1. litonsaikat@gmail.com : neelsaikat :
  2. shahjahanauh@gmail.com : কক্সবাজার আলো : কক্সবাজার আলো
  3. syedalamtek@gmail.com : syedalam :

কক্সবাজার পৌরসভার ১২নং ওয়ার্ডবাসি নাগরিক সুবিধা বঞ্চিত : ৫ সহস্রাধিক মানুষের দূর্ভোগ

  • আপডেটের সময় : রবিবার, ২৬ জুলাই, ২০১৫
  • ৮ দেখা হয়েছে

এম.শাহজাহান চৌধুরী শাহীন, কক্সবাজার :
কক্সবাজার পৌরসভার ১২ নং ওয়ার্ডবাসি হলেও প্রায় পাঁচ সহস্রাধিক অধিবাসি এখন পরবাসি হিসেবে জীবন কাটাচ্ছে। এরা দীর্ঘদিন ধরে পৌর কর্তৃপক্ষের কাছ থেকে প্রাপ্য নাগরিক সুবিধা হতে বঞ্চিত হয়ে আসছেন। ওই ওয়ার্ডের আর্দশ গ্রামটি দীর্ঘদিন অবহেলিত ও সড়কটি চলাচলের অযোগ্য হয়ে পড়েছে। একটু বৃষ্টি হলেই জলকাদায় সড়ক ভরে যায়। ময়লা আর্বজনা ফেলার জন্যও এখানে কোন ডাস্টবিন নেই। মশা আর বেওয়ারিশ কুকুরের উপদ্রবও কম নেই এখানে। রাস্তাঘাটের বেহাল দশার কারণ উন্নত এলাকটির যোগাযোগ ব্যবস্থা একেবারেই অনুন্নত হয়ে পড়ে রয়েছে যুগযুগ ধরে। স্থানীয় অধিবাসিরা পৌর ট্যাক্স, হোল্ডিংসহ বিভিন্ন ভাবে সরকারকে আয়করও দিয়ে আসছে। কিন্তু সে অনুপাতে কাঙ্খিত নাগরিক সুবিধা ৫ হাজার মানুষ পাচ্ছে না বলে অভিযোগ। স্থানীয় অধিবাসিরা জানান, ১২নং ওয়ার্ডের আর্দশ গ্রাম এলাকাটি সাম্প্রতিক সময়ে ভিআইপি এলাকা হিসেবে পরিচিতি লাখ করেছে। এখানে চিকিৎসক, আইনজীবি, ব্যবসায়ী, শিক্ষক, সরকারী চাকুরীজীবি, প্রবাসী সহ বিভিন্ন শ্রেণী ও পেশার প্রায় ৫ হাজারের অধিক মানুষ মানুষ বসবাস করে আসছেন। এখানে গড়ে উঠেছে স্কুল, মাদ্রাসা, মসজিদ, হাফেজখানা, দোকানপাট, ব্যবসা প্রতিষ্টান সহ বিভিন্ন ধর্মীয় প্রতিষ্টান।

কলাতলি বাইপাস সড়কের থেকে সরকারী কর্মচারীদের আবাসন প্রকল্প ৫১ একরের শেষ সীমানা পর্যন্ত প্রায় ১৪০০ ফুটের দৈর্ঘ্য কাচা সড়কটি একটু বৃষ্টি হলেই পানির নিচে তলিয়ে যায়। রাস্তার দু’পাশে নেই কোন ড্রেনেজ ব্যবস্থা। বিভিন্ন স্থানে খানাখন্দক ভরে গেছে। চলতি বৃষ্টির সময় জল ও কাদায় ভরে যাওয়ায় মূমুর্ষ রোগী, গর্ভবতী মহিলাদের হাসপাতালে নিয়ে যেতে মারাত্মক সমস্যা হচ্ছে কিংবা যে কোন প্রযোজনে গাড়ী যোগাযোগ বিচ্ছিন্ন রয়েছে। বৃষ্টির পানি আর কাদার কারণে মৃত দেহ দাফন করতে গোরস্থানে নিয়ে যেতেও সীমাহীন দূর্ভোগে পড়তে হয়। এছাড়া বিভিন্ন শ্রেণীর লোকজন ও স্কুল , কলেজ ও মাদ্রাসায় পড়–য়া শিশু, ছাত্রছাত্রীরা চলাচলে চরম ভাবে দূর্ভোগের শিকার হচ্ছে।

কলাতলি আর্দশ সার্বিক গ্রাম উন্নয়ন সমবায় সমিতির সভাপতি মাহামুদুল হক বাবুল, সাধারণ সম্পাদক নাছির উদ্দিন লান্টু, সমাজ কমিটির সভাপতি আবদুল মোনাফ সওদাগর, সাধারণ সম্পাদক মাষ্টার জসিম উদ্দিন জানান, আমরা পৌরসভার ১২ নং ওয়ার্ডবাসি হলেও এখানে তেমন কোন উন্নয়নমুলক কাজ হয়নি। সড়ক সংস্কারের জন্য স্থানীয় জনপ্রতিনিধি ও পৌর কর্তপক্ষের কাছে বার বার আবেদন জানিয়েও তাদের কর্ণকোহরে পৌছছে না এই আর্দশগ্রামবাসির দুঃখ দুর্দশার কাহিনী।

কক্সবাজার পৌরসভার ১২ নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর জিসান উদ্দিন জিসান বলেন, শীঘ্রই আর্দশগ্রামের বিরাজিত সমস্যা নিরসনে ব্যবস্থা নেয়া হবে।

বেওয়ারিশ কুকুর ও মশা নিধন, অবহেলিত এলাকার বিরাজিত সমস্যা আশু সমাধান কল্পে এলাকাবাসি এই আর্দশগ্রামের দিকে নজর দেয়ার জন্য স্থানীয় সরকার, পৌর কর্তৃপক্ষের আশু হস্তক্ষেপ কামনা করেছেন।

Please Share This Post in Your Social Media

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই বিভাগের আরও খবর
  • © ২০১৪ - ২০২০ সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত | কক্সবাজার আলো .কম
Site Customized By NewsTech.Com