1. litonsaikat@gmail.com : neelsaikat :
  2. shahjahanauh@gmail.com : কক্সবাজার আলো : কক্সবাজার আলো
  3. syedalamtek@gmail.com : syedalam :
শিরোনাম :
বসতভিটা দখলে নিতে চেষ্টা: লক্ষ্যারচর ইউনিয়ন আ’লীগের সভাপতি-সম্পাদকের বিরুদ্ধে মামলা “প্রধানমন্ত্রীর আন্তরিকতায় বিশ্বমানের পর্যটন নগরী হবে কক্সবাজার”: সচিব হেলালুদ্দীন ধর্ষণের শাস্তি মৃত্যুদণ্ড, আইনের খসড়া চূড়ান্ত অনুমোদন শহরের পূজা মন্ডপগুলোতে দর্শনার্থী ও পূজারিদের ভিড় অশুভ শক্তির বিনাশই দুর্গোৎসবের বৈশিষ্ট্য-জেলা প্রশাসক প্রেসিডেন্টস কাপে চ্যাম্পিয়ন মাহমুদউল্লাহ একাদশ ঈদগাঁওতে এবার সীমিত পরিসরে শারদীয় দূর্গাৎসব উদযাপিত সরাসরি ভর্তি পরীক্ষার মাধ্যমে চবি’তে শিক্ষার্থী ভর্তির সিদ্ধান্ত সেন্টমার্টিনে আটকেপড়া চার শতাধিক পর্যটক ফিরলেন রোহিঙ্গাদের ফেরাতে গ্রিসের সহযোগিতা চাইলেন রাষ্ট্রদূত

গণধর্ষণ নারী ও শিশু নির্যাতন বৃদ্ধির প্রতিবাদে রাজধানীসহ দেশব্যাপী জামায়াতের বিক্ষোভ

  • আপডেটের সময় : বৃহস্পতিবার, ৬ আগস্ট, ২০১৫
  • ১৫ দেখা হয়েছে

স্টাফ রিপোর্টার : গণধর্ষণ, নারী ও শিশু নির্যাতন বৃদ্ধির প্রতিবাদে গতকাল বুধবার রাজধানীসহ সারা দেশে বিক্ষোভ মিছিল ও সমাবেশ করেছে জামায়াতে ইসলামী। রাজধানীর কাজীপাড়ায় অনুষ্ঠিত সমাবেশে জামায়াতে ইসলামীর কেন্দ্রীয় কর্মপরিষদ সদস্য ও ঢাকা মহানগরীর সহকারী সেক্রেটারি মোবারক হোসাইন বলেছেন, সরকার মুখে নারী আধিকারের কথা বললেও এই সরকারের আমলেই অতিমাত্রায় নারী সম্ভ্রমহানির শিকার হয়েছেন। নারী ও শিশু ধর্ষণ-হত্যা এখন নিত্যনৈমিত্তিক ব্যাপার হয়ে দাঁড়িয়েছে। তাই এই সরকারের হাত থেকে জনগণের জানমাল ও নারীর সম্ভ্রম রক্ষায় জালিম সরকারের পতনের কোন বিকল্প নেই। তিনি ব্যর্থ, জুলুমবাজ ও ফ্যাসিবাদী সরকারের পতনের লক্ষ্যে সকলকে ঐক্যবদ্ধ হওয়ার আহ্বান জানান।
কেন্দ্র ঘোষিত দেশব্যাপী বিক্ষোভ কর্মসূচির অংশ হিসাবে জামায়াতে ইসলামী ঢাকা মহানগরী আয়োজিত এক বিক্ষোভ পরবর্তী সমাবেশে তিনি একথা বলেন। বিক্ষোভ মিছিলটি মিরপুর ১০ নং গোলচত্বর থেকে শুরু হয়ে নগরীর বিভিন্ন সড়ক প্রদক্ষিণ করে কাজীপাড়ায় গিয়ে সমাবেশের মাধ্যমে শেষ হয়। সমাবেশে উপস্থিত ছিলেন ঢাকা মহানগরীর কর্মপরিষদ সদস্য লস্কর মোহাম্মদ তাসলিম, ঢাকা মহানগরীর মজলিসে শূরা সদস্য আব্দুস সালাম, অধ্যাপক আনোয়ারুল করিম, মুস্তাফিজুর রহমান, নূরুল ইসলাম আকন্দ ও জসিম উদ্দীন, জামায়াত নেতা আশরাফুল আলম, আলাউদ্দীন মোল্লা, জাহাঙ্গীর আলম ও জামাল উদ্দীন, ইসলামী ছাত্রশিবিরের ঢাকা মহানগরী পশ্চিমের সভাপতি তামীম হোসেন, ছাত্র নেতা ডা. মুহাহিদুল ইসলাম, আব্দুল আলীম, এনামুল হক ও বখতিয়ার সিদ্দিকী তুহিন প্রমুখ।
মোবারক হোসাইন বলেন, সরকারের আস্কারা পেয়েই অপরাধীরা বেপরোয়া হয়ে উঠেছে। গোটা দেশই অপরাধীদের অভয়ারণ্যে পরিণত হয়েছে। গত ৩০ জুলাই উত্তরায় ডিপার্টমেন্টাল স্টোরের একজন বিক্রয় কর্মীকে দুর্বৃত্তরা গণধর্ষণ করেছে। ২৪ জুলাই সিলেটে এক তরুণীকে অপহরণ করে গণধর্ষণ করা হয়েছে। ২ আগস্ট মিরপুর ও হাজারীবাগে দু’শিশু ধর্ষণের শিকার হয়। মাগুরায় যুবলীগের দু’গ্রুপের গোলাগুলীতে একজন অন্তঃসত্ত্বা মহিলা ও তার গর্ভস্থ সন্তান গুলীবিদ্ধ হয়। গত ৪ আগস্ট রাজধানীর ভাটারায় ১০ বছর বয়সী আদিবাসী শিশুকে ধর্ষণ করা হলেও অপরাধী এখনও অধরা। ঘটনার প্রায় সকল ক্ষেত্রেই সরকারি দলের চিহ্নিত সন্ত্রাসীরাই জড়িত হওয়ায় আইন-শৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী তাদের বিরুদ্ধে কোন ব্যবস্থা নিতে পারছে না। ফলে দেশে অপরাধ ও অপরাধপ্রবণতা বেড়েই চলেছে। তিনি সরকারকে গণবিরোধিতা পরিহার করে অবিলম্বে এসব চিহ্নিত অপরাধীকে গ্রেফতার করে দৃষ্টান্তমূলক শান্তি প্রদানের আহ্বান জানান। অন্যথায় সরকারকে গণরোষের মুখোমুখি হতে হবে।
মতিঝিল জোন : জামায়াতে ইসলামী ঢাকা মহানগরীর কর্মপরিষদ সদস্য এডভোকেট ড. হেলাল উদ্দীন বলেছেন, সরকারের উপর্যুপরি ব্যর্থতা ও সংকীর্ণ দলীয় মনোবৃত্তির কারণেই দেশের আইন-শৃঙ্খলা পরিস্থিতির মারাত্মক অবনতি হয়েছে। সরকারি দলের সন্ত্রাসীরা গোটা দেশকেই অপরাধের লীলাভূমিতে পরিণতি করেছে। আশঙ্কাজনকভাবে বেড়েছে নারী-শিশু নির্যাতন ও ধর্ষণের ঘটনা। মাতৃগর্ভেও শিশুরা নিরাপদ নয়। এমতাবস্থায় কোন বিবেকবান ও সচেতন মানুষ উদাসীন ও নির্লিপ্ত থাকতে পারে না। তিনি সরকারের সীমাহীন ব্যর্থতা, জুলুম-নির্যাতন ও দেশ-জাতিসত্তাবিরোধী ষড়যন্ত্র মোকাবিলায় সকলকে ঐক্যবদ্ধ হওয়ার আহ্বান জানান।
কেন্দ্র ঘোষিত দেশব্যাপী বিক্ষোভ কর্মসূচির অংশ হিসাবে জামায়াতে ইসলামী ঢাকা মহানগরীর মতিঝিল জোন আয়োজিত এক বিক্ষোভ পরবর্তী সমাবেশে তিনি একথা বলেন। বিক্ষোভ মিছিলটি মৌচাক মোড় থেকে শুরু হয়ে নগরীর বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ সড়ক প্রদক্ষিণ করে মালিবাগ রেলগেইটে গিয়ে সমাবেশের মাধ্যমে শেষ হয়। সমাবেশে উপস্থিত ছিলেন ঢাকা মহানগরীর কর্মপরিষদ সদস্য অধ্যাপক মোকাররম হোসাইন খান, শিবিরের মহানগরী পূর্বের সেক্রেটারি শরীফ হোসেন, ছাত্রনেতা সোহেল রানা মিঠু ও আশরাফ উদ্দীন, মতিঝিল থানা জামায়াতের সেক্রেটারি মুতাসিম বিল্লাহ ও শাহজাহানপুর সেক্রেটারি সাইদুর রহমান প্রমুখ।
রংপুর অফিস : বাংলাদেশ জামায়াতে ইসলামী রংপুর মহানগরীর উদ্যোগে কোতয়ালী সাংগঠনিক থানায় ও সাতগাড়া সাংগঠনিক থানায় পৃথক পৃথক বিক্ষোভ মিছিল ও সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়েছে।
বিক্ষোভ মিছিলগুলো রংপুর শহরের প্রধান প্রধান সড়ক প্রদক্ষিণ করে পৃথক পৃথক সমাবেশে মিলিত হয়।
সমাবেশগুলোতে বক্তাগণ সারা দেশে অব্যাহতভাবে গণধর্ষণ, নারী নির্যাতন ও শিশু হত্যায় উদ্বেগ প্রকাশ করে বলেন, প্রত্যেকটি গণধর্ষণ, নারী নির্যাতন, শিশু-কিশোর হত্যার সংগে অবৈধ সরকারের সোনার ছেলেরা জড়িত থেকে বাংলাদেশকে বিশ্বের দরবারে খুনি, ধর্ষক, নারী নির্যাতনকারী দেশ হিসাবে পরিচিতি লাভের প্রতিযোগিতায় লিপ্ত রয়েছে।
সরকারি দলের নেতাকর্মীদের দ্বারা খুন, ধর্ষণ ও নারী নির্যাতনের স্বীকার হওয়ার ফলে ক্ষতিগ্রস্তরা আইনের প্রতিকার থেকে বঞ্চিত হচ্ছে। আবার কোন কোন ক্ষেত্রে আইন শৃংখলা বাহিনীর পৃষ্ঠপোষকতায় ভিকটিমকে আইনের প্রতিকার না নিতে ভয়ভীতি দেখানো হচ্ছে । যার কারণে বাংলাদেশ আজ মৃত্যুপুরিতে পরিণত হয়েছে।
বক্তারা বলেন, জনগণের ভোট ছাড়া অবৈধভাবে সরকার হওয়ায় এই সরকারের জনগণের জানমালের নিরাপত্তা বিষয়ে কোন মাথা ব্যথা নাই।
বক্তাগণ এমন শ্বাসরুদ্ধকর মৃত্যুপুরি থেকে পরিত্রাণের জন্য ঐক্যবদ্ধভাবে গণআন্দোলনে ঝাপিয়ে পড়ার জন্য দেশপ্রেমিক জনগণকে আহ্বান জানান।
সমাবেশে অন্যান্যের মধ্যে ছিলেন থানা প্রচার সেক্রেটারি ফরহাদ হোসেন, বেলাল হোসেন, গোলাম মোস্তফা, ছাত্রনেতা শিমুল প্রমুখ।
এছাড়াও চাঁপাইনবাবগঞ্জ, মৌলভীবাজার, হবিগঞ্জ, নীলফামারী, ঠাকুরগাঁও, নাটোর, বাগেরহাট, চুয়াডাঙ্গা, মাগুরা, চাঁদপুর, কক্সবাজারসহ সারা দেশেই শান্তিপূর্ণ বিক্ষোভ মিছিল বের করা হয়েছে।
রাজশাহী অফিস : দেশে অব্যাহতভাবে গণধর্ষণ, নারী ও শিশু নির্যাতনের প্রতিবাদে কেন্দ্র ঘোষিত শান্তিপূর্ণ বিক্ষোভ কর্মসূচির অংশ হিসেবে জামায়াতে ইসলামী রাজশাহী মহানগরী গতকাল বুধবার দুপুর তালাইমারী বাজার এলাকায় এক বিক্ষোভ মিছিল করে। মিছিল উত্তর সমাবেশে জামায়াত নেতৃবৃন্দ বলেন, দেশে অব্যাহতভাবে গণধর্ষণ, নারী ও শিশু নির্যাতনের ঘটনা ঘটছে। এখন দেশে কোন মানুষের জীবনের নিরাপত্তা নেই। সরকারের ইন্ধনে আওয়ামী লীগের দোসর ও প্রশাসনের লোকেরা খুন, গুম ও ক্রসফায়েরর নামে দিনে-দুপুরে মানুষ হত্যা করছে। একদলীয় শাসন ব্যবস্থা কয়েমের জন্য বর্তমান সরকার বিরোধী দলের শীর্ষ নেতৃবৃন্দের নামে মিথ্যা মামলা দিয়ে ফাঁসির রায় ঘোষণা করে দেশে এক ত্রাসের রাজত্ব কায়েম করেছে। বর্তমান সরকার জোর করে ক্ষমতায় আসার পর থেকে সরকারের প্রতিটি কর্মকা- প্রশ্নবিদ্ধ। বিরোধী দল ও মত দমনের জন্য সরকার পুলিশ বাহিনীকে ব্যবহার করছে এবং মামলা, গ্রেফতার ও গুপ্তহত্যা ব্যাপকভাবে বৃদ্ধি পেয়েছে। সরকার দেশকে বিপর্যয়ের দিকে ঠেলে দিচ্ছে। যা গণতান্ত্রিক ব্যবস্থায় মহাদুর্যোগ ডেকে আনবে। স্বাধীনতার ৪৪ বছর পর আজ কথিত যুদ্ধাপরাধের বিচারের নামে ইসলামী শক্তিকে দুর্বল করে ক্ষমতাকে দীর্ঘস্থায়ী করতে পরিকল্পিত ষড়যন্ত্রের অংশ হিসেবে জামায়াতের শীর্ষ নেতাদের নিয়ে সরকার ষড়যন্ত্র শুরু করেছে। নেতৃবৃন্দ অবিলম্বে জামায়াতে ইসলামীর আমীর মাওলানা মতিউর রহমান নিজামী, সেক্রেটারি জেনারেল আলী আহসান মোহাম্মাদ মুজাহিদসহ শীর্ষ নেতাদের জনগণের মাঝে ফিরিয়ে দেয়ার আহ্বান জানান।
চট্টগ্রাম অফিস : সারা দেশে অব্যাহতভাবে গণধর্ষণ, নারী ও শিশু নির্যাতন ও হত্যাকা- বৃদ্ধি পাওয়ার প্রতিবাদে ও ধর্ষণকারী, নারী ও শিশু হত্যাকারীদের গ্রেফতার করে দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবি জানিয়ে বাংলাদেশ জামায়াতে ইসলামী কেন্দ্র ঘোষিত বিক্ষোভ দিবস উপলক্ষে চট্টগ্রাম মহানগরী জামায়াতে ইসলামীর উদ্যোগে বিক্ষোভ মিছিল ও সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়। বিক্ষোভ সমাবেশে নেতৃবৃন্দ বলেছেন, এই জনবিছিন্ন সরকারের আমলে সবচাইতে বেশ নারী গণধর্ষণ, নারী ও শিশু নির্যাতন ও হত্যা হচ্ছে। জনগণের নির্বাচিত সরকার না হওয়ায় জনগণের জানমাল রক্ষার্থে সরকার কোন কার্যকর ব্যবস্থা গ্রহণ করছে না। ফলে মানবতাবিরোধী কার্যকলাপ বৃদ্ধি পেয়েছে। জনগণের জানমালের কেনা নিরাপত্তা নেই। এই ধরনের পৈশাচিক ঘটনা ও হত্যাকাণ্ডে দেশবাসী উদ্বিগ্ন। আইনশৃংখলা রক্ষাকারী বাহিনীর নির্লিপ্ততার কারণে দুর্বৃত্তরা গ্রেফতার হচ্ছে না। নেতৃবৃন্দ অবিলম্বে সন্ত্রাসী দুর্বৃত্তদের গ্রেফতারের দাবি জানান। জামায়াত নেতৃবৃন্দ বলেন, ঢাকায় মহিলা দোকান কর্মচারী ধর্ষিতা হওয়ার পর সিলেটে নির্মমভাবে শিশু রাজন হত্যা, খুলনায় শিশু রাকিব হত্যা ও ঢাকার যাত্রাবাড়ীতে গণধর্ষণ প্রমাণ করে দেশে কোন সরকার নেই। মহানগর প্রচার সম্পাদক মুহাম্মদ উল্লাহর সভাপতিত্বে আন্দরকিল্লা মোড় থেকে অনুষ্ঠিত এক বিক্ষোভ মিছিল বিভিন্ন সড়ক প্রদক্ষিণ করে সিরাজদ্দৌল্লাহ রোডস্থ সাব এরিয়া এলাকায় এক সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়। সমাবেশে অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য রাখেন নেতা আ.ক.ম ফরিদুল আলম, মুহাম্মদ ইলিয়াছ, দেলোয়ার হোসেন, ছাত্রশিবির নগর উত্তর সেক্রেটারি ছালাহ উদ্দিন মাহমুদ, ছাত্রনেতা ওমর গণি, ছাদুর রশিদ চৌধুরী ও মাহবুবুর রহমান প্রমুখ।
খুলনা অফিস : দেশে অব্যাহতভাবে গণধর্ষণ, নারী ও শিশু নির্যাতন বৃদ্ধি পাওয়ার প্রতিবাদে খুলনায় বিক্ষোভ মিছিল ও সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়েছে। কেন্দ্র ঘোষিত কর্মসূচির অংশ হিসেবে গতকাল বুধবার খুলনা মহানগরী জামায়াতে ইসলামী উদ্যোগে নগরীতে বিক্ষোভ মিছিল ও সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়। মিছিল পূর্ব সমাবেশে সভাপতিত্ব করেন কেন্দ্রীয় মজলিসে শূরার সদস্য ও খুলনা মহানগরী সেক্রেটারি অধ্যাপক মাহফুজুর রহমান। অন্যান্যের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন ইকবাল হোসেন, তরিকুর রহমান, ইমরান খালিদ, মাহফুজুর রহমান, মোশাররফ আনসারী, আহমদ গাজী, মাহবুব বিল্লাহ প্রমুখ। সমাবেশে সভাপতির বক্তব্যে অধ্যাপক মাহফুজুর রহমান বলেন, আজ দেশের মানুষ ধর্মীয় অনুশাসন মেনে না চলার কারণে স্কুল-কলেজের ছাত্রী থেকে শুরু করে কর্মজীবী নারীরা পর্যন্ত ধর্ষিতা হচ্ছে। অবস্থাদৃষ্টে মনে হচ্ছে যে, দেশে যেন কোন সরকার নেই এবং আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীও নেই। অভিভাবকগণ দারুণ উদ্বিগ্নের সাথে দিন কাটাচ্ছে।
নেতৃবৃন্দ বলেন, বাসে, ট্রাকে ও নৌকায় তুলে নিয়ে দুর্বৃত্তরা নারীদের গণধর্ষণ করছে। কিছুদিন আগে মাগুরাতে যুবলীগের দু’গ্রুপের গোলাগুলীতে একজন অন্তঃসত্ত্বা মহিলা ও তার পেটের সন্তানটি গুলীবিদ্ধ হয়। এখন তারা হাসপাতালে চিকিৎসাধীন আছে। মিডিয়ায় যে খবর আসছে তাতে দেখা যায় এসব পৈশাচিক ঘটনার সাথে সরকারি দলের সন্ত্রাসীরা জড়িত। আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী লোক দেখানোর মতো ভূমিকা রাখছে মাত্র। ফলে এসব ঘটনা দিন দিন বেড়েই চলেছে। দেশে আইনশৃঙ্খলার এতই অবনতি ঘটেছে যে, কেউ কোথাও নিরাপদ নয়, এমনকি নিজের বাড়িতেও। নেতৃবৃন্দ সরকারকে এ ব্যাপারে কঠিন পদক্ষেপ নেয়ার আহ্বান জানান।
 সিলেট ব্যুরো : সিলেট মহানগর জামায়াত নেতৃবৃন্দ বলেছেন, অবৈধ আওয়ামী সরকারের অপশাসনে আইনশৃংখলা পরিস্থিতির চরম অবনতিতে স্বাভাবিক জীবনযাত্রা দুর্বিষহ হয়ে পড়েছে। শিশু হত্যা, গণধর্ষণ, খুন, গুম ও সন্ত্রাসী কর্মকাণ্ডে গোটা জাতি আজ ভীতসন্ত্রস্ত হয়ে পড়েছে। সন্ত্রাসের ভয়াল থাবা থেকে কোমলমতি শিশুরাও রেহাই পাচ্ছে না। সরকারদলীয় সন্ত্রাসীদের গোলাগুলীতে মায়ের গর্ভের সন্তান গুলীবিদ্ধ হওয়ার ঘটনা প্রমাণ করে সরকারের ছত্রছায়ায় দেশে সন্ত্রাসের রাজত্ব কায়েম হতে চলেছে। এই অবস্থা চলতে দেয়া যায় না। অবৈধ সরকারের সন্ত্রাসী ছোবল থেকে নিরীহ নাগরিকদের হত্যায় দেশপ্রেমিক জনতাকে স্বোচ্ছার হতে হবে। দেশব্যাপী চাঁদাবাজি ও অপহরণ চরম আকার ধারণ করেছে। আওয়ামী বাকশালী সরকারের পতন না হওয়া পর্যন্ত জনতার মুক্তি নেই। তাই ইস্পাত কঠিন ঐক্য গড়ে তোলার মাধ্যমে অবৈধ সরকারের পতন ঘটাতে হবে। গতকাল বুধবার জামায়াত কেন্দ্র ঘোষিত দেশব্যাপী বিক্ষোভ কর্মসূচির অংশ হিসেবে সারা দেশে অব্যাহতভাবে আইনশৃঙ্খলার চরম অবনতি, শিশু হত্যা, লোমহর্ষক খুন-হত্যাকা-, গুম, দুর্ধর্ষ ডাকাতি ও সন্ত্রাসী কর্মকা- আশংকাজনকহারে বৃদ্ধির প্রতিবাদে সিলেট মহানগর জামায়াত নগরীতে বিক্ষোভ মিছিল বের করে। নগরীর বন্দরবাজার এলাকায় অনুষ্ঠিত মিছিল পরবর্তী সংক্ষিপ্ত সমাবেশে নেতৃবৃন্দ উপরোক্ত কথা বলেন।
মিছিল পরবর্তী সমাবেশে বক্তব্য রাখেন- সিলেট মহানগর জামায়াতের সেক্রেটারি মাওলানা সোহেল আহমদ, সহকারী সেক্রেটারি মোঃ শাহাজাহান আলী, মশাহিদ আহমদ, মুঃ আজিজুল ইসলাম, চৌধুরী আব্দুল বাছিত নাহির, মুঃ শাহেদ আলী, ইসলামী ছাত্রশিবির সিলেট মহানগর সেক্রেটারি মাসুক আহমদ প্রমুখ। নেতৃবৃন্দ বলেন, দেশে আইনের শাসন নেই বললেই চলে। সিলেটের নিরীহ বালক সামিউল ইসলাম রাজনকে নৃশংসভাবে হত্যা, কানাইঘাটসহ দেশের বিভিন্ন স্থানে গণধর্ষণ করে নিরীহ নারীদের হত্যা তারই প্রমাণ। গণতান্ত্রিক সরকার প্রতিষ্ঠা না হলে জনতার মুক্তি নেই। তাই সকল সন্ত্রাস ও জুলুমের বিরুদ্ধে জনতাকে গর্জে উঠতে হবে। অবৈধ সরকারের পতন নিশ্চিত ও গণতন্ত্র পুনরুদ্ধার করে জনতার সরকার প্রতিষ্ঠিত করার মাধ্যমেই সকল সন্ত্রাসের বিচার করা হবে ইনশাআল্লাহ।
বগুড়া অফিস : সারা দেশে গণধর্ষণ, নারী ও শিশু নির্যাতনের প্রতিবাদে বগুড়ায় বিক্ষোভ মিছিল করেছে জামায়াত। কেন্দ্রীয় কর্মসূচির অংশ হিসেবে গতকাল বুধবার সকালে শহরের কেন্দ্রস্থল সাতমাথার নিকটবর্তী ফতেহ আলী বাজারের সামনে থেকে শুরু হয়ে মিছিলটি চেলোপাড়ায় গিয়ে শেষ হয়। মিছিল শেষে সংক্ষিপ্ত সমাবেশে জামায়াতের শহর শাখার নেতৃবৃন্দ বলেন, দেশে চরম অরাজক পরিস্থিতি বিরাজ করছে। প্রতিদিন গড়ে দু’জন নারী ধর্ষণ বা গণধর্ষণের শিকার হচ্ছেন। ঘরে-বাইরে, রাস্তা-ঘাটে, বাসের ভেতর, অটোরিক্সার ভেতর গণধর্ষণের শিকার হচ্ছেন নারীরা। এসব অপকর্মের সাথে সরকারি দলের ক্যাডাররা সরাসরি জড়িত থাকায় তাদের বিচার হচ্ছে না।
বক্তারা আরও বলেন, সিলেটে নিষ্পাপ শিশু রাজনকে প্রকাশ্য দিবালোকে পৈশাচিক কায়দায় হত্যার পর এবার খুলনায় আরেক শিশু রাকিবকে নির্মমভাবে হত্যা করা হয়েছে। মাগুরায় ছাত্রলীগ সন্ত্রাসীদের গুলীতে অন্তঃসত্ত্বা মায়ের পেটের ভেতরে শিশুর বুক ঝাঁঝরা হয়েছে। সারা দেশে প্রতিনিয়ত এমন নির্মম পৈশাচিক ঘটনা ঘটলেও সরকার নির্বিকার। খুনিদের বিচার না হওয়ায় দেশে প্রতিদিন এসব পৈশাচিক ঘটনা বেড়েই চলেছে। দেশের মানুষের জান-মাল ও ইজ্জতের নিরাপত্তা দিতে ব্যর্থতার দায়ে সমাবেশ থেকে অবিলম্বে সরকারের পদত্যাগ দাবি করা হয়।
গাজীপুর সংবাদদাতা : কেন্দ্র ঘোষিত কর্মসূচির অংশ হিসেবে গতকাল বুধবার সকালে বিক্ষোভ মিছিল করেছে গাজীপুর মহানগর জামায়াত। মহানগর জামায়াতের ভারপ্রাপ্ত সেক্রেটারি মুহাম্মদ হোসেন আলীর নেতৃত্বে বিক্ষোভ মিছিল জয়দেবপুর চৌরাস্তা এলাকায় ঢাকা-টাঙ্গাইল মহাসড়ক প্রদক্ষিণ করে। মিছিলে অন্যান্যের মাঝে উপস্থিত ছিলেন মহানগর শ্রমিক কল্যাণ ফেডারেশন সভাপতি আজহারুল ইসলাম মোল্লা, জামায়াত নেতা রফিকুল ইসলাম, সাইদুর রহমান, মহানগর শিবির সেক্রেটারি আহমেদ ইমতিয়াজ, শিবির নেতা মিজানুর রহমান, গোলাম কিবরিয়া, সাইফুল ইসলাম প্রমুখ।
ময়মনসিংহ সংবাদদাতা : দেশব্যাপী অব্যাহত শিশু ও নারী নির্যাতন, গণধর্ষণ ও হত্যার প্রতিবাদে কেন্দ্রীয় কর্মসূচির অংশ হিসেবে ময়মনসিংহে বিক্ষোভ মিছিল করেছে শহর জামায়াত। গতকাল বুধবার দুপুর ১টার দিকে শহর জামায়াতের আমীর কামরুল আহসান ইমরুলের নেতৃত্বে বিক্ষোভ মিছিলটি শহরের চরপাড়া মোড় থেকে শুরু হয়ে প্রধান সড়ক প্রদক্ষিণ করে ধোপাখলা মোড়ে গিয়ে সংক্ষিপ্ত সমাবেশের মাধ্যমে শেষ হয়। এ সময় শহর জামায়াতের কর্মপরিষদ সদস্য হায়দার করিম, আল হেলাল তালুকদারসহ বিভিন্ন পর্যায়ের নেতা-কর্মী উপস্থিত ছিলেন।
কুড়িগ্রাম সংবাদদাতা : কেন্দ্রীয় কর্মসূচির অংশ হিসেবে কুড়িগ্রাম জামায়াতের উদ্যোগে বিক্ষোভ মিছিল অনুষ্ঠিত হয়। গতকাল বুধবার শহর জামায়াতের সেক্রেটারি সাকায়াত হোসেনের নেতৃত্বে বিক্ষোভটি কুড়িগ্রামের জিয়াবাজার থেকে শুরু করে শহরের গুরুত্বপূর্ণ সড়ক প্রদক্ষিণ করে দাদা মোড়ে গিয়ে সংক্ষিপ্ত সমাবেশের মাধ্যমে শেষ হয়। সংক্ষিপ্ত সমাবেশে বক্তারা অবিলম্বে গণধর্ষণ, নারী ও শিশু নির্যাতনকারীদের আইনের আওতায় নিয়ে এসে তাদের বিচারের দাবি জানান এবং অবিলম্বে গণধর্ষণ, নারী ও শিশু নির্যাতন বন্ধের ও দাবি জানানো হয়। এ সময় উপস্থিত ছিলেন জেলা শিবিরের সভাপতি রাশেদুল ইসলাম রোমান, সেক্রেটারি শহিদুল ইসলাম, শিবির নেতা আঃ মালেক প্রমুখ।
কুষ্টিয়া সংবাদদাতা : সারা দেশে নারী শিশু নির্যাতনের প্রতিবাদে কুষ্টিয়ায় জামায়াতের উদ্যোগে বিক্ষোভ মিছিল অনুষ্ঠিত হয়েছে। গতকাল বুধবার সকালে কুষ্টিয়া শহরে এ বিক্ষোভ মিছিল অনুষ্ঠিত হয়। মিছিলটি বিভিন্ন সড়ক প্রদক্ষিণ করে। মিছিলে নেতৃত্ব দেন জামায়াতের জেলা নায়েবে আমীর দেলোয়ার হুসাইন, সদর থানা আমীর মোহাম্মদ আলীসহ অন্যান্য নেতৃবৃন্দ।
ফেনী সংবাদদাতা : দেশব্যাপী নারী ও শিশু নির্যাতনের প্রতিবাদে গতকাল বুধবার সকালে ফেনী শহরে বিক্ষোভ মিছিল বের করে জামায়াতে ইসলামী ফেনী শহর শাখা। বিক্ষোভ মিছিলে নেতৃত্ব দেন জামায়াত নেতা মাওলানা আবদুল ওহাব ভূঞা ও শিবির নেতা সামাউন। অগ্রভাগে ছিলেন শিবির নেতা কপিল উদ্দিনসহ বিপুল সংখ্যক জামায়াত-শিবিরের নেতা-কর্মী। মিছিলটি শহরের ট্রাংক রোড থেকে বের হয়ে গুরুত্বপূর্ণ সড়ক প্রদক্ষিণ করে শেষ হয়।
বরিশাল অফিস : কেন্দ্র ঘোষিত বিক্ষোভ মিছিল করেছে বরিশাল মহানগর জামায়াত। গতকাল সকালে বরিশাল নগরীতে এ বিক্ষোভ মিছিল অনুষ্ঠিত হয়। মিছিলে নেতৃত্ব দেন মহানগর জামায়াত নেতা মোঃ মাহবুবুবর রহমান, শিবির মহানগর সভাপতি মোঃ ইমাম হোসেন। মিছিল পরবর্তী এক সংক্ষিপ্ত সমাবেশে নেতৃবৃন্দ বলেন, অবৈধ সরকার ক্ষমতা আঁকড়ে থাকার জন্য মরিয়া হয়ে পড়েছে। দেশের মানুষের জীবন ও সম্পদের সুরক্ষা এবং কোন জীবনমানের নিরাপত্তা নেই। মানুষ দিন দিন বেপরোয়া হয়ে পড়েছে যার কারণে সামাজিক অনাচার এবং অপরাধ সর্বকালের রেকর্ড ছাড়িয়ে গেছে। প্রতিদিন দেশের কোথাও না কোথাও নির্মমভাবে মানুষ খুন হচ্ছে যা সামাজিক বিশৃংখলা এবং মানুষের মাঝে অসহিষ্ণুতার বহিঃপ্রকাশ। মানুষ এই খুনি সরকারের শাসন দেখতে চায় না। তারা বলেন, এ সরকার যতদিন ক্ষমতায় থাকবে দেশের মানুষ তাদের প্রতি অনাস্থা এভাবেই প্রকাশ করবে। তাই পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণের বাইরে চলে যাওয়ার আগেই ক্ষমতা ছেড়ে দিয়ে নিরপেক্ষ নির্বাচনের ব্যবস্থা করুন।
কুমিল্লা অফিস : কেন্দ্রীয় কর্মসূচির অংশ হিসেবে গতকাল বুধবার নগরীতে জামায়াত বিক্ষোভ মিছিল করে। বিক্ষোভ মিছিলে নেতৃত্ব দেন মহানগরী জামায়াতের সহকারী সেক্রেটারি মুঃ মাহবুবুর রহমান। বিক্ষোভ মিছিলে অংশগ্রহণ করেন ছাত্রশিবিরের কেন্দ্রীয় কার্যকরী পরিষদ সদস্য মোঃ শাহ আলম, কুমিল্লা মহানগরী শিবিরের নবনির্বাচিত সভাপতি কামাল হোসাইন, নগর সেক্রেটারি ডা. মোজাম্মেল হক, জামায়যাত নেতা কাজী নজীর আহম্মেদ, মোহাম্মদ হোসাইন, শিবির নেতা জসিম উদ্দিনসহ আরো অনেকে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই বিভাগের আরও খবর
  • © ২০১৪ - ২০২০ সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত | কক্সবাজার আলো .কম
Site Customized By NewsTech.Com