantho

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই বিভাগের আরও খবর
  • © ২০১৪ - ২০২০ সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত | কক্সবাজার আলো .কম
Site Customized By NewsTech.Com