আন্তর্জাতিক

করোনা: ইতালিতে মৃতের সংখ্যা পাঁচ হাজার ছাড়াল

45views

কক্সবাজার আলো ডেস্ক :
ইতালিতে করোনাভাইরাসে মৃতের সংখ্যা পাঁচ হাজার ছাড়িয়েছে। গত ২৪ ঘণ্টায় ইতালিতে মারা গেছে ৬৫১ জন। এই নিয়ে মোট মৃতের সংখ্যা পাঁচ হাজার ৪৭৬ জনে দাঁড়িয়েছে। এখন পর্যন্ত যে কোনও দেশে করোনায় এটাই সর্বোচ্চ মৃত্যু। গত ২৪ ঘণ্টায় আক্রান্ত পাঁচ হাজার ৫৬০জন ।এর মধ্যে ১২ জন মেডিকেল টিমের সদস্য রয়েছেন, যা গতকালের চেয়ে কম। মোট আক্রান্ত ৫৯ হাজার ১৩৮জন ।
দেশটিতে দিনদিন লাফিয়ে লাফিয়ে বাড়ছে মৃতের সংখ্যা। দিনের পর দিন দেশটিতে ভয়াবহ অবস্থার সৃষ্টি হচ্ছে। বাড়ছে আতঙ্কের মাত্রাও। জনগণকে সুরক্ষা দিতে সরকার করোনা মোকাবিলায় সর্বোচ্চ চেষ্টা চালাচ্ছে। ফলে এ পর্যন্ত ৭ হাজার ২৪জন সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরেছেন বলে জানিয়েছেন নাগরিক সুরক্ষা সংস্থার প্রধান অ্যাঞ্জেলো বোরেল্লি।
শনিবার দেশটিতে ভাইরাসটির সংক্রমণে ৭৯৩ জনের মৃত্যুর পর রাতে ঘোষিত পদক্ষেপে ‘জরুরি’ সরবরাহ ব্যবস্থা ছাড়া ব্যবসা প্রতিষ্ঠানগুলোকে সব ধরনের কার্যক্রম বন্ধ রাখার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। হাসপাতাল, সড়ক ও রেলপথ বাদে সব ধরনের নির্মাণ কাজও বন্ধ রাখতে বলা হয়েছে।
শনিবার ইতালির প্রধানমন্ত্রী জোসেপ্পে কন্তে দেশজুড়ে ‘জরুরি নয়’ এমন সব ধরনের ব্যবসা বন্ধ রাখার নির্দেশ দিয়েছেন। এছাড়া বাড়ির বাইরে সব ধরনের খেলাধুলা ও ব্যায়াম নিষিদ্ধ করা হয়েছে। পাশাপাশি ভেন্ডিং মেশিনের ব্যবহারও নিষিদ্ধ করা হয়েছে। সুপারমার্কেট, ফার্মেসি, পোস্ট অফিস ও ব্যাংক খোলা থাকবে এবং গণপরিবহনও সচল থাকবে বলে তিনি উল্লেখ করেন। জাতির উদ্দেশ্যে দেওয়া টেলিভিশনে সম্প্রচারিত এক ভাষণে প্রধানমন্ত্রী জোসেপ্পে কন্তে বলেন, “আমরা দেশের উৎপাদন ইঞ্জিনের গতি ধীর করবো কিন্তু বন্ধ করবো না।”
তিনি আরো বলেন দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধের পর ইতালি বর্তমানে কঠিন সময় পার করছে। তবে দেশের এই কঠিনতম সময় সহসাই কাঁটিয়ে ওঠার আশ্বাস দেন তিনি।
এদিকে করোনাভাইরাসের ইতালির বেশি সংক্রমিত অঞ্চল লোম্বারদিয়া। গত ২৪ ঘণ্টায় এখানে মারা গেছে ৩৬২জন। এ নিয়ে এ অঞ্চলে মৃত্যু সংখ্যা দাঁড়িয়েছে তিন হাজার ৪৫৬জন। লোম্বারদিয়া অঞ্চলের বেরগামো, বেরেশিয়া, লদি, করেমোনা এলাকা মৃত্যুপুরীতে পরিণত হয়েছে। এসব এলাকায় চলছে মৃত্যুর মিছিল। হাসপাতালগুলোর মর্গে জায়গা নেই। এমনকি কবরস্থান গুলোতেও লাশ রাখার জায়গা নেই। এসব শহর থেকে লাশগুলো সেনা সদস্যরা অন্য শহরে নিয়ে কবর দিচ্ছে। লোম্বারদিয়ার প্রেসিডেন্ট আত্তিলিয়ো ফোনতানা এক বিবৃতিতে বলেন, আমাদের ঘরে থাকতে হবে। ঘরে না থাকলে করোনাভাইরাসকে সহজে দমন করা সম্ভব নয়। তিনি অতি প্রয়োজন ছাড়া কাউকে বাইরে না যাওয়ার জন্য অনুরোধ জানান।

এদিকে গতকাল নতুন এক আইনে জনসাধারণকে বিনা প্রয়োজনে নিজ বাসস্থান থেকে ২০০ মিটারে বেশি বাইরে না যেতে বলা হয়েছে। এছাড়া পূর্বের ঘোষণা অনুয়ায়ী নিত্য প্রয়োজনীয় ছাড়া এ এলাকায় আপাতত আগামী ৩ এপ্রিল পর্যন্ত সব কিছু বন্ধ করে দেয়া হয়েছে। আইন অমান্যকারীকে জেল জরিমানা করা হবে বলে আইনে উল্লেখ করা হয়েছে।

এদিকে কিউবা থেকে ৫২ জনের একটি মেডিকেল টিম করোনা আক্রান্তদের সাহায্যর জন্য ইতিমধ্যে লোম্বারদিয়া এসে পৌঁছেছেন এবং রাশিয়ার একটি মেডিকেল টিম আসার কথা রয়েছে। চীন সরকারের দেয়া ৩০ লাখ মাক্স ইতিমধ্যে ইতালিতে এসে পৌঁছেছে।

গত আড়াই মাসে সারাবিশ্বে করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন ৩ লাখ ৮ হাজার ৭২০ জন। আর মৃত্যু হয়েছে ১৩ হাজার ৭১ জনের। বর্তমানে রোগীর সংখ্যা ১ লাখ ৯৯ হাজার ৮১৫জন। এদের মধ্যে আশঙ্কাজনক ৯হাজার ৯৪৩জন। মোট আক্রান্তদের মধ্যে ৯৫হাজার ৮৩৪জন চিকিৎসা নিয়ে সুস্থ হয়েছেন।

Leave a Response