1. litonsaikat@gmail.com : neelsaikat :
  2. shahjahanauh@gmail.com : কক্সবাজার আলো : কক্সবাজার আলো
  3. syedalamtek@gmail.com : syedalam :
  4. bblythe20172018@mail.ru : traceyhowes586 :

কক্সবাজারে খাবার পানি নিয়ে চলছে চাঁদাবাজি

  • আপডেটের সময় : শুক্রবার, ৩ জুলাই, ২০১৫
  • ১৩৫ দেখা হয়েছে

alo-logoএম.শাহজাহান চৌধুরী শাহীন, কক্সবাজার :

কক্সবাজার সদর উপজেলার খুরুস্কুল ‘জলসিড়ি’ আবাসন প্রকল্পের সাত শতাধিক অধিবাসি তীব্র পানীয় জলের তীব্র সংকটে পড়ে গেছে। জেলা পরিষদের অর্থায়নে গত ৩ বছর আগে মোটরসহ একটি টিউবওয়েল স্থাপন করলেও পানি সরবরাহ নিয়ে চলছে চাঁদাবাজি। একটি চক্র খাবার পানি সরবরাহে বাঁধা প্রদান ও হামলার শিকার হয়েছে অনেকে। এঘটনায় আবাস প্রকল্পবাসির মাঝে দিনদিন ক্ষোভ বাড়ছে বলে জানা গেছে। জানা যায়, সদরের খুরুস্কুল পূর্ব হামজার ডেইল ৬নং ওয়ার্ডে ২০০৫ সালে সরকারী ভাবে ১’শ পরিবারের জন্য ‘জলসিড়ি’আবাসন প্রকল্প স্থাপন করেন। বাংলাদেশ সেনাবাহিনী কর্তৃক নির্মিত ওই আবাসন প্রকল্পটি দুঃস্থ, অসহায় ও ভুমিহীন পরিবারের মাঝে বরাদ্দ দেয়া হয়। নির্মাণের শুরুতে আবাসন প্রকল্পবাসিরা মাথা গুজার ঠাঁই পাওয়ার পাশাপাশি খাবার পানি, স্যানিটেশন, বিদ্যুৎ এর সুব্যবস্থা ছিল। এছাড়া শিশুদের জন্য পড়ালেখার স্কুলও স্থাপন করে দেয় সরকার। এটি পরিচালনার জন্য ১২ সদস্যের কমিটিও রয়েছে। কিন্তু আশ্রয় পাওয়া এই আবাসন প্রকল্পবাসির সুখ বেশী দিন স্থায়ী হয়নি। আস্তে আস্তে টিউবওয়েল নষ্ট হয়ে পড়ে। পাহাড় ধবসে পড়ে লেট্রিন। বিভিন্ন সমস্যা বেড়ে যায়। পানীয় জলের সংকটে পড়ায় ২০১২ সালের দিকে কক্সবাজার জেলা পরিষদের অর্থায়নে একটি গভীর নলকূপ স্থাপন ও ব্যবহার্য্যরে পানি সরবরাহের জন্য ট্যাংক স্থাপন করেন। আশ্রয়ন প্রকল্পবাসিরা জানান, সরকারী এই নলকূপ থেকে পানীয় জল সরবরাহ নিতে প্রতি জনের কাছ থেকে অবৈধ ভাবে ঘরপ্রতি ৫’শ টাকা থেকে ১হাজার টাকা পর্যন্ত জোরপূর্বক চাঁদা আদায় করছে। চাঁদা না দিলে প্রকল্পের সদস্যদের উপর হামলা করছে ও পানি নিতে বাধা দিয়ে আসছে ছৈয়দ নুর, কালু, আনুয়ারা ও হাসিনা নামের ব্যক্তিরা। আবাসন প্রকল্প সভাপতি জাফর আলম ও সাধারণ সম্পাদক এরশাদ উলাহ জানান, ইতোমধ্যে খাওয়ার পানি সরবরাহে চাঁদা না দেয়ায় হামলার শিকার হয়েছেন রাজিয়া আকতার। এ ঘটনায় শালিসী বৈঠক হলেও সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদকে কে মারমূখি হয়ে নাজেহাল করা হয়েছে গতকাল। ওই চক্রের হাতে এধরনের আরো অনেকে প্রকল্পবাসি মারধরের শিকার হয়েছে বলে জানান তারা।

তারা আরো জানান, চলতি রমজান মাসেও খাবার পানি সরবরাহ করতে না দেয়ায় আবাসপ্রকল্পবাসি চরম দূর্ভোগের শিকার হচ্ছে।

এব্যাপারে জলসিড়ি আবাসন প্রকল্পবাসি উর্ধবতন কর্তপক্ষের হস্তক্ষে কামনা করেছেন।

এই বিভাগের আরও খবর
  • ২০১৪ - ২০২১ সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত | কক্সবাজার আলো .কম। গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের তথ‌্য মন্ত্রণালয়ে আবেদিত ।
Site Customized By NewsTech.Com