কক্সবাজার

আলোকিত উখিয়ায় প্রকাশিত সংবাদের তীব্র প্রতিবাদ ও হুশিয়ারী দিয়ে দিদারুল আলমের বিবৃতি

52views

গত ৮ জুলাই/১৯ ইং হতে টানা তিনদিন কক্সবাজার থেকে প্রকাশিত দৈনিক আলোকিত উখিয়া পত্রিকায় “অর্ধ ডজন ডাকাতি মামলার আসামী ইয়াবা ডন দিদার এখন আওয়ামী নেতা” ও ভিন্ন ভিন্ন শিরোনাম দিয়ে বিবর্জিত সংবাদগুলো আমার দৃষ্টিগোচর হয়েছে। উক্ত সংবাদগুলো সম্পূর্ণ মিথ্যা এবং সাজানো প্রতিপক্ষের টাকায় কল্পকাহিনী মাত্র।
মূলত আমি একজন কোরআনে হাফেজ আমার যে মামলা রয়েছে তা সম্পূর্ন রাজনৈতিক। বর্তমানে আমি একটি মামলায় জামিনে আছি। আমার নামে আরেকটি মামলা ছিল যা ২০১০ সালে আদালত আমাকে বেখসুর খালাস প্রদান করেন। যার মামলা নং-জিআর ৮০৩/১০।
এরপর আমার বিরুদ্ধে কোন ধরনের মাদকের মামলা নেই। যদি মামলা থেকে থাকে আইন শৃংখলা বাহিনী আমাকে গ্রেপ্তার করুক। তাতে আমার বিন্দুমাত্র দুংখ থাকবে না।
বর্তমানে আমার দুটি সিএনজি গাড়ি রয়েছে যা আমি কিস্তিতে নিয়েছি। যার টাকা এখনো শোধ করতে পারেনি। সেই টাকার জন্য গত ৭/৫/১৯ ইং স্যোসাল ইসলামী ব্যাংক কক্সবাজার শাখা হতে উকিল নোটিশ পর্যন্ত প্রেরণ করেন। আমার নেই আহামরি জমিজমা-গাড়ি-বাড়ি। কোনরকম দুংখ কষ্টে সামান্য আয়ে জিবন যাপন করছি।
আমি ২০০৭ সাল হতে ঝিলংজা ইউনিয়ন যুবলীগের সভাপতির দায়িত্ব পালন করি। বর্তমানে ঝিলংজা ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক ও কক্সবাজার জেলা মটর শ্রমিক লীগের সভাপতি হিসেবে সততা ও নিষ্টার সাথে দায়িত্বপালন করে যাচ্ছি। এলাকার উন্নয়ন ও জনগণের কাতারে গিয়ে সেবার ব্রত নিয়ে আগামী ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে চেয়ারম্যান পদে নির্বাচন করার ইচ্ছে প্রকাশ করায় আমার প্রতিপক্ষ এবং কতিপয় আলোকিত উখিয়ার সাংবাদিক নামধারীরা আমার বিরুদ্ধে যেনতেনভাবে ইয়াবা ব্যবসায়ী বানিয়ে আমার মারাত্বক ক্ষতিসাধন করতে লিপ্ত রয়েছে।
আমি আশ্চর্য হয়েছি আলোকিত উখিয়া পত্রিকায় লীড নিউজ হয়েছে আমাকে নাকি ক্রসফায়ার দিতে। যা কোন মানুষ বিশ^াস করেনা এবং করবেনা। আর আইনশৃংখলা বাহিনীর নাম ভাঙ্গিয়ে মিথ্যার আশ্রয় নিয়ে প্রশাসনের বক্তব্য উল্লেখ করে সংবাদে তুলে ধরেছে। অথচ প্রশাসনের কোন বক্তব্্য নেয়া হয়নি। আরেকটি বিষয় হলো-একটি পত্রিকার সাংবাদিকেরা কোনদিন রাষ্ট্রের একজন নাগরিকের সরাসরি ক্রসফায়ার দাবী করতে পারে ? আমি উক্ত সংবাদে আমার যথেষ্ট সম্মানহানি হয়েছে বিধায় কক্সবাজার আদালতে মানহানি মামলা করেছি। এবং ঢাকাতে ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে মামলা দায়ের করেছি।
আমি প্রশাসনসহ সর্বস্তরের জনসাধারণকে উক্ত বিবর্জিত মিথ্যা সংবাদে কাউকে বিভ্রান্ত না হওয়ার অনুরোধ ও উক্ত পত্রিকা কর্তৃপক্ষতে মনগড়া সংবাদ প্রকাশ না করার হুশিয়ারী করছি।
প্রতিবাদকারী
হাফেজ দিদারুল আলম দিদার
সভাপতি, মটর শ্রমিক লীগ, কক্সবাজার জেলা।

Leave a Response