1. litonsaikat@gmail.com : neelsaikat :
  2. shahjahanauh@gmail.com : কক্সবাজার আলো : কক্সবাজার আলো
  3. syedalamtek@gmail.com : syedalam :
  4. bblythe20172018@mail.ru : traceyhowes586 :

কে এই ‘শিশুবক্তা’ রফিকুল ইসলাম?

  • আপডেটের সময় : বুধবার, ৭ এপ্রিল, ২০২১
  • ২৮ দেখা হয়েছে

কক্সবাজার আলো ডেস্ক :
রাষ্ট্রবিরোধী উস্কানিমূলক ও ঔদ্ধত্যপূর্ণ বক্তব্য এবং বিশৃঙ্খলা সৃষ্টির অভিযোগে হেফাজতে ইসলাম বাংলাদেশের কেন্দ্রীয় সদস্য ‘শিশুবক্তা’ খ্যাত মাওলানা রফিকুল ইসলাম মাদানীকে আটক করেছে র‌্যাব। বুধবার বিকালে নেত্রকোণা থেকে তাকে আটকের কথা জানিয়েছে এলিট ফোর্সটি। যদিও ভোররাতে তাকে নেত্রকোণার বাসা থেকে তুলে নেয়ার অভিযোগ করেছে পরিবার।

এর আগে গত ২৫ মার্চ মতিঝিল এলাকায় ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির ঢাকা সফরবিরোধী মিছিল ও ভাঙচুরের সময় রফিকুল ইসলাম মাদানীকে আটক করেছিল পুলিশ। তবে কয়েক ঘণ্টা পর তাকে ছেড়ে দেয়া হয়।

রফিকুল ইসলাম মাদানী নেত্রকোণার পশ্চিম বিলাসপুর সাওতুল হেরা মাদ্রাসার পরিচালক। ইউটিউবে ‘শিশুবক্তা’ হিসেবে তার অনেক ওয়াজ পাওয়া যায়। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকেও তার বেশ পরিচিতি রয়েছে। তিনি লাইভে এসে সমসাময়িক বিষয়ে কথা বলে থাকেন।

এই বক্তার দাবি তিনি শিশু নন। তার জন্ম ১৯৯৫ সালে। তবে তার শারীরিক গঠন ও মুখাবয়ব দেখে যে কারো কাছে শিশুই মনে হবে।

নামের সঙ্গে ‘শিশুবক্তা’ বিশেষণ যুক্ত করার ব্যাপারে তার আপত্তি রয়েছে। বিভিন্ন মাহফিলে তিনি বলেন, ‘১৯৯৫ সালে আমার জন্ম। কে বলছে আমি শিশু? আমার বয়স ২৬ বছর।’

বিভিন্ন সময়ে ওয়াজে তার নামের সঙ্গে ‘শিশুবক্তা’ বিশেষণ ব্যবহার না করার অনুরোধও করেন তিনি। যদিও এই শব্দ-ভূষণ ব্যবহারের সুবিধা অনেকদিন থেকেই নিয়ে আসছেন তিনি।

তার বিরুদ্ধে অভিযোগ রয়েছে, মাহফিলের ভাষণে জঙ্গিদের হাতে নিহত লেখক অভিজিৎ রায় ও ব্লগার রাজীব হায়দারের খুনিদের ‘আমাদের ভাই’ বলে সম্বোধন করেছেন তিনি। এসব মামলায় জঙ্গিদের ফাঁসির রায় হয়েছে। কিন্তু সে রায় কার্যকর না করে রাষ্ট্রপতির মাধ্যমে তাদের ক্ষমা করে দেয়ার দাবি করেছেন এই ‘শিশুবক্তা’। তিনি বলেছেন, ‘এরশাদ শিকদারের মতো খুনিরা ফাঁসির রায় শুনে কাঁদে। আমার মুজাহিদ ভাইয়েরা ফাঁসির রায় শুনে হাসতে হাসতে মিডিয়ার সামনে কথা বলে।’

জানা গেছে, স্থানীয় স্কুলে শিক্ষাজীবন শুরু হলেও পরে তিনি মাদ্রাসায় ভর্তি হন এবং নুরানি ও হেফজ পড়েন। এরপর আট বছর কিতাবখানায় পড়েন। মাদ্রাসার ছাত্র থাকার সময় বিভিন্ন ওয়াজ মাহফিলে ওয়াজ করতেন রফিকুল। তিনি দাওরায়ে হাদিস পড়েছেন রাজধানীর জামিয়া মাদানিয়া বারিধারা মাদ্রাসায়। একই সঙ্গে তিনি বিএনপি-জামায়াত জোটের শরিক দল জমিয়তে উলামায়ে ইসলামের অঙ্গসংগঠন যুব জমিয়তের নেত্রকোনা জেলার সহসভাপতি।

জামিয়া মাদানিয়ায় পড়ার কারণে তিনি নামের সঙ্গে ‘মাদানী’ শব্দ যুক্ত করেন। যদিও সাধারণত নামের সঙ্গে ‘মাদানী’ যুক্ত করেন যারা মদিনা বিশ্ববিদ্যালয়ে পড়াশোনা করেন। ‘মাওলানা রফিকুল ইসলাম মাদানী’ নামে হেফাজতে ইসলামের মদিনা শাখার একজন নেতা আছেন। সম্প্রতি তিনি শিশুবক্তা খ্যাত রফিকুল ইসলামকে ‘মাদানী’ উপাধি ব্যবহার করে ওয়াজ-মাহফিল করায় আইনি নোটিশ পাঠান। বিষয়টি তখন বেশ আলোচিত হয়।

এই বিভাগের আরও খবর
  • © ২০১৪ - ২০২০ সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত | কক্সবাজার আলো .কম
Site Customized By NewsTech.Com