1. litonsaikat@gmail.com : neelsaikat :
  2. shahjahanauh@gmail.com : কক্সবাজার আলো : কক্সবাজার আলো
  3. syedalamtek@gmail.com : syedalam :
  4. bblythe20172018@mail.ru : traceyhowes586 :

কক্সবাজারে জাতীয় শোক দিবস ও বঙ্গবন্ধুকে অবমাননা : থানায় অভিযোগ

  • আপডেটের সময় : বৃহস্পতিবার, ২০ আগস্ট, ২০১৫
  • ৪৫ দেখা হয়েছে

বার্তা পরিবেশক :
কক্সবাজার শহরের আওতাধীন ১২নং ওয়ার্ড আওয়ামীলিগের উদ্যোগে আয়োজিত জাতীয় শোক দিবসের কর্মসূচীতে বঙ্গবন্ধু ও প্রধানমন্ত্রীকে চরম অবমাননা করে এবং খতমে কোরআন বর্জন করার অভিযোগ পাওয়া গেছে। এ ঘটনায় পুরো কক্সবাজার শহরজুড়ে তোলপাড় শুরু হয়েছে।
অভিযোগ সুত্রে জানা গেছে, গত ১৮ আগস্ট কক্সবাজার পৌর আওয়ামীলিগের আওতাধীন ১২ নং ওয়ার্ড আওয়ামীলিগ এক বিশাল শোকসভা, খতমে কোরআন ও কাংগালীভোজের আয়োজন করে। ১২নং ওয়ার্ডের কার্যালয় ঘেষা লাইট হাউজ এলাকার রাস্তার মোড়ে এই আয়োজনের উদ্যোগ গ্রহন করেন। কর্মসূচীর একদিন পুর্বে লাইট হাউজ দারুল উলুম মাদ্রাসার মুহতামিম মাও: নেজাম উদ্দিনকে খতমে কোরআন পড়ার জন্য কিছু ছাত্রকে পাঠানোর জন্য দাওয়াত দেয়া হয়। পরে নির্দিষ্ট সময়ে কর্মসূচী শুরু হলেও সেই মাদ্রাসার কোন ছাত্রই উপস্থিত হননি। এ সময় ১২ নং ওয়ার্ড আওয়ামীলিগের নেতাকর্মিরা মাদ্রাসার মুহতামিম নেজাম উদ্দিনের সাথে যোগাযোগ করলে তিনি হুমকি সহকারে বলেন, যেখানে বঙ্গবন্ধুর ভাষন, গান ও ছবি তুলে উল্লাস হচ্ছে সেখানে তার মাদ্রাসার কেউ যাবেনা বলে সাফ জানিয়ে দেন। পরে তাৎক্ষনিক শহরের মৌলভীপাড়া তালিমুল কোরআন মাদ্রাসা থেকে ছাত্রদের এনে খতমে কোরআন সম্পন্ন করে।
তাৎক্ষনাত এই ঘটনা জানাজানি হলে পুরো শহরজুড়ে তোলপাড় সৃষ্টি হয়। এঘটনায় ১৯ আগস্ট ১২ নং ওয়ার্ড আওয়ামীলিগের সাধারন সম্পাদক কাজী মোরশেদ আহমদ বাবু বাদি হয়ে প্রদানমন্ত্রীর কার্যালয়, কক্সবাজার সদর-রামু আসনের এমপি সাইমুম সরওয়ার কমল, কক্সবাজার জেলা পুলিশ সুপার, জেলা শিক্ষা অফিসার, ডিজিএফআই কক্সবাজার শাখার অধিনায়ক ও কক্সবাজার সদর মডেল থানায় একটি অভিযোগ দায়ের করেছেন। অভিযোগে লাইট হাউজ দারুল উলুম মাদ্রাসার মুহতামিম মৃত হাসমত আলীর পুত্র মৌলভী নেজাম উদ্দিন, নেজাম উদ্দিনের পুত্র মৌলভী মেজবাহ উদ্দিন ও মোজাহেরুল হকের পুত্র সালামত উল্লাহকে আসামী করা হয়েছে।
অভিযোগে আরো উল্লেখ করেছেন, লাইট হাউজ পাড়ার এই মাদ্রাসার অসাধু আলেম নামধারী জঙ্গি নেতা নেজাম উদ্দিন দীর্ঘদিন ধরে বিভিন্ন অসামাজিক কার্যক্রম ও জঙ্গির ঘাটিতে পরিনত করেছে এই প্রতিষ্টানটিকে। তিনি বঙ্গবন্ধু ও তার কন্যা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে নাস্তিক, মুরতাদ ও অকাজের বলে এদেশের স্বাধীনতাকে বিভিন্নরুপে কটুক্তিমূলক কথাবার্তা বলে। আরো জানা গেছে, এই প্রতিষ্টানটি শুরু থেকে সরকারী কোন কর্মসুচী পালন না করে উল্টো সরকারের বিরোদ্ধে নানা সমালোচনা করে আসছে। এছাড়া ১৯৯৭ সালে বাংলাদেশের শীর্ষ জঙ্গীনেতা মুফতী হান্নান এই মাদ্রাসায় বসে যাবতীয় কার্যক্রম চালাত এবং দেশবিদেশ থেকে লাখ লাখ টাকা সংগ্রহ করে আত্নসাৎ করার অভিযোগও রয়েছে।
এ ব্যাপারে অভিযুক্ত মুহতামিম নেজাম উদ্দিনের সাথে যোগাযোগ করা হলে তিনি জানান, মাইকে বঙ্গবন্ধুর ভাষন, গান ও অনুষ্টানে যাবতীয় ছবি থাকায় তারা খতমে কোরআন পড়তে আসেনি।
কক্সবাজার সদর মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) কাজি মতিউল ইসলাম জানান, এ ব্যাপারে অভিযোগ পেয়েছি তদন্তপূর্বক তাদের বিরোদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা নেয়া হবে।

এই বিভাগের আরও খবর
  • © ২০১৪ - ২০২১ সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত | কক্সবাজার আলো .কম
Site Customized By NewsTech.Com