1. litonsaikat@gmail.com : neelsaikat :
  2. shahjahanauh@gmail.com : কক্সবাজার আলো : কক্সবাজার আলো
  3. syedalamtek@gmail.com : syedalam :

কোমেনের প্রভাবে ঈদগাঁওর কাঁচাবাজার : দ্রব্যমুল্যের উর্ধ্বগতি : বিপাকে ক্রেতারা

  • আপডেটের সময় : সোমবার, ৩ আগস্ট, ২০১৫
  • ১২ দেখা হয়েছে

এম. আবুহেনা সাগর, ঈদগাঁও :
টানা ভারী বর্ষণ, বন্যা, উজান থেকে নেমে আসা পাহাড়ী ঢল আর বিপদ সংকেত কোমেনের প্রভাবে কক্সবাজার সদর উপজেলার ঈদগাঁওর কাঁচাবাজারে দ্রব্যমূল্যের উর্ধ্বগতি নিয়ে ফের বিপাকে পড়েছে ক্রেতারা। একদিকে বারবার বন্যা কবলিত লোকজন হাহাকার করছে অন্যদিকে দ্রব্যমূল্যের উর্ধ্বগতি নিয়ে দিশেহারা হয়ে পড়েছে লোকজন। এ দুঃসময়ের যাতাকলে পিষ্ট হচ্ছে বৃহত্তর ঈদগাঁও এলাকার গ্রামাঞ্চলের মানুষজন। জানা যায়, ভারী বর্ষণ আর কোমেনের প্রভাবে বেশ ক’দিন পূর্বে প্রতিকেজি পেয়াজ ৩৫/৪০ টাকায় খুচরা মূল্যে বিক্রি হলেও তবে ঈদগাঁওয়ের কাঁচা বাজারে ১ আগষ্ট মান ভেদে প্রতিকেজি পেয়াজ বিক্রি হয় ৬০/৬৫ টাকায়। শুধু পেয়াজই নয়, কাঁচা বাজারে সব ধরণের পণ্যের দাম বেড়েই চলেছে। ঈদগাঁওয়ের কাঁচা পণ্যের বাজার চড়া হলেও চালের বাজার স্বাভাবিক রয়েছে বলে জানিয়েছেন অনেকে। এদিকে গতকাল ঈদগাঁও কাঁচা বাজার, মাছ বাজার, হাসপাতাল সড়ক, বাঁশঘাটা সড়কসহ কয়েকটি খুচরা ও পাইকারী বাজারের একাধিক ক্রেতা-বিক্রেতার সাথে এ প্রতিনিধির আলাপকালে এসব তথ্য উঠে আসে। তবে বেশ ক’জন খুচরা ব্যবসায়ীর মতে, টানা বৃষ্টির কারনে দূর-দূরান্ত থেকে ঈদগাঁওতে কাঁচামাল সময়মত আসতে না পারায় এবং অনেক স্থানে অতিবৃষ্টিতে শাক-সবজি পঁচে যাওয়ায় পাইকারী বাজারে এর দর বেড়েছে। এ কারনে খুচরা বাজারে সমন্বয় করে পণ্য বিক্রি করতে হচ্ছে। তারা আরো জানান, জেলাব্যাপী বন্যার কারনে ঐতিহ্যবাহী ঈদগাঁও বাজারে অনেক অসাধু ব্যবসায়ী পণ্যের দাম ইচ্ছেমাফিক বাড়িয়ে দিয়েছিল। অন্যদিকে সম্প্রতি খুচরা বাজারে মান ভেদে ঢেঁড়শ পটল, বেগুন, কচু, করলা, কাঁচা পেঁপে, টমেটো, কাঁচা মরিচ, কচুর লতিসহ নানা তরিতরকারী ফের চড়া দামে বিক্রি হচ্ছে। এদিকে খুচরা বাজারে প্রতিকেজি বয়লার মুরগী ১৫০ থেকে ১৬০ টাকা এবং লেয়ার মুরগী ১৯০ থেকে ২১০ টাকায় বিক্রি হচ্ছে। খুচরা বাজারে প্রতিকেজি গরুর মাংস বিক্রি হচ্ছে ৪০০ থেকে ৪২০ টাকা পর্যন্ত। আবার বাজারে সব ধরণের মাছের দাম কেজিতে ৩০ থেকে ৪০ টাকা হারে বেড়েছে বলে জানান অনেক ক্রেতা। মাছবাজার সংলগ্ন তোহা ফিড এন্টারপ্রাইজের পরিচালক তোহার সাথে আজকের কক্সবাজারের এ প্রতিনিধির আলাপকালে জানা যায়, সারাদেশে বৃষ্টি হলেও মাছের সরবরাহ কম। একারনে মানুষ ডিমের উপর নির্ভরশীল বর্তমানে। এতে ডিমের চাহিদা বেড়ে গেছে। যার ফলে বাজারে ডিমের দাম বাড়ছে বলেও জানান। তবে চাল ব্যবসায়ীদের মতে, চালের দাম স্বাভাবিক রয়েছে। প্রত্যেক ব্যবসায়ী প্রচুর পরিমাণ চাল মজুদ রেখেছে। অন্যদিকে সচেতন মহলের মতে, সম্প্রতি বয়ে যাওয়া কোমেনের আতঙ্কে বাজারে সব দ্রব্যমূল্যের একটু দাম বেড়েছে। তাই দ্রুত সময়ে বাজারের দ্রব্যমূল্যের স্বাভাবিকভাবে ফিরিয়ে আনার আহবান জানান ব্যবসায়ীদের প্রতি।

Please Share This Post in Your Social Media

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই বিভাগের আরও খবর
  • © ২০১৪ - ২০২০ সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত | কক্সবাজার আলো .কম
Site Customized By NewsTech.Com