1. litonsaikat@gmail.com : neelsaikat :
  2. shahjahanauh@gmail.com : কক্সবাজার আলো : কক্সবাজার আলো
  3. syedalamtek@gmail.com : syedalam :
  4. bblythe20172018@mail.ru : traceyhowes586 :
শিরোনাম :
সাংবাদিক মামুনকে হত্যার চেষ্টা ঘটনায় জড়িদের দ্রুত গ্রেফতারের দাবী সাংবাদিক ইব্রাহীম খলিল মামুনকে গাড়ি চাপা দিয়ে হত্যার চেষ্টা বাংলাদেশ দূতাবাস আবুধাবিতে ঐতিহাসিক ৭ই মার্চ উদযাপন কলাতলী ডলফিন মোড় থেকে ইয়াবাসহ যুবক আটক কক্সবাজার উন্নয়ন কর্তৃপক্ষের প্রকল্প পরিদর্শন করলেন গণপূর্ত প্রতিমন্ত্রী ঈদগাঁও থানার উদ্যোগে ঐতিহাসিক ৭ই মার্চ পালিত ৭ই মার্চের বঙ্গবন্ধুর ভাষণে নিহিত ছিল বাঙালীর মুক্তির ডাক-অতিরিক্ত ডিআইজি জাকির হোসেন স্বাধীনতা পুরস্কার পাচ্ছেন ১০ ব্যক্তি-প্রতিষ্ঠান এডঃ ওসমান গণি’র মৃত্যুতে কক্সবাজার জেলা আইনজীবী সমিতির শোক উন্নয়নশীল দেশে উত্তরণে জাতিসংঘের চূড়ান্ত সুপারিশ প্রাপ্তিতে র‌্যাবের আনন্দ উদযাপন 

কক্সবাজারে শেষ হলো মিনি ইজতেমা : আখেরি মোনাজাতে দেশের শান্তি ও সমৃদ্ধি কামনা

  • আপডেটের সময় : শনিবার, ১৯ ডিসেম্বর, ২০১৫
  • ৪৩ দেখা হয়েছে

ছৈয়দ আলম, কক্সবাজার আলো :
ক্ষমা ভিক্ষা-আত্মশুদ্ধির পাশাপাশি বিশ্ব শান্তি ও সমৃদ্ধি কামনায় আল্লাহর দরবারে হাত তুলেছিল লাখো মুসল্লি। আমিন আমিন ধ্বনিতে মুখরিত হয়ে উঠে কক্সবাজার সমুদ্র তীরের বিয়াম ল্যাবরেটরী সংলগ্ন ময়দান। আখেরি মোনাজাতের মধ্য দিয়ে শনিবার শেষ হয়েছে কক্সবাজারে তিন দিন ব্যাপী অনুষ্ঠিত হওয়া মিনি ইজতেমা। দুপুরে আখেরী মোনাজাতে দেশ ও মুসলিম উম্মাহর শান্তি ও সমৃদ্ধি কামনা করা হয়। মোনাজাতের সময় চারদিকে লাখো মুসল্লির কণ্ঠে উচ্চারিত হয় আল্লাহ আল্লাহ ধ্বনি।
কক্সবাজারে অনুষ্ঠিত হওয়া মিনি ইজতেমা গত বৃহস্পতিবার শুরু হয়ে শেষ হয় শনিবার। শনিবার ফজরের নামাজের পর থেকে আখেরী মোনাজাতে অংশ নিতে কক্সবাজার সমুদ্র তীরের এই মাঠে লাখো মুসল্লির ঢল নামে। কাকরাইলের তাবলীগ মার্কাজের শীর্ষ মাওলানা মোহাম্মদ হোছাইন আখেরী মোনাজাত পরিচালনা করেন। লাখ লাখ ধর্মপ্রাণ মুসল্লির উপস্থিতিতে দুপুর ঠিক ১২ টায় মোনাজাত শুরু হয়ে ১২.১৫ মিনিটে শেষ হয়।

সরেজমিনে দেখা গেছে, সকাল ১০টার মধ্যে আখেরি মুনাজাতে অংশ নিতে আসার মুসল্লি দারা পুরো ইজতেমা ময়দান ও চারপাশ কানায় কানায় পূর্ণ হয়।

শনিবার বাদ ফজর থেকে বয়ান করেন কাকরাইলের শীর্ষ আলেমগণ। শেষ দিন শনিবারের আম ও খাসবয়ানে মুরব্বিরা দ্বীনের দাওয়াত, মেহনত, তাবলিগের উদ্দেশ্য, আগামী এক বছরের করণীয় এবং নতুন জামাতের উদ্দেশ্যে দিকনির্দেশনামূলক আলোচনা করেন।

মুরব্বিরা বলেন, মানুষের সবচেয়ে বড় দায়িত্ব হচ্ছে দ্বীনের দাওয়াতে ব্যস্ত থাকা। দ্বীনের মেহনত মূলত প্রতিটি মানুষের প্রকৃত কাজ। এ কাজ নবীওয়ালা কাজ। মেহনতের মাধ্যমে দিল জিন্দা করা যায়। যে যত বেশি মেহনত করবে, সে তত বেশি কামিয়াবি হাসিল করবে। দুনিয়া হচ্ছে ক্ষণস্থায়ী। দুনিয়াকে কেউ যদি স্থায়ী ঠিকানা মনে করে তাহলে ভুল হবে। দুনিয়াই থেকে আখেরাতের বাণিজ্য করে নিতে হবে। আল্লাহর তরিকা অনুসারে জীবন চালাতে হবে।

দেশ বিদেশের লাখ লাখ ধর্মপ্রাণ মুসল্লির অংশ নেয়া কক্সবাজারের মিনি ইজতেমায় মোনাজাতে মহান রাব্বুল আলামিনের দরবারে দু‘ হাত তুলে মুসলিম উম্মার শান্তি ঐক্য সুখ ও সমৃদ্ধি চাওয়া হয়।

ইজতেমা শেষ সকল মুসল্লি একসাথে জামাতবদ্ধ হয়ে দুপুরের নামাজ আদায় করেন।

এই বিভাগের আরও খবর
  • © ২০১৪ - ২০২০ সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত | কক্সবাজার আলো .কম
Site Customized By NewsTech.Com