এক্সক্লুসিভকক্সবাজারলীড

ঘূর্ণিঝড় ‘বুলবুল’ মোকাবিলায় কক্সবাজারে সর্বাত্মক প্রস্তুতি প্রশাসনের

76views

ছৈয়দ আলম, কক্সবাজার আলো :
ঘূর্ণিঝড় ‘বুলবুল’ মোকাবিলায় জরুরি প্রস্তুতি সভা করেছে কক্সবাজার জেলা প্রশাসন। শুক্রবার (৮ নভেম্বর) বিকেল ৪টায় কক্সবাজার জেলা প্রশাসন কার্যালয়ের সম্মেলন কক্ষে জেলা দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা কমিটি এ সভা আহ্বান করে। জেলা প্রশাসক মো: কামাল হোসেন এর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত সভায় উপস্থিত ছিলেন-অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (রাজস্ব) আশরাফুল আফসার, এডিএম মো: শাহজাহান আলী, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার ইকবাল হোসাইন।
এছাড়াও আবহাওয়া অধিদপ্তরের প্রতিনিধি, সেনাবাহিনী, আনসার, রেড ক্রিসেন্ট, পানি উন্নয়ন বোর্ড, বিদ্যুৎ উন্নয়ন বোর্ড, ফায়ার সার্ভিসসহ সরকারি-বেসরকারি বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানের প্রতিনিধিরা উপস্থিত ছিলেন।
সভায় ধেয়ে আসা ঘূর্ণিঝড় ‘বুলবুল’ মোকাবিলার জন্য প্রয়োজনীয় করণীয় সম্পর্কে আলোচনা এবং দুর্যোগ মোকাবিলায় সংশ্লিষ্ট সবাইকে সজাগ থাকতে আহ্বান জানানো হয়। সিদ্ধান্তের মধ্যে রয়েছে-জেলার সকল সাইক্লোন সেন্টার সমূহ খোলা রাখার জন্য উপজেলা নির্বাহী অফিসারদের নির্দেশনা প্রদান করা হয়েছে। মহেশখালী ও কুতুবদিয়াসহ অন্যান্য উপজেলায় যোগাযোগ ব্যবস্থা নিশ্চিত করতে পর্যাপ্ত যানবাহনসহ নৌকা ও স্পীডবোট প্রস্তুত রাখা হয়েছে। পর্যাপ্ত শুকনা খাবার, নগদ অর্থসাহায্য ও চাল এর ব্যবস্থা করা হয়েছে।
প্রতি ইউনিয়ন ও ওয়ার্ড এ চেয়ারম্যান ও মেম্বারের নেতৃত্বে সিপিপি ভলান্টিয়ারসহ অন্যান্যদের নিয়ে ভলান্টিয়ার ও রেস্কিউ টিম গঠনের জন্য উপজেলা নির্বাহী অফিসারদের নির্দেশনা প্রদান করা হয়েছে।
৮ উপজেলার ৫৩৮ টি সাইক্লোন শেল্টার এবং প্রাথমিক ও মাধ্যমিক বিদ্যালয়গুলো আশ্রয়কেন্দ্র হিসেবে ব্যবহারের জন্য প্রস্তুত রাখা হয়েছে। বাতিল করা হয়েছে সরকারী ছুটি।
কমিউনিটি ক্লিনিক, উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স, এ্যাম্বুলেন্স, ইমার্জেন্সি মেডিকেল টিম, জরুরি ওষুধ ও পানি বিশুদ্ধকরণ ট্যাবলেট প্রস্তুত রাখা হয়েছে। রাস্তাঘাটে গাছপালা প্রতিবন্ধকতা সৃষ্টি করলে তা অপসারণের প্রস্তুতি রাখা হয়েছে।
জাতিসংঘ, এনজিও, আইএনজিও এবং সংশ্লিষ্ট সরকারি দপ্তরসমুহের সাহায্যে টেকনাফ ও উখিয়ার ক্যাম্পে আশ্রয় নেয়া মিয়ানমার নাগরিকদের দুর্যোগকালীন নিরাপত্তা নিশ্চিত করা হয়েছে।
জেলা প্রশাসক মো: কামাল হোসেন জানান, যেকোন পরিস্থিতি মোকাবিলায় জেলা প্রশাসন প্রস্তুত রয়েছে। ঝুঁকিপূর্ণ পরিস্থিতিতে উপকূলের লোকজনকে নিরাপদে আশ্রয়কেন্দ্রে সরিয়ে আনা এবং খাবারের ব্যবস্থা, প্রাথমিক চিকিৎসা সেবা প্রদানসহ সব পরিস্থিতি মোকাবিলায় জেলা প্রশাসনের প্রস্তুতির কথা জানান।
একইসঙ্গে উপকূলে বসবাসকারী লোকজনকে সতর্ক থাকতে নির্দেশনা এবং সাগরে থাকা মাছ ধরার নৌকাকে উপকূলে ফিরিয়ে আনতে উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে। সেন্টমার্টিনে আটকে পড়া পর্যটকদের খবরাখবর রাখা হচ্ছে। তাদের সবধরনের সহায়তা করার ঘোষনা দেন তিনি।
তিনি আরও বলেন, আবহাওয়ার পূর্বাভাস মেনে ঘূর্ণিঝড় বুলবুল মোকাবিলায় কক্সবাজার জেলা প্রশাসন জরুরি যোগাযোগের জন্য কন্ট্রোল রুম খোলা হয়েছে।
উল্লেখ্য-আবহাওয়া অধিদপ্তরের তথ্যমতে কক্সবাজারে এ রিপোর্ট লেখাকালিন ৪নং সতর্ক সংকেত অব্যাহত রয়েছে।

Leave a Response