1. litonsaikat@gmail.com : neelsaikat :
  2. shahjahanauh@gmail.com : কক্সবাজার আলো : কক্সবাজার আলো
  3. syedalamtek@gmail.com : syedalam :

উখিয়ায় শেষ মুহুর্তে জমছে ঈদ বাজার: কিরণমালার চাহিদা আকাশচুম্বি

  • আপডেটের সময় : রবিবার, ১২ জুলাই, ২০১৫
  • ১২ দেখা হয়েছে

ওমর ফারুক ইমরান, উখিয়া :
মুসলিম বিশে^র বৃহত্তর ধর্মীয় উৎসব ঈদুল ফিতর আমাদের দরজায় কড়া নাড়ছে। আর মাত্র ৬দিন পরেই আসছে সেই মহা খুশির দিন। রমজানের এক মাসের সিয়াম সাধনার পর সাওয়াল মাসের পহেলা তারিখ উৎসবমূখর পরিবেশে উদ্যাপিত হবে ঈদুল ফিতর। সেই ঈদকে নিয়ে ইতিমধ্যে মুসলিম সমাজের ঘরে ঘরে আনন্দেও বন্যা বয়ে যাচ্ছে। ঈদে সব শ্রেণির মানুষের কাছে সেমাই, চিনি, নুড়লস ইত্যাদি যেমন, অপরিহার্য তেমনি মেয়েদের শাড়ী, সেলোয়ার কামিছ, থ্রী-পিছ সহ মন কাড়ানো সব রকমারি পোশাক আর ছেলেদের পাঞ্জাবী-পাইজামা, জিন্স পেন্ট, জিন্স শার্ট, টি-শার্ট, স্কীন গেঞ্জি, চায়না গেঞ্জি সহ বিভিন্ন নিত্য নতুন পোশাক তেনি অপরিহার্য একটি বস্তু। তাইতো আবাল বৃদ্ধ বনিতা সবার একটায় আশা, ঈদে নতুন কাপড় পড়ে ঈদগাহ ময়দানে গিয়ে প্রিয় জনের শান্তিদ্ধ লাভের পাশাপাশি আত্মীয় স্বজনের বাড়িতে বেড়ানো মূল উদ্দেশ্য। ঈদ আসলেই ধনী-গরীবের কোন বেদাবেধ থাকে না। সবাই ছুটে যায় যার যা সম্ভল আছে সেই অনুযায়ী একটি ভাল জামা মার্কেট থেকে ক্রয় করে বাবা-মা, স্ত্রী, পুত্র, মেয়ে কিংবা প্রিয় জনের হাতে তুলে দেওয়ার জন্য। সে লক্ষ্যে জমে উঠেছে উখিয়া উপজেলার প্রত্যন্ত অঞ্চলের বাজারগুলোতে ঈদের মার্কেট। ঐসব শপিং মল গুলোর মধ্যে অন্যতম হচ্ছে উখিয়া সদর ষ্টেশন, মরিচ্যা ষ্টেশন, সোনার পাড়া, পালংখালী ষ্টেশনে অবস্থিত মার্কেটগুলো ছাড়াও উখিয়া উপজেলা বৃহত্তর কেনাকেটার স্থান হচ্ছে জনবহুল ষ্টেশল কোটবাজার। যাকে বাণিজ্য নগরী খ্যাতি দিয়েছেন অনেকেই। উপজেলার ৫টি ইউনিয়নের মধ্যে ৪টি ইউনিয়নকে ঘিরেই অবস্থান কোটবাজার ষ্টেশনের।
সরজমিনে দেখা যায়, কোটবাজারের মার্কেট, শপিং মল, টেইলাস্, পাইকারী ও খুচরা দোকানগুলোতে স্তরে স্তরে সাজানো আছে পুরুষ-মহিলা, ছেলে-মেয়েদের বিভিন্ন ডিজাইনের মন কাড়ানো, হৃদয় জুড়ানো রকমারী কাপড়। এবারের ঈদে সব ছেয়ে বেশী লক্ষ্য করা যাচ্ছে কিরণমালা নামের মেয়েদের সেই আলোড়ন সৃষ্টিকারী ত্রি-পিছ। গত ঈদে স্টার জলসার নাটক “বুঝে না সেই বুঝে না” নাটকের নায়িকা পাখির পরিহিত প্রিয় ড্রেসটির নাম হচ্ছে পাখি ড্রেস। আর ঐ ড্রেসটি এসে সারাদেশে হৈ-ছৈ তুলে দিয়েছিল। যে পোশাকটি পাওয়ার জন্য অনেক সংসার নষ্টের পাশাপাশি আত্মহত্যা করেছিল অনেক যুবতী মেয়ে তা প্রকাশ পায় প্রিন্ট মিডিয়ার মাধ্যমে। এবারও সেই ভারতের স্টার জলসা ধারাবাহিক নাটক বুঝে না সেই বুঝে না এর পর এসেছে কিরণমালা। আর ঐ নাটক কিরণমালার নায়িকার পরিহিত পোশাকের নাম অনুসারে এবারে ঈদ বাজারে ঝড় তুলছে কিরণমালা। এই ঈদের চাহিদার শীর্ষে রয়েছে কিরণমালার মান ও দাম নিয়ে অনেক কথা থাকলেও বিভিন্ন বয়সী নারীরা চোখ বুঝে কিনছে কিরণমালা। ক্রেতারা বলেছেন বিভিন্ন কোম্পানী তাদের উৎপাদিত কাপড়ে শুধু কিরণমালা, ষ্টিকার লাগিয়ে দিয়েই বাজারে ছাড়ছে। তাই দামের ক্ষেত্রেও রয়েছে অনেক হেরফের। কেনাকাটার ভিড়ে ভালমন্দ বেছে নেওয়ার সুযোগ খুব কম। তাই যেটার দাম বেশি ক্রেতারা সেটাই চোখ বন্ধ করে কিনছে। কিরণমালা ছাড়াও মেয়েদের পোশাকের মধ্যে রয়েছে কটকটি, রাণী, রাশি, আমি তোমাকে চাই উল্লেখযোগ্য পোশাক। কোটবাজার সৈকত রোড সংলগ্ন এনআলম শপিং কমপ্লেক্সে গতকাল ঘুরে দেখা যায়, সব দোকানেই নারী-পুরুষ, শিশু কাষ্টমারদের ভিড় আর ভিড়। কোনখানেই তিল পরিমাণ ঠাই নেই। কেউ দেখছে শাড়ী, আবার কেউ থ্রী-পিছ, কেউ দেখছে পাঞ্জাবী-পাইজামা, লুঙ্গি। সবার একটিই সর। টাকা যতই হোক চাই পছন্দের পোশাকটি। কোটবাজার এন.আলম শপিং কমপ্লেক্সে অবস্থিত যমুনা ইলেকট্রনিক্স এন্ড অটো মোবাইল লিঃ এর সত্বাধিকারী ও উক্ত মার্কেটের পরিচালক মহিউদ্দিন মুন্না এম.এ, সৈকত বস্ত্র বিতানের মালিক মাওলানা নুরুল আবছার, ঝরাসপ বস্ত্র বিপনীর মালিক মোঃ সাহাব উদ্দিনের সাথে কথা বলে জানা যায, এবারের ঈদ বাজার সম্প্রতি ভৈরী আবহাওয়া ও টানা বৃষ্টির কারণে রমজানের শুরুতেই ঈদের বাজার সরগরম না হলেও রোজা ১৫টি ফেরিয়ে গেলেই ঈদ বাজার সরগরম হয়ে উঠেছে। একই কথা বললেন উক্ত মার্কেটের ফ্রেন্ডস কালেকশনের সত্বাধিকারী সাদ্দাম হোসাইন, আলমদিনা বস্ত্র বিতানের মালিক মাহবুবুল আলম। কোটবাজারের মার্কেটগুলোতে যাতে ক্রেতারা নির্বিঘেœ তাদের পছন্দমত নির্ভয়ে ক্রয় করতে পারে সে লক্ষ্যে উপজেলা প্রশাসন ও কোটবাজার দোকান মালিক সমিতি বিভিন্ন উদ্যোগ নিয়েছেন। শপিংমলগুলোতে নিয়োজিত করা হয়েছে আইনশৃঙ্খলা বাহিনী। তাছাড়াও মালিক সমিতির নিজস্ব লোকজনও প্রতিটি মার্কেট শপিংমলে নজরদারী করছে। শপিং করতে ্আসা মহিলা যাতে ইভটিজিংয়ের শিকার না হয় ও ছিনতাই-রাহাজানির কোন অপ্রীতিকর ঘটনা যাতে না ঘটে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই বিভাগের আরও খবর
  • © ২০১৪ - ২০২০ সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত | কক্সবাজার আলো .কম
Site Customized By NewsTech.Com