1. litonsaikat@gmail.com : neelsaikat :
  2. shahjahanauh@gmail.com : কক্সবাজার আলো : কক্সবাজার আলো
  3. syedalamtek@gmail.com : syedalam :
  4. bblythe20172018@mail.ru : traceyhowes586 :

উখিয়ায় ভারী বর্ষণে মসজিদের ফ্লোর ভেঙ্গে ৪ ছাত্রী আহত

  • আপডেটের সময় : সোমবার, ২৯ জুন, ২০১৫
  • ১৭১ দেখা হয়েছে

SAMSUNG CAMERA PICTURES

টানা কয়েক দিনে ভারী বর্ষণে কক্সবাজারের উখিয়ার ঐতিহ্যবাহী কোটবাজারস্থ ফাতেমাতুজ জোহরা (রা:) বালিকা মাদরাসা কাম মসজিদের ব্যাপক ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে। স্রোতের পানিতে মসজিদের ফ্লোরের নিচের ইট, কংকর, বালি, মাটি চলে যাওয়ার ফলে মসজিদটি যে কোন সময়ে ধ্বসে পড়ার আশংকা করা হচ্ছে। গতকাল সোমবার সকাল ১০টার দিকে ওই মসজিদের আলমিরায় সংরক্ষিত কোরআন শরিফ সরিয়ে ফেলার চেষ্টা করতে গিয়ে ফ্লোর ধ্বসে পড়ে সাজরিয়া নাসরীন, নামিয়া আকতার, জয়নাব ছিদ্দিকী ও ফাতেমা বেগম আহত হয়েছে। তাদেরকে প্রাথমিক চিকিৎসা দেওয়ার পর নিজ নিজ বাড়িতে পৌছে দেওয়া হয়েছে। মাদরাসা সুপার মাওলানা মোহাম্মদ ওসমান জানান, ২০০১ সালে এ মাদরাসাটি প্রতিষ্ঠিত হলেও মাদরাসা সংলগ্ন মসজিদটির প্রতিষ্ঠাতা হয় ২০১০ সালে। সৌদিয়া প্রবাসী বাংলাদেশী ও স্থানীয় দাতা সংস্থার অনুদানে চালিত এ মাদরাসায় ২০০১ সাল থেকে শতভাগ পাশের হার নিয়ে উপজেলা মাদরাসা শিক্ষায় শীর্ষে অবস্থান করলেও সার্বিকভাবে পিছিয়ে পড়েছে একমাত্র অনুদানের অভাবে। স্থানীয় গ্রামবাসীর অভিযোগ, ক্লাশপাড়া ও বড়–য়াপাড়ার মাঝখান দিয়ে প্রবাহিত খালের বিপরীত দিকে চাষাবাদের জমির উপর দেওয়াল নির্মাণ সহ অপরিকল্পিত রাস্তা নির্মাণের ফলে পানি প্রবাহে প্রতিবন্ধকতার সৃষ্টি হওয়ায় ওই এলাকার সমস্ত বৃষ্টি ও পাহাড়ী ঢলের পানি ফাতেমাতুজ জাহরা মাদরাসা ভেতর দিয়ে প্রবাহিত হয়েছে। যে কারণে মসজিদ সহ এ মাদরাসটি যে কোন সময়ে ধ্বসে পড়ার আশংকা করা হচ্ছে। স্থানীয় ইউপি সদস্য ডা: মোক্তার আহমদ জানান, লাগাতার বর্ষণে মাদরাসার ব্যাপক ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে। স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যান নুরুল কবির চৌধুরী জানান, অবকাঠামোগতভাবে মাদরাসা সহ মাদরাসা সংলগ্ন মসজিদটি যে কোন সময়ে ধ্বসে পড়ার আশংকা থেকে রক্ষার জন্য তিনি ইউনিয়ন পরিষদ তহবিল থেকে প্রয়োজনীয় অর্থ বরাদ্দের ব্যবস্থা করবেন। ক্ষয়ক্ষতির পরিমাণ জানতে চাওয়া হলে মাদরাসা সুপার মাওলানা মোহাম্মদ ওসমান জানান, প্রায় ২০ লক্ষ টাকার মতো ক্ষয়ক্ষতির সম্ভাবনা রয়েছে। এছাড়াও এ মসজিদটি সম্পূর্ণভাবে অপসারণ করে নতুন করে নির্মাণ না হলে মসজিদে নামাজ আদায় করা সম্ভব হবে না।

এই বিভাগের আরও খবর
  • © ২০১৪ - ২০২০ সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত | কক্সবাজার আলো .কম
Site Customized By NewsTech.Com