আন্তর্জাতিক

আমাদের শক্তি প্রায় শেষ: ইতালির চিকিৎসক

398views

বিশ্বব্যাপী মহামারি রূপ নেয়া করোনাভাইরাসে বিপর্যস্ত ইতালি। দেশটিতে দৈনিক হাজার হাজার লোক করোনায় আক্রান্ত হচ্ছেন এবং শত শত লোক মৃত্যুর কোলে ঢলে পড়ছেন। কিন্তু একসঙ্গে এত লোকের চিকিৎসা দেওয়া রীতিমত অসম্ভব হয়ে উঠেছে। ইতালির এক চিকিৎসকের কণ্ঠে সেই অসহায়ত্ব ফুটে উঠেছে। ওই চিকিৎসক বলেছেন, আমাদের শক্তি প্রায় শেষ৷
ইতালিতে করোনায় সবচেয়ে বেশি বিপর্যস্ত লম্বার্ডি অঞ্চল। একথা জানিয়ে ওই চিকিৎসক বলেছেন, আমাদের সহকর্মীরাও সংক্রমিত হচ্ছেন৷ এ পর্যন্ত তিনজন ডাক্তারসহ মোট ৩২০ জন মারা গেছেন লম্বার্ডি অঞ্চলে৷ তারপরও অনেকেই অসতর্ক৷ খবর ডয়চে ভেলের।
নভেল করোনা ভাইরাসে সবচেয়ে বিপর্যস্ত দেশ এখন ইতালি। ইউরোপের এই দেশে এখনো পর্যন্ত সংক্রমিত হয়েছেন ৬৯ হাজার ১৭৬ জন, মৃত্যু হয়েছে ৬ হাজার ৮২০ জনের। শুধু মঙ্গলবার ৭৪৩ জনের মৃত্যু হয়েছে এবং আক্রান্ত হয়েছেন পাঁচ হাজার ২৪৯ জন।
সবচেয়ে ভয়াবহ অবস্থা প্রশাসনিক অঞ্চল লম্বার্ডির৷ লম্বার্ডিতে সবচেয়ে খারাপ অবস্থা বারগোমা শহরের৷ সেই শহরের ৬০০ জন ডাক্তারের মধ্যে ১৩৪ জনই এখন করোনায় সংক্রমিত৷ তিনজন ডাক্তারের মৃত্যুও হয়েছে৷
গত ৯ মার্চ চ্যাম্পিয়নস লিগের এক ম্যাচ শেষে উৎসবে মেতেছিল বারগামো৷ সেদিন স্পেনের ভ্যালেন্সিয়াকে ৪-১ গোলে হারিয়ে চ্যাম্পিয়ন্স লিগের কোয়ার্টার ফাইনাল নিশ্চিত করেছিল লম্বার্ডি অঞ্চলের ক্লাব আতালান্তা৷ ধারণা করা হয়, সেই ম্যাচের গ্যালারিভর্তি দর্শকের মাধ্যমেই ব্যাপক হারে ছড়িয়েছে সংক্রমণ৷ খেলোয়াড়রাও রেহাই পাননি৷ ভ্যালেন্সিয়ার ৩৫ ভাগ খেলোয়াড়-কর্মকর্তাও এখন করোনা ভাইরাসের সঙ্গে লড়ছেন৷ ছোট্ট শহর বারগোমাতে এখন লাশ দাফনের জায়গা পেতে সমস্যা হচ্ছে৷ দাফনের কাজে নেমেছে সেনাবাহিনী৷

এতকিছুর পরও বারগোমার অনেক মানুষই সচেতন হননি৷ স্পেনের ক্রীড়া দৈনিক ওলেকে আতালান্তা ফুটবল দলের অধিনায়ক আলেহান্দ্রো গোমেস জানান, সবার জীবনের নিরাপত্তার স্বার্থে ফুটবলার হয়েও তিনি বাইরে দৌড়াতেও যাচ্ছেন না, কিন্তু অনেকেই কর্তৃপক্ষের নির্দেশ না মেনে হাঁটছেন, পার্কে গিয়ে ব্যায়াম করছেন, সুপার মার্কেটে যাওয়ার কথা বলে ঘুরেও বেড়াচ্ছেন৷ঢাকাটাইমস

Leave a Response