1. litonsaikat@gmail.com : neelsaikat :
  2. shahjahanauh@gmail.com : কক্সবাজার আলো : কক্সবাজার আলো
  3. syedalamtek@gmail.com : syedalam :

চৌফলদন্ডী-খুরুস্কুল-কক্সবাজার সংযোগ সেতুটি পর্যটকদের হাতছানি দিয়ে ডাকছে

  • আপডেটের সময় : মঙ্গলবার, ২২ সেপ্টেম্বর, ২০১৫
  • ১২ দেখা হয়েছে

এম আবু হেনা সাগর, ঈদগাঁও :
কক্সবাজার সদর উপজেলার চৌফলদন্ডী-খুরুস্কুল সংযোগ সেতুটি পর্যটনের অপার সম্ভাবনা এ সেতু পর্যটকদের হাতছানি দিয়ে ডাকছে। এ সেতুর দু‘প্রান্তে বিকেল হলে বসে গ্রাম্য এবং দূর-দূরান্ত থেকে আসা পর্যটকদের মিলন মেলা। বৃহত্তর ঈদগাঁর জনগোষ্টি সহ দেশের বিভিন্ন প্রান্ত থেকে ছুটে আসা পর্যটকরা সেতুর উপর বসে উপভোগ করেন দিনের সূর্যাস্থ। পাখির কলকাকলীতে ভরপুর প্যারাবন, সারি সারি ফিশিং ট্রলার, জেলে মাঝি মাল্লার কুলাহল যেন নিত্যনৈমত্তিক ব্যাপার। দূর থেকে মহেশখালীর আদিনাথ, জেটি ঘাট দেখার সুযোগ হয় এ সেতুতে বসে। তবে পর্যটকদের ভয় নিরাপত্তার অভাব। তারা সন্ধ্যা নাগাদ সেতু এলাকায় নিরাপত্তা নিশ্চিত করতে স্থানীয় চৌফলদন্ডীর পুলিশ ফাঁড়ির টহল ব্যবস্থা জোরদারের দাবী জানান। প্রাপ্ত তথ্য মতে, এ সেতুটি প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা সেতুটি উদ্ভোধন করেন। উদ্ভোধনের পর থেকে ঈদগাঁও’র সংখ্যা গরিষ্ট লোকজন এ সেতু দিয়ে কক্সবাজারে যাতায়াত করেন। ঈদগাঁও বাস ষ্টেশন থেকে কক্সবাজার শহরে যেতে প্রায় আধঘন্টারও বেশী সময় লাগলেও চৌফলদন্ডি খুরুস্কুল সড়ক দিয়ে যেতে সময় লাগে মাত্র আধা ঘন্টা। ভাড়াও তুলনামূলক ভাবে কম। তবে লক্কর ঝক্কর মার্কা গাড়ির কারনে সেবার মান তেমন ভাল নেই। সড়কের বেহাল দশা হলেও কমতি নেই যাত্রীদের। দম ফেলার সুযোগ পাচ্ছে না এ সড়কে চলাচলরত গাড়ি চালকরা। যাত্রীদের মতে, এ সড়কে সন্ধ্যা নাগাদ পুলিশি টহল থাকলে নিরাপত্তা নিশ্চিত হবে। কয়েকদিন পূর্বে গ্রাম্য কয়েক বন্ধু পড়ন্ত বিকেলে সেতুর চারপাশের সৌন্দর্য্য উপভোগ করতে আসা ক‘জনের সাথে এ প্রতিনিধি কথা হলে- এ সেতু দেখতে আসা পর্যটকদের সুবিধার্থে তারা পুিলশী টহল জোরদারের দাবী জানান। অপরদিকে ঈদগাঁও ছাত্রলীগ সভাপতির  মতে, এ সেতু বৃহত্তর ঈদগাঁও বাসির জন্য যোগাযোগের বিরাট ভূমিকা পালন করছে। তাছাড়া ছেলে মেয়ে সহ আত্মীয় স্বজনদের নিয়ে লোকজন কিছুটা সময় বিনোদনের জন্য এ সেতুতে কাটা যায়। ঈদগাঁও বাসস্টেশন এলাকার কয়েক ব্যক্তির মতে, এ সেতু ঈদগাঁও বাসির জন্য জননেত্রী শেখ হাসিনার একটি ছোট্ট উপহার। সেতুর কারনে কক্সবাজার যোগাযোগ সহজ হয়েছে। অন্যদিকে সেতুর পাশে রয়েছে চৌফলদন্ডী মাছ ঘাট। দেশি বিদেশি পর্যটকদের সোনাদিয়া- ছিরাদিয়া- কাউয়ারদিয়া, মহেশখালী দেখার অপুর্ব সুযোগ সৃষ্টি করছে এ সেতু। ঈদগাঁও লেখক সোসাইটির সভাপতি এস.এম. রুবেল উদ্দীন ও সাধারণ সম্পাদক আবু নাছির জানান, চৌফলদন্ডী সেতুতে বৈকালে বেড়ানো সুখকর ব্যাপার। সেতুর উপর দিয়ে হেটে এ প্রান্ত থেকে ও প্রান্ত যাওয়ার মজাই আলাদা।

এই বিভাগের আরও খবর
  • © ২০১৪ - ২০২০ সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত | কক্সবাজার আলো .কম
Site Customized By NewsTech.Com