1. litonsaikat@gmail.com : neelsaikat :
  2. shahjahanauh@gmail.com : কক্সবাজার আলো : কক্সবাজার আলো
  3. syedalamtek@gmail.com : syedalam :
  4. bblythe20172018@mail.ru : traceyhowes586 :

উখিয়ার দুর্নীতিবাজ তথ্য সংগ্রহকারীর বিরুদ্ধে তদন্ত শুরু

  • আপডেটের সময় : সোমবার, ৩১ আগস্ট, ২০১৫
  • ৫৩ দেখা হয়েছে

শফিক আজাদ, উখিয়া :
উখিয়ার দুর্নীতিবাজ তথ্য সংগ্রহকারী বিরুদ্ধে তদন্ত শুরু করেছে উপজেলা নির্বাচন অফিস। গককাল সোমবার উপজেলা নির্বাচন অফিস সুত্রে জানা গেছে, উখিয়ায় সদ্য সমাপ্ত ভোটার তালিকা হালনাগাদ কার্যক্রমে রাজাপালং ইউনিয়নের পূর্ব ডিগলিয়াপালং ৪নং ওয়ার্ডে দায়িত্বপ্রাপ্ত তথ্য সংগ্রহকারী পূর্ব ডিগলিয়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মাষ্টার ছৈয়দ করিম ভোটার ফরম জালিয়াতি সহ ব্যাপক অনিয়মের অভিযোগের প্রেক্ষিতে ভুক্তভোগী  রাজাপালং ইউনিয়নের পূর্ব ডিগলিয়াপালং গ্রামের মৃত সফর মুল্লুকের ছেলে সৌদি প্রবাসী নুরুল হক প্রধান নির্বাচন কমিশন সহ বিভিন্ন দপ্তরে অভিযোগ করিলে তাদের প্রেরিণ চিঠি ভিত্তিতে নির্বাচন অফিস তদন্ত নামতে বাধ্য হয়।
জানা গেছে, নুরুল হক ১৩ বছর যাবত সৌদিআরবে অবস্থান করায় ইতিপূর্বে ভোটার তালিকায় অন্তর্ভুক্ত হতে পারেনি বিধায় চলমান ভোটার তালিকা হালনাগাদ কার্যক্রমে অন্তর্ভূক্ত হওয়ার জন্য সৌদিয়া থেকে দেশে ফিরে আসেন। ভোটার তালিকায় অন্তর্ভুক্ত হওয়ার জন্য প্রয়োজনীয় যাবতীয় তথ্য উপাত্ত উপস্থাপন করলে তিনি ফরম নং- ৩৫০২৬৭৪৭ ও বিশেষ ফরমসহ মোট ২টি ফরমে আমার স্বাক্ষর নেয়। যার এলাকা কোড নং- ১৮১৪। পরবর্তীতে সে নির্বাচন অফিসের সাথে যোগাযোগ করে জানতে পারে যে, তার স্বাক্ষরযুক্ত ফরমটি মোটা অংকের টাকা নিয়ে দুবাই প্রবাসীর স্ত্রী জন্নাতুল ফেরদৌসের নামে পূরণ করে ফেলা হয়েছে। প্রবাসী নুরুল হক সাংবাদিকদের জানান, ফরম পূরণকালে তথ্য সংগ্রহকারী তার কাছ থেকে ১০ হাজার টাকা দাবী করেছিল। উক্ত টাকা না পাওয়ায় ক্ষুব্ধ হয়ে তার ফরমটি অন্য জনের নামে পূরণ করে ফেলায় সে গত ২৬ আগষ্ট উপযুক্ত কাগজপত্রাদি উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা, প্রধান নির্বাচন কমিশনসহ বিভিন্ন দপ্তরে অভিযোগ করে। অভিযুক্ত তথ্য সংগ্রহকারী মাষ্টার ছৈয়দ আলম টাকা দাবী করার সত্যতা অস্বীকার করে বলেন, অভিযোগকারীর প্রয়োজনীয় কাগজপত্র না থাকায় তার ফরম পূরণ করা হয়নি। এব্যাপারে জানতে চাইলে উপজেলা নির্বাচন কর্মকর্তা মোঃ নুরুল ইসলাম বলেন, ভুক্তভোগীর অভিযোগের প্রেক্ষিতে বিভিন্ন দপ্তর থেকে অভিযোগ আসার পর তদন্ত শুরু করা হয়েছে। তদন্তে অনিয়ম,দুর্নীতি প্রমাণ হলে কঠোর ব্যবস্থা নেওয়া হবে উক্ত তথ্য সংগ্রহকারীর বিরুদ্ধে।

এই বিভাগের আরও খবর
  • © ২০১৪ - ২০২১ সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত | কক্সবাজার আলো .কম
Site Customized By NewsTech.Com