এক ছাদের নিচে সব কেনাকাটা

তারেকুর রহমান
এক সময় ক্রেতারা মার্কেটে গিয়ে বিভিন্ন দোকান থেকে নিত্যদিনের বাজার করতে পছন্দ করলেও এখন সহজে ও সুলভ মূল্যে এক শপিং কমপ্লেক্স থেকে প্রয়োজনীয় জিনিসপত্র ক্রয় করতে পারে বলে জনপ্রিয় হয়ে উঠেছে কক্সবাজারের মেরিন সিটি মেগা শপিং কমপ্লেক্স। যেখানে একই ছাদের নিচে পরিবারের সবার পছন্দের পোশাক পাওয়া যায়। ফলে আগে শহরের অন্যান্য মার্কেটগুলোতে ভিড় থাকলেও এখন আর সেই জৌলুস নেই।


কক্সবাজার শহরের অন্যান্য নিত্যদিনে প্রয়োজনীয় শপিং মল গুলো থেকে পোশাক ও দৈনন্দিন প্রয়োজনীয় জিনিসপত্র কিনে এক সময় গর্ব করে মার্কেটের নাম বলতেন ক্রেতারা। ফলে জনপ্রিয়তার কাতারে থাকতো এসব মার্কেট কিন্তু বর্তমানে এসব মার্কেটে ক্রেতা সংকট দেখা দিয়েছে। মেরিন সিটি মেগা শপিং কমপ্লেক্স করে নিয়েছে জনপ্রিয়তার শীর্ষ স্থান।
সরেজমিনে ঘুরে দেখা গেছে, চট্টগ্রামের দক্ষিণ অঞ্চলের শ্রেষ্ঠ এই শপিং মলে ক্রেতাদের উপচে পড়া ভিড়। পাইকারি বাজার হিসেবে বিখ্যাত এই শপিং মল নতুন মাত্রা যোগ করেছে। তা হলো নূন্যতম ৫শত টাকার পন্য ক্রয় করলে মোটরসাইকেলসহ ২০টি আকর্ষনীয় পুরস্কারের র‌্যাফেল ড্র কুপন। এছাড়াও শিশু কিশোর ও বিভিন্ন বয়সের মানুষের জন্য হরেক রকমের পণ্যের সমাহারে কক্সবাজার মেরিন সিটি মেগা শপিং কমপ্লেক্স করছে জমজমাট ব্যবসা।
মেরিন সিটি মেগা শপিং কমপ্লেক্স কক্সবাজারের সবার কাছে পরিচিত এখন। শাড়ি কিংবা ইন্ডিয়ান থ্রি-পিছের জন্য খ্যাতি অর্জন করেছে এটি। তবে এখানে কেবল শাড়ি বা থ্রি-পিছ নয় নারীদের সব ধরনের পোশাক পাওয়া যায়। সাধারণ দোকান থেকে দাম কম হওয়াতে বিক্রিও বেশি।


গত মঙ্গলবার এ শপিং মলে গিয়ে দেখা গেল ক্রেতাদের প্রচন্ড ভিড়। ক্রেতাদের ভিড়ে বিক্রয়কর্মীদের কথা বলার ফুরসত নেই। কেউ শাড়ি দেখাচ্ছেন তো কেউ থ্রি-পিছ কিংবা শিশুদের খেলনাসহ আরো কতকিছু। নির্ধারিত বাজেটের মধ্যেই ক্রেতার সামনে পছন্দের নতুন পোশাক তুলে দিচ্ছেন বিক্রয় কর্মীরা।
মেরিন সিটি মেগা শপিং কমপ্লেক্স এর এসএমটি (গোয়েন্দা) নুরুল কবির বলেন, আগে বিভিন্ন দোকানে গিয়ে পোশাক কিনতে হতো। কিন্তু এখন ক্রেতারা একই দোকান থেকে পছন্দের কাপড় ছাড়াও নিত্য দিনের প্রয়োজনীয় সবকিছু কিনতে পারছে। নিজের সাধ্যের মধ্যে যখন পছন্দের পোশাক পায় তখন মানুষ আর ঘুরতে চায় না। তাই বর্তমানে এ শপিং মল জনপ্রিয় হয়ে উঠেছে।
সপ্তাহে সাত দিনই খোলা এ শপিং মল। ক্রেতাদের জন্য র‌্যাফেল ড্র এর ব্যবস্থা এবং প্রতি মাসের শেষে পুরস্কার তো আছেই। এছাড়া আসন্ন ঈদ উপলক্ষে আগামী এপ্রিল থেকে র‌্যাফেল ড্র এর পুরস্কারের সংখ্যা বাড়িয়ে ৫০টিতে করা হবে যাতে ক্রেতারা আরো আনন্দ উপভোগ করে আমাদের এ শপিং মলমুখী হয়।
ম্যানেজার মিরাজুল ইসলাম বলেন, এই শপিং মলে সবকিছু মিলে, অন্যান্য শপিং মলের চেয়ে যথেষ্ট সুযোগ সুবিধা রয়েছে আমাদের এই শপিং মলে। বিভিন্ন পণ্যের ক্ষেত্রে আলাদাভাবে ডিসকাউন্টের ব্যবস্থাও রয়েছে এখানে।
মেরিন সিটি মেগা শপিং কমপ্লেক্স এ প্রায় ৭০ জন কর্মী দিনরাত ক্রেতাদের সেবা দেয়ার জন্য নিয়োজিত আছে বলেও তিনি বলেন।
ক্রেতা ফয়সাল উদ্দিন খোকা বলেন, রুচিসম্মত নিত্য প্রয়োজনীয় দ্রব্যাদি এখানে সুলভ মূল্যে ক্রয় করতে পারি। তাছাড়া রান্না বান্নার জিনিসপত্রসহ সব ধরণের পণ্য আমরা সহজে ক্রয় করতে পারি বলে খুব ভালো লাগে।
এখানে প্রত্যেকটা পন্যের সাথে সিকিউরিটি সিপস্ আছে বলে জানান বিক্রয়কর্মী আব্দুল্লাহ আল মামুন।
আরেক বিক্রয়কর্মী আরিনা আক্তার জানান, এখানে আমি সাত মাস যাবৎ কাজ করছি, নতুন নতুন ক্রেতাদের সাথে পরিচয় হতে পেরে খুব ভালো লাগে। ক্রেতাদের সেবা প্রদানই আমাদের প্রধান লক্ষ্য।

উপদেষ্টা সম্পাদক : হাসানুর রশীদ
সম্পাদক ও প্রকাশক : মুহাম্মদ শাহজাহান

নির্বাহী সম্পাদক : ছৈয়দ আলম

যোগাযোগ : ইয়াছির ভিলা, ২য় তলা শহিদ সরণী, কক্সবাজার। মোবাইল নং : ০১৮১৯-০৩৬৪৬০

গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের তথ্য অধিদপ্তরে নিবন্ধনের জন্য আবেদিত

Email:coxsbazaralo@gmail.com