1. litonsaikat@gmail.com : neelsaikat :
  2. joaopinto@carloscostasilva.com : randaldymock :
  3. makaylabeaurepaire@1secmail.com : scotty7124 :
  4. shahjahanauh@gmail.com : কক্সবাজার আলো : কক্সবাজার আলো
  5. syedalamtek@gmail.com : syedalam :
  6. bblythe20172018@mail.ru : traceyhowes586 :
শিরোনাম :
পরিবার নিয়ে দেখা যায় এমন চলচ্চিত্র বানাতে হবে : প্রধানমন্ত্রী টেকনাফে নাফনদীতে গোলাগুলি ; ৫ লক্ষাধিক ইয়াবাসহ অস্ত্র-কার্তুজ ও কিরিচ উদ্ধার ঈদগাঁও ছাত্রলীগের কমিটিতে আসতে নেতাদের লবিং তৎপরতা ইন্দোনেশিয়ায় ভূমিকম্পে নিহত বেড়ে ৫৬, জেগে উঠেছে আগ্নেয়গিরি ঈদগাঁওতে লবনের মাঠে পুরোদমে নেমেছে চাষীরা মেসেজ নয়, সম্পর্ক মজবুত করতে কল করুন বঙ্গবন্ধু গোল্ডকাপ ফুটবল : মহেশখালীকে ৩-২ গোলে হারিয়ে সেমিফাইনালে টেকনাফ প্রফেসর মোশতাক আহমদ নাগরিক শোকসভার প্রস্তুতি কমিটি গঠিত চট্রগ্রাম বিভাগের (স্বাস্থ্য) সহকারী পরিচালক হলেন ঈদগাঁও সন্তান ডা: কামরুল ভোট দিতে ‘সহযোগিতা’ করতে গোপন বুথে নৌকার এজেন্ট

ঈদগাঁওতে প্রসূতি নারীরা সুচিকিৎসা থেকে বঞ্চিত

  • আপডেটের সময় : বৃহস্পতিবার, ১৩ আগস্ট, ২০১৫
  • ২১ দেখা হয়েছে

এম আবু হেনা সাগর, ঈদগাঁও :
কক্সবাজার সদর উপজেলার ঈদগাঁও’র ছয় ইউনিয়নের প্রসূতি নারীরা সু-চিকিৎসা থেকে বঞ্চিত হয়ে পড়েছে। চাহিদা মোতাবেক অভিজ্ঞ মহিলা ডাক্তার স্বল্পতা ও চেক আপে বিড়ম্বনার কারণে এ অবস্থায় শিকার হচ্ছে বলে জানা যায়। একাধিক সূত্রে প্রকাশ, বৃহত্তর ঈদগাঁও তথা ৬ ইউনিয়ন- ঈদগাঁও, জালালাবাদ, ইসলামাবাদ, ইসলাপুর, পোকখালী, চৌফদলদন্ডীর গর্ভবর্তীর মহিলারা চেক-আপ সহ নানা সমস্যা সমাধানের প্রয়োজনীয় সুযোগ সুবিধা থেকে বঞ্চিত। কিছু মহিলা দীর্ঘ কষ্টের বিনিময়ে ঈদগাঁও এলাকার বাইরে বিভিন্ন হাসপাতালে চেক-আপ সুবিধা পেলেও একাধিক মহিলাদের নিতান্তই নানা প্রাইভেট পাসপাতালে ধর্ণা দিতে হচ্ছে। এতে করে, একদিকে অনভিজ্ঞ ডাক্তারের চিকিৎসা নিতে হয়, অন্যদিকে বেশি টাকাও গুনতে হয়। সন্তান প্রসবকালীন কোন প্রাইভেট হাসপাতালে ভর্তি হলেই করা হয় সিজার অপারেশন। মারাত্মক জীবনের মরণ ঝুঁকি নিয়ে কাটাছেড়ার কাজ সম্পন্ন করে ফেলেন। এতে করে, রোগী ও নব জাতকের অবস্থা দ্বিগুন আকারে বেগতিক হয়ে উঠে। এক পর্যায়ে নবজাতক বা রোগীরও মৃত্যু ঘটে। ঈদগাঁও এলাকায় এসব ঘটনা ঘটে চলছে। নানা সূত্রে প্রকাশ, অপারেশন করতে হলে একজন এনস্থেসিয়া ডাক্তার ও গাইনোকোলজিষ্ট অবশ্যই প্রয়োজন। তাছাড়া অপারেশন থিয়েটারের অনুমতি ও আনুষাঙ্গিক সরঞ্জাম থাকা প্রয়োজন হলেও ঈদগাঁওতে এসব ছাড়াই গর্ভবর্তী মহিলাদের তড়িগড়ি করে অপারেশন করা হয়। এই নিয়ে এক শ্রেণীর অসাধু ব্যবসায়ীরা গলাকাটা ব্যবসা চালিয়ে যাচ্ছে। ঈদগাঁওতে এধরণের বেশ কয়েকটি প্রতিষ্ঠানে এসব বাণিজ্য চালিয়ে আসলেও সংশ্লিষ্ট উর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষ কোন প্রকার ব্যবস্থা নিচ্ছে না। যার ফলে বাড়ছে মা- শিশুর মৃত্যু হার। নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক বিভিন্ন ইউনিয়নের মহিলাদের মতে, প্রতি মাসে চেক-আপ করার পর ফের মোটা টাকা বিনিময়ে সিজার সারতে হয়। আবার ঈদগাঁওতে প্রয়োজনীয় সুবিধা সম্পন্ন গর্ভবর্তীর মহিলাদের চেক-আপ করার প্রতিষ্ঠান নেই। অন্যদিকে ইউনিয়ন পর্যায়ে সরকারি ভাবে গর্ভবর্তী মহিলাদের বিনামূল্যে চেকআপ সুযোগ সুবিধার জন্য মাঠ কর্মীদের দায়িত্ব থাকলেও তারা এসব কাজ থেকে বহুদূরে সরে দাড়িয়েছে বলে জানান অনেকে।

এই বিভাগের আরও খবর

  • © ২০১৪ - ২০২০ সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত | কক্সবাজার আলো .কম
Site Customized By NewsTech.Com