জেটিঘাটের চায়ের দোকানে সন্তান প্রসব

নিজস্ব প্রতিবেদক :
শাপলা দত্ত মহেশখালী উপজেলার ঠাকুরতলা গ্রামের কাজল দত্তের স্ত্রী। মধ্যরাত থেকে প্রসব বেদনায় ভুগছিলেন এই নারী। দ্বীপ মহেশখালী থেকে সহজে কক্সবাজারের সাথে যোগাযোগের একমাত্র পথ সাগরপাড়ি দেয়া।
কিন্তু সে পথ পাড়ি দিতে যে বাহন প্রয়োজন তা পাইনি এই নারীর স্বজনরা। মধ্যরাত থেকে হয়ে গেছে ভোর। সাগর ও বাকখাঁলী নদীর মোহনা পাড়ি দিয়ে আসে কক্সবাজার ৬নং জেটি ঘাটে। তীরে আসার সাথে সাথে বেড়ে যায় প্রসব বেদনা। আর তাই সোমবার (১০ মার্চ) সকালে জেটিঘাটের একটি চায়ের দোকানে শাপলা দত্তের কোলে আসে একটি কন্যা সন্তান। পারিবারিক সুত্রে জানাযায়, মধ্যরাতে প্রসব বেদনা শুরু হওয়ায় শাপলাকে মহেশখালী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়। এরপর সেখান থেকে কক্সবাজার আনার কথা বলে চিকিৎসক। কিন্তু যোগাযোগ ব্যবস্থার কারণে চায়ের দোকানেই সন্তান প্রসব করতে হয়েছে শাপলাকে।
প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, হঠাৎ স্পীড বোট থেকে এক নারীকে উঠানো হয়। মোহনা থেকে একটি দোকানে আনার পর সেখানেই তার সন্তান প্রসব করা হয়। পরে প্রাথমিক ওষুধ নিয়ে সকাল সাড়ে ১০টায় মহেশখালীস্থ বাড়িতে নিয়ে যাওয়া হয়।
এবিষয়ে মহেশখালী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের আবাসিক মেডিকেল অফিসার ডা. মাহফুজুল হক শাপলা দত্ত নামে কোন রোগীকে রেফার করা হয়নি বলে দাবি করেন।
তবে অভিযোগ উঠেছে মহেশখালী জেটি ঘাটে রাতে রোগিদের জন্য স্পিটবোট না থাকার কারণে এই দুঃখজনক ঘটনাটি ঘটেছে।

উপদেষ্টা সম্পাদক : হাসানুর রশীদ
সম্পাদক ও প্রকাশক : মুহাম্মদ শাহজাহান

নির্বাহী সম্পাদক : ছৈয়দ আলম

যোগাযোগ : ইয়াছির ভিলা, ২য় তলা শহিদ সরণী, কক্সবাজার। মোবাইল নং : ০১৮১৯-০৩৬৪৬০

গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের তথ্য অধিদপ্তরে নিবন্ধনের জন্য আবেদিত

Email:coxsbazaralo@gmail.com