1. litonsaikat@gmail.com : neelsaikat :
  2. shahjahanauh@gmail.com : কক্সবাজার আলো : কক্সবাজার আলো
  3. syedalamtek@gmail.com : syedalam :

জেলায় ভূয়া নামে নকল হচ্ছে “ফুলকলি” রাজস্ব হারাচ্ছে সরকার

  • আপডেটের সময় : রবিবার, ৬ সেপ্টেম্বর, ২০১৫
  • ২২ দেখা হয়েছে

এ.এম হোবাইব সজীব :
কক্সবাজার জেলা ব্যাপি সুনাম খ্যাত আসল ফুলকলির শাখা বলে প্রচারনা চালিয়ে ফুলের কলি, নিউ ফুল কলি এবং ফুল কলি জুসবার এ ভূয়া নামে নকল হচ্ছে “ফুলকলি”। নকল প্রতিষ্টান গুলো বছরের পর বছর সরকারের টেড্র লাইন্সেস ছাড়া অবৈধ ভাবে ব্যবসা করে একদিকে সরকারের রাজস্ব ফাঁিক দিচ্ছে অন্য দিকে আসল ফুলকলি অনুকরনে নি¤œ মানের খাদ্যদ্রব্য তৈরী করে সাধারন মানুষকে ঠকাচ্ছে। এ ব্যাপারে সংশ্লিষ্ট প্রশাসনের হস্তেক্ষেপ প্রয়োজন। বিভিন্ন সময় কক্সবাজারের আনাছে-কানাচে তৎপর থাকা অসাধু লোক জালিয়াতি করে আসল ফুল কলির নাম ব্যবহার করে অনুমোদনহীন প্রতিষ্টান খুললে প্রশাসনের তুপোর মুখে পড়ে তা বন্ধ হয়ে যায়। একই কায়দায় ফুলকলি’র নাম ও লগো হুবহু জালিয়াতি করে ফুল কলি জুসবার নামে একটি প্রতিষ্টান চকরিয়া-পেকুয়া’য় দীর্ঘদিন ধরে প্রতারনা করে সাধারন মানুষকে বিভ্রান্ত করে যাচ্ছিল।
সুস্থ জীবনের জন্য খাঁটি খাদ্যের নিশ্চয়তা শ্লোগান নিয়ে ফুল কলি মিষ্টি জগতে একদাপ এগিয়ে রয়েছে। দেশের বিভিন্ন এলাকায় ফুল কলির কদর রয়েছে ভূরি ভূরি। ইতি মধ্যে অভিযোগ পাওয়ার পর সম্প্রতি পেকুয়া উপজেলা নিবার্হী অফিসার মো: মারুফ রশিদ খান এর নেতৃত্বে ভ্রাম্যমান আদালত পরিচালনা করে কোন কাগজ পত্র দেখাতে না পারায় পেকুয়ার চৌমুহনী ফুল কলি জুসবার নামক একটি দোকানের সাইন বোর্ড খুলে ফেলা হয়। একই কায়দায় চকরিয়ার বরইতলী রাস্তার মাথা ভূয়া ফুলকলি জুসবারের সাইন বোর্ড খুলে ফেলা হয়েছে। সাইন বোর্ড খুলে ফেলার পর থেকে তাদের ব্যবসায় এখন ধ্বশ নেমেছে বলে জানা গেছে। ইতিমধ্যে সাইনবোর্ড খুলে ফেলের পর থেকে আসল ফুল কলির হুবহু লগো আকারে সাইনবোর্ড ফের টাঙ্গাতে বিভিন্ন দালাল চক্রের মাধ্যমে প্রতারক রুবেল প্রশাসনের বিভিন্ন দপ্তরে দর্ণা দিয়েও ব্যর্থ হয়েছেন বলে জানা গেছে। আসল ফুল কলি চট্টগ্রাম প্রধান কার্যালয়ের পক্ষ থেকে পত্রিকায় সতর্কীরণ বিজ্ঞপ্তি’র মাধ্যমে ক্রেতা সাধারণকে সর্তক করায় এবং গণমাধ্যমে অনুসন্ধানী সংবাদ প্রকাশিত হওয়ার পর থেকে জনৈক রুবেল নামে প্রতারক নড়ে চড়ে বসেছে।
স্থানিয় সূত্রে জানা গেছে, সাধারণ মানুষ আসল ফুল কলি মনে করে বিভিন্ন সময় ফুল কলি জুসবারের প্রতিষ্টানের দিকে ধাবিত হয়ে মিষ্টি রস মালাই মিষ্টি জগতের ইত্যাদি ক্রয় করলেও ভূয়া দোকানের সাইন বোর্ড খুলে ফেলার পর থেকে তারা সেখান থেকে এখন মুখ ফিরিয়ে নিচ্ছে। ফলে আগের তুলনায় তাদের দোকানের বিক্রি অনেকংশ কমে গেছে বলে অনুসন্ধানে জানা গেছে। ফুল কলি জুসবার ভূয়া সাইনবোর্ড ব্যবহার করে আসল ফুল কলির নাম বিক্রি করে ব্যবসা করেছে বলে সাধারণ লোকের মুখে মুখে হওয়ায় তারা এখন আগের তুলনায় ব্যবসায় সুবিধা করতে পারছেনা এবং বিক্রি আগের তুলনায় কমে গেছে বলে জানা গেছে।
অনুসন্ধানে জানা যায়, ফুলকলি জুসবার নামে প্রতিষ্টান চকরিয়ার বরইতলী রাস্তার মাথা ১টি, পেকুয়ার চৌমুহনী ১টি দোকান খুলেছে রুবেল নামক এক যুবক। তিনি পেকুয়ার জামাল হোসাইনের পুত্র বলে জানা গেছে। সে আসল ফুল কলির বাঁকলিয়া চট্টগ্রাম অবস্থিত প্রধান কার্যালয়ে কিছু দিন চাকরী করার সুবাধে চাকরীচ্চুত হয়ে তাদের অনুকরনে আসল ফুলকলির নাম ও লগো দিয়ে ফুুল কলি জুসবার নামে সাইনবোর্ড টাঙ্গিয়ে দোকান খোলে দিনের পর দিন সাধারণ মানুষকে ঠকিয়ে প্রতারনা করে যাচ্ছিল। ক্রেতা সাধারণ জানান, একই সাইন বোর্ড একই লগো দোকানের একই ডিজাইন হওয়াতে তারা কিছু বুঝে উঠতে না পারায় মিষ্টি রসমালাই, অনুষ্টানের কেক ইত্যাদি ক্রয় করতে তারা ঠকছে। এখন ফুল কলি জুসবারের সাইন বোর্ড খুলে ফেলেয় ক্রেতা সাধারণের মাঝে স্বস্তি ফিরে এসেছে। সাংবাদিক সালাম কাকলী জানান, চকরিয়া বরইতলী নতুন রাস্তার মাথা ফুল কলি জুসবারে দিনে যে খানে দশ হাজার টাকা চেয়ে বেশি বিক্রি হত এখন পাঁচ হাজার টাকা হয়কিনা সন্ধ্যাহ আছে বলে অভিমত ব্যক্ত করেন। এ বিষয়ে ফুল কলি চট্টগ্রাম প্রধান কার্যালয়ের জি.এম, এম.এ সবুর আমাদের কক্সবাজারকে বলেন , ফুল কলি জুসবার সরকারের টেড্র লাইন্সেস ছাড়া অবৈধ ভাবে ব্যবসা করে একদিকে সরকারের রাজস্ব ফাঁিক দিচ্ছে অন্য দিকে আসল ফুলকলি অনুকরনে নি¤œ মানের খাদ্যদ্রব্য তৈরী করে সাধারন মানুষকে ঠকাচ্ছে, আর তাই আসল ফুল কলি চিনতে ভূয়া ফুল কলি জুসবার থেকে সাধারণ জনগণকে সর্তক থাকার আহবান জানান।
পেকুয়া উপজেলা নিবার্হী অফিসার মো: মারুফ রশিদ খানের কাছে সত্যতা ব্যাপারে জানতে চাওয়া হলে তিনি বলেন ফুল কলি জুসবারের স্বত্বধিকারী“র”কাছে কোন বৈধ কাগজ পত্র না থাকায় ভ্রাম্যমান আদালত পরিচালনা করে সাইনবোর্ড নির্দেশ অনুসারে নামিয়ে পালানো হয়েছে। পরবর্তীতে তারা কাগজ পত্র দেখাতে না পারলে সাইন বোর্ড টাঙ্গালে  এ প্রতিষ্টানের বিরুদ্ধে আইনানুগ  ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

Please Share This Post in Your Social Media

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই বিভাগের আরও খবর
  • © ২০১৪ - ২০২০ সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত | কক্সবাজার আলো .কম
Site Customized By NewsTech.Com