1. litonsaikat@gmail.com : neelsaikat :
  2. shahjahanauh@gmail.com : কক্সবাজার আলো : কক্সবাজার আলো
  3. syedalamtek@gmail.com : syedalam :

চরম ভোগান্তির শিকার প্রবাসীরা : দুবাইয়ে এমআরপি পাসপোর্ট প্রক্রিয়া কাজ বন্ধ

  • আপডেটের সময় : সোমবার, ৩ আগস্ট, ২০১৫
  • ২৭ দেখা হয়েছে

আরিফ সিকদার বাপ্পী, সংযুক্ত আরব আমিরাত :
ঢাকা ও দুবাইয়ে সার্ভার জটিলতায় রবিবার থেকে সংযুক্ত আরব আমিরাতের দুবাই বাংলাদেশ কনস্যুলেটে এমআরপি পাসপোটের্র ফিঙ্গারপ্রিন্ট ও ছবিগ্রহণ প্রক্রিয়া কাজ বন্ধ রয়েছে। এতে দুবাই কনস্যুলেটে দূর দুরান্ত থেকে ফিঙ্গারপ্রিন্ট ও ছবি তুলতে আসা সাধারণ প্রবাসীদের ভোগান্তির শেষ নেই। এ প্রক্রিয়া বন্ধের আগে প্রতিদিন চার-পাঁচশ’ এমআরপি পাসপোটের্র কাজ করা হতো কনস্যুলেটে। সে হিসেবে যদি দশদিনও কাজ বন্ধ থাকে, তবে প্রায় চার-পাঁচ হাজার প্রবাসী বাংলাদেশিকে পোহাতে হবে চরম দুর্ভোগ। কার্যদিবস থাকা সত্ত্বেও সাধারণ প্রবাসীরা একদিনের ছুটি নিয়ে কর্মস্থল থেকে কনস্যুলেটে এসে শুনতে হচ্ছে ‘সার্ভার সমস্যা, প্রিঙ্গারপ্রিন্ট নেয়া হবে না’।
এর বিপরীতে ক্ষোভ প্রকাশ করে কনস্যুলেটে আগত প্রবাসীরা বলছেন, ‘এটা দেশ নয়, বিদেশ! যখন খুশী চাইলে আসতে পারি না। একদিন কাজ না করলে, সেদিনের হাজিরা কাটা যায়। সময় দিয়ে, সময় মতো কাজ না হলে বার বার এখানে আসা সম্ভব নয়। আর কোম্পানিও আমাদের এতো বেশি ছুটি দেয় না ।’
ছেলের পাসপোর্ট বানাতে কনস্যুলেটে আগত সফটওয়্যার ইঞ্জিনিয়ার মর্তুজা তানভীর আহমেদ বলেন, ‘আমার ছেলে তাহমীদের পাসপোটের্র মেয়াদ শেষ হবে আগামী ৫ সেপ্টম্বর, আর ভিসার মেয়াদ শেষ হবে ১৭ সেপ্টম্বর। কিন্তু কনস্যুলেটে এসেই দেখি কাজ বন্ধ রয়েছে। কনস্যুলেটের দেয়া টোল ফ্রি নম্বরে কল দিয়ে পরবর্তীতে জানতে পারি কাজ শুরু হতে আরো ১০-১৫ দিন লেগে যেতে পারে। এর ভিতরে পাসপোটের্র কাজ না সারতে পারলে মহা মুশকিলে পড়ে যাবো।’
দুবাই কনস্যুলেটের কনসাল জেনারেল মাসুদুর রহমান বাংলাদেশ প্রতিদিন-কে জানান, হার্ডডিস্কে সমস্যা দেখা দেয়ায় আপাতত ফিঙ্গার প্রিন্ট ও ছবি তোলার কাজ বন্ধ রয়েছে। তবে আউটসোর্স গুলোতে কাজ চলছে। এ সমস্যা সমাধানের জন্য শিগগিরই ঢাকা থেকে লোক আসবে। আশা করছি আগামী রবিবারের মধ্যে পুনরায় কাজ শুরু হবে।
এদিকে, এমআরপি পাসপোর্টধারী প্রবাসীরা বলছেন,যাদের হাতে লেখা পাসপোর্ট আছে তাদের এমআরপি পাসপোর্ট করতে সময় লাগে ৫০ দিন। কিন্তু যাদের পাসপোর্ট বর্তমানে এমআরপি, তাদের ক্ষেত্রে নবায়নে সময় লাগবে ৬০ থেকে ৯০ দিন! মানেটা দাঁড়াচ্ছে এমআরপি পাসপোর্ট থাকাটাই ঝামেলার। যেহেতু এমআরপি পাসপোটের্র তথ্য সার্ভারে দেয়া থাকে, তাই নবায়নটাও দ্রুত করার দাবি এমআরপি ধারীদের। তারা সরকারের দৃষ্টি আকর্ষণ করে বলেন, এমআরপি পাসপোটের্র মেয়াদ ১০ বছর করা হলে অথবা এর মেয়াদ অন্তত আরও ২ বছর বাড়ানো গেলে পাসপোর্ট বই সঙ্কট মোকাবেলার পাশাপাশি আগামী নভেম্বরের যে ধাক্কা আসবে সেটিও সামলাতে পারবে সরকার। তাই অতি শীঘ্রই সরকারি আদেশের মাধ্যমে বর্তমান এমআরপি পাসপোর্টগুলোর মেয়াদ বাড়ানো দরকার।
অন্যদিকে, চলতি বছরের ২৪শে নভেম্বরের আগে আমিরাত প্রবাসী সকল বাংলাদেশিদের মেশিন রিডেবল পাসপোর্ট সংগ্রহ করার তাগাদা দিয়েছেন দূতাবাস ও দুবাই কনস্যুলেট। স্থানীয় একটি পত্রিকাকে দেয়া সাক্ষাত্কারে দূতাবাসের রাষ্ট্রদূত মোহাম্মদ ইমরান জানান, ‘এখানো আমিরাতে প্রায় দেড়-দুই লাখ প্রবাসী বাংলাদেশির এমআরপি করার বাকি রয়েছে।’ লোকবল সংকট ও দফায় দফায় সার্ভার জটিলতায় পড়লে আগামী ২৪ শে নভেম্বরের মধ্যে সকল প্রবাসীদের এমআরপি পাসপোর্ট প্রদানে কতটা সক্ষম হবে দূতাবাস বা কনস্যুলেট, সেটিই এখন বড় প্রশ্ন হয়ে দাঁড়ায়।

এই বিভাগের আরও খবর
  • © ২০১৪ - ২০২০ সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত | কক্সবাজার আলো .কম
Site Customized By NewsTech.Com