1. litonsaikat@gmail.com : neelsaikat :
  2. shahjahanauh@gmail.com : কক্সবাজার আলো : কক্সবাজার আলো
  3. syedalamtek@gmail.com : syedalam :

জাতির অধিকাংশ মানুষ নিরক্ষর রেখে কখনো দেশকে এগিয়ে নেয়া সম্ভব হবে না -সালাউদ্দিন মাহমুদ

  • আপডেটের সময় : মঙ্গলবার, ১৫ সেপ্টেম্বর, ২০১৫
  • ১০ দেখা হয়েছে

ইসলামী ছাত্রশিবির চট্টগ্রাম মহানগরী উত্তর সেক্রেটারী সালাউদ্দিন মাহমুদ বলেন আমাদের দেশে বিদ্যমান জনগোষ্ঠির এক তৃতীয়াংশই একেবারে অক্ষর জ্ঞানহীন। তারা পড়া তো দূরের কথা কোন ভাষার একটি বর্ণ ও চিনে না। সরকার ক্ষমতা গ্রহণের পর দেশের সামগ্রিক উন্নয়নে যে স্বপ্ন পূরনের কথা দেশবাসীকে দেখাচ্ছে তা এ বিশাল জনগোষ্ঠীকে বাদ দিয়ে কখনো সম্ভব নয়। প্রতি বছর রাষ্ট্রীয় ভাবে আন্তর্জাতিক সাক্ষরতা দিবস পালন করলেও এদের নিয়ে সরকার কিংবা দলের কোন রকম পরিকল্পনা নেই। সবাই শুধু স্বপ্ন দেখাতে ব্যস্ত থাকেন। এ নিরক্ষর জনগোষ্ঠীর আর্থিক সংকট অত্যাধিক হবার ফলে ভবিষ্যৎ প্রজন্ম অতি ছোট কাল থেকেই শিক্ষার আলো থেকে বঞ্চিত হয়ে কর্মের মাধ্যমে তাদের স্বপ্ন বুনতে হচ্ছে। যে বয়সে শিশুদের বিদ্যালয়ে যাবার কথা সে শিশুকে তাদের বিদ্যা অর্জন বাদ দিয়ে পরিবারের অর্থনৈতিক দিক বিবেচনায় কাজে জড়িয়ে পরিবারের হাল ধরতে হচ্ছে। এরই প্রতিফল হিসেবে তারা অদক্ষ জনশক্তিতে পরিণত হচ্ছে। এসব জনশক্তি শিক্ষার অভাবে পশ্চাৎপদ থেকে যাচ্ছে। নিরক্ষরতার অভিশাপের বোঝা এ সব মানুষ দেশকে এগিয়ে যাওয়ার পথে অন্তরায় হয়ে দাঁড়িয়েছে।  নিরক্ষরতার এ কলংক  থেকে জাতিকে মুক্ত করতে হলে সবাইকে ঐক্যবদ্ধ ভূমিকা পালন করতে হবে। কেননা জাতির অধিকাংশ মানুষ নিরক্ষর রেখে কাংখিত উন্নয়ন সাধনে কখনো দেশকে এগিয়ে নেয়া সম্ভব হবে না। সম্মিলিত প্রচেষ্টার মাধ্যমেই নিরক্ষরতার অভিশাপ থেকে জাতিকে মুক্ত করা সম্ভব হবে। চট্টগ্রাম মহানগরী উত্তর শিবিরের উদ্যোগে নগরীর বাকলিয়া, চান্দগাঁও থানাধীন বিভিন্ন এলাকায় পৃথক আন্তর্জাতিক সাক্ষরতা দিবস উদযাপন উপলক্ষে নিরক্ষর ব্যক্তি ও  বস্তিবাসী শিশুদের মাঝে সাক্ষরতার জ্ঞান প্রদান ও শিক্ষা উপকরণ বিতরণ অনূষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি আজ (১৫.০৯.১৫) এসব কথা বলেন। এ সব অনুষ্ঠানে অন্যান্যদের মধ্যে আরো বক্তব্য রাখেন শিবির নেতা তৌহিদুল ইসলাম, নাছির উদ্দিন, জামাল উদ্দিন, ফেরদাউস রানা, আমান উল্লাহ,এম.হোসাইন, আবু যোবায়ের প্রমুখ। সমাবেশে বক্তারা সমাজের সকল মানুষের জন্য শিক্ষার সমান সুযোগ নিশ্চিত করে তাদের জ্ঞান অর্জনে সার্বিক সহযোগিতা করার জন্য সবার প্রতি আহবান জানান। অনুষ্ঠানে উপস্থিত শিশুদের মাঝে বই, খাতা, কলম, পেন্সিলসহ বিভিন্ন শিক্ষা উপকরন প্রদান ও বাংলা বর্ণমালা পরিচয় করিয়ে দেয়া হয়।

Please Share This Post in Your Social Media

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই বিভাগের আরও খবর
  • © ২০১৪ - ২০২০ সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত | কক্সবাজার আলো .কম
Site Customized By NewsTech.Com