1. litonsaikat@gmail.com : neelsaikat :
  2. shahjahanauh@gmail.com : কক্সবাজার আলো : কক্সবাজার আলো
  3. syedalamtek@gmail.com : syedalam :

ঈদগাঁও’র ডিসি সড়কসহ গ্রামীন জনপদের রাস্তাঘাট সংস্কার বিহীন

  • আপডেটের সময় : বৃহস্পতিবার, ১০ সেপ্টেম্বর, ২০১৫
  • ১১ দেখা হয়েছে

এম আবু হেনা সাগর, ঈদগাঁও :
কক্সবাজার সদর উপজেলার ঈদগাঁওতে পঞ্চম দফা বন্যায় লঙ্কর ঝঙ্কর মার্কায় ডিসি সড়কসহ গ্রামীণ জনপদের রাস্তাঘাট সংস্কার বিহীন অবস্থায় পড়ে আছে। যার ফলে হতাশ হয়ে পড়েছেন প্রত্যন্ত গ্রামাঞ্চলের লোকজনের পাশাপাশি বাজারের ব্যবসায়ীগণ। তবে বন্যা পরবর্তী ঈদগাঁওয়ের ছয় ইউনিয়নের গ্রামীন জনপদের রাস্তাঘাটের বিধ্বস্থ চিত্র ফের ভেসে উঠছে। এদিকে গেল পঞ্চমবারের মত বৃষ্টিপাত আর পাহাড়ী ঢলের পানিতে নিমজ্জিত সড়কগুলো দীর্ঘ দিন ধরে সংস্কার না হওয়া, কার্পেটিং উঠে যাওয়ায় ক্ষতবিক্ষত পরিণত হয়ে পড়েছে। যার কারনে বৃহত্তর ঈদগাঁও’র সাধারণ মানুষ ও রোগীরা পড়েছে চরম ভোগান্তিতে। ঈদগাঁও টু চৌফলদন্ডী সড়কের কার্পেটিং উঠে গিয়ে খানা খন্দকে ভরপুর সড়কটি সংস্কারের উদ্যেগ না থাকায় স্থানীয় জনপ্রতিনিধিদের দোষলেন সাধারণ জনগণ ও পথচারীরা। সরেজমিনে দেখা যায়, দীর্ঘ দিন সংস্কার বিহীন অবহেলিত ঈদগাঁও বংকিম বাজার নামক স্থানে বড় বড় গর্ত সৃষ্টি হয়ে বর্ষার পানি জমে থাকে। অন্য দিকে ঈদগাঁও হয়ে গোমাতলী সড়কের অবস্থা অত্যন্ত নাজুক বাশঘাটা, পাঁহাশিয়া খালী, পূর্ব পাঁহাশিয়া খালী, টেকপাড়া, পূর্ব ইছাখালী, পূর্ব গোমাতলী বাংলা বাজার সহ ঈদগাঁও মাইজ পাড়ার  সড়কটি কার্পেটিং দ্বারা সংস্কার করেছিল বহু পূর্বে। বর্ষা মৌসুমে ভারি বৃষ্টি ও লবণ বোঝায় ট্রাকের চালাচল বেশি হওয়াতে সড়কটি দিন দিন খানা খন্দকে ভরে যাছে। তার পাশাপাশি জেলা সদরের অন্যতম বাণিজ্যিক কেন্দ্র ঈদগাঁও বাজারের প্রধান ডিসি সড়কটি সংস্কার বিহীন পড়ে আছে দীর্ঘদিন ধরে। এসব সড়ক সংস্কার দেখার কেউ না থাকায় দুর্ভোগ আর দুর্গতিতে পড়েছে বৃহত্তর এলাকার সাধারণ অসহায় লোকজন। খোঁজ নিয়ে জানা যায়, দীর্ঘকাল ধরে গুরুত্বপূর্ণ সড়ক গুলো সংস্কারের মুখ দেখেনি। সংস্কার বিহীন এ সড়ক গুলোর উন্নয়ন না হওয়ায় প্রতিদিন ঘটছে ছোট- বড় সড়ক দূর্ঘটনা। অপরদিকে লরাবাগ হয়ে মোহনভিলা নজির মাষ্টারের বাড়ি পর্যন্ত, সওদাগর পাড়া হয়ে ছাতি পাড়া, রাবারড্রাম নদী হয়ে মনজুর মৌলভীর দোকান, নাইক্যংদিয়া ওয়াপদা সড়ক হয়ে মাল মোরা পাড়া মসজিদ, চৌফলদন্ডী রাখাইন পাড়া, রোহিঙ্গা পাড়া, উত্তর পাড়া, নতুন মহাল, ইসলামাবাদ দক্ষিণ পাঁহাশিয়া খালী হয়ে বোয়াল খালী সড়ক, বাশঘাটা হয়ে হরিপুর ইউছুপের খীল , খোদাইবাড়ি ওয়াহেদর পাড়া সড়ক, ঈদগাঁও ভাদিতলা, শিয়া পাড়া, দরগাপাড়া সড়ক, ঈদগাঁও চৌফলদন্ডী সড়ক, ঈদগাঁও ঈদগড় সড়ক, মেহের ঘোনা সড়ক, কালিরছড়া হয়ে জঙ্গল মাছুয়াখালী ভুতিয়াপাড়া সড়ক, নাপিতখালী জুম নগর সড়কের করুণ অবস্থা। গর্ভবতী, বাত ব্যাথা রোগী তো দুরের কথা সাধারণ মানুষের চলাফেলা করতে দারুণ হিমশিম খেতে হয়। আবার ভারী বর্ষণে মাইজপাড়া সড়কের রাস্তা ভেঙ্গে যাওয়ায় বৃহত্তর এলাকার লোকজনের যোগাযোগ বিচ্ছিন্ন বলে জানান অনেকে। উলে¬খিত সড়কগুলোতে অনেক কষ্টের বিনিময়ে যানবাহন চলাচল করতে হচ্ছে প্রায়শঃ। বর্ষাকালে চলাফেরা অনেকটা দায় হয়ে পড়েছে বলে জানা যায়। টানা বৃষ্টিপাতের সময় বৃষ্টির পানি জমে জলাবদ্ধতা আর সড়কের ভগ্নদশার জন্য কোন কাজে গমন করতে দুঃস্কর হয়ে পড়েন সাধারণ লোকজন। তবু প্রয়োজনের তাগিদে স্থানীয়রা ভোগান্তি মাথায় নিয়ে চলাফেরা করছে। এ গ্রামীণ সড়কগুলো সংস্কার কাজ না হওয়ায় বড় ধরনের দুর্ঘটনা ঘটবে বলে আশংকা প্রকাশ করেন স্থানীয় জনগণ ও চালকরা। এদিকে যানবাহন চালকরা অনেক কষ্টের বিনিময়ে চলাফেরা করতে দেখা যায়। গ্রামগঞ্জের মা-বোনদের কথা বিবেচনা করে এদিকে বৃহত্তর ঈদগাঁও’র প্রত্যন্ত গ্রামাঞ্চলের বন্যা পরবর্তী যাতায়াতে বিধ্বস্থ সড়কগুলো অবিলম্বে সংস্কার করার জোর দাবী জানান সচেতন মহল।

Please Share This Post in Your Social Media

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই বিভাগের আরও খবর
  • © ২০১৪ - ২০২০ সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত | কক্সবাজার আলো .কম
Site Customized By NewsTech.Com