1. litonsaikat@gmail.com : neelsaikat :
  2. joaopinto@carloscostasilva.com : randaldymock :
  3. makaylabeaurepaire@1secmail.com : scotty7124 :
  4. shahjahanauh@gmail.com : কক্সবাজার আলো : কক্সবাজার আলো
  5. syedalamtek@gmail.com : syedalam :
  6. bblythe20172018@mail.ru : traceyhowes586 :

টানা বৃষ্টিতে মহেশখালীর-কালারমারছড়া যাতায়াত সড়ক আরও বেহাল!

  • আপডেটের সময় : বৃহস্পতিবার, ২৩ জুলাই, ২০১৫
  • ১৭ দেখা হয়েছে

এ.এম হোবাইব সজীব :
টানা তিন দিনের বৃষ্টিতে আরও বেহাল হয়েছে দ্বীপ উপজেলা মহেশখালীর কালারমার ইউনিয়নের প্রধান সড়ক । অনেক সড়কের পিচ উঠে গেছে। কোথাও কোথাও সৃষ্টি হয়েছে ছোট-বড় অসংখ্য গর্তের। এতে ব্যাহত হচ্ছে যান চলাচল। দুভোর্গ পোহাতে হচ্ছে দ্বীপবাসীকে। গত শুক্রবার থেকে রোববার পর্যন্ত টানা বৃষ্টি হয়। আজ বৃহস্পতিবার মাঝে মধ্যে গুড়ি গুড়ি বৃষ্টিও হচ্ছে। এর আগে গত জুন মাসের শেষের দিকেও টানা বৃষ্টি হয়েছিল। টমটম গাড়ীর ড্রাইবার দেলোয়ার জানান, মহেশখালী উপজেলার সদর থেকে হোয়ানক ইউনিয়ন পর্যন্ত সুন্দরভাবে সংস্কার কাজ হয়েছে। কিন্তু কালারমারছড়া ইউনিয়নের  মহাসড়কের যাতায়াত সড়কটিতে অসংখ্য খানা খন্দক আর সংকীর্ণতায় ভরপুর হয়ে উঠেছে। যাতে করে পথচারী ও যানবাহন চলাচলে দারুণ দুর্ভোগ পোহাচ্ছে। নেই কোন বড় দু’টি গাড়ী ক্রসিংয়ের জায়গা। এ সড়কে নেই কোন যানবাহন ক্রসিংয়ের পর্যাপ্ত জায়গা আর যা আছে তাও নানা স্থানে খানা খন্দকে ভরপুর।
স্থানিয় লোকজনের সাথে কথা বলে জানা গেছে, ভয় আর নানা আতঙ্ক নিয়ে দিবারাত্রি যানবাহনের চালকরা গাড়ী চালিয়ে যাচ্ছে কোন রকম। সন্ধ্য নামলে উত্তরনলবিলা-চালিয়াতলী সড়কে ডাকাতের ভয়। নেই কোন এ বিকল্প সড়কের সংস্কারের উদ্যোগ। যার ফলে একের পর এক দুর্ঘটনা বৃদ্ধি পাচ্ছে। রাস্তাটি উন্নত করে সংস্কার করা হলে বিশাল এলাকার অসহায় লোকজনের মহেশখালী সদরে আসা-যাওয়া আরো সহজতর হত। এখন আধা ঘন্টার পথ ঘন্টারও বেশি সময় পেরিয়ে যায়। রোগী হলে তো অবস্থা আরো বেগতিক হয়ে পড়ে। এ সড়কে রাত্রি কালীন সময়ে যানবাহন চলাচল মহা কঠিন ব্যাপার হয়ে দাড়িয়েছে। যার কারন পুরো সড়কের যত্রতত্র স্থানে রয়েছে খানা খন্দক আর রাস্তার সংকীর্ণতা। যাতে করে জীবনের ঝুঁকি নিয়ে গাড়ী চালানোর সময় দুর্ঘটনায় পতিত হওয়ার আশংকা প্রকাশ করেন কলেজ পড়–য়া ছাত্র হান্নান সহ অনেকে। হ-য-ব-র-ল অবস্থা হওয়ায় যানবাহন চলাচলে দারুন দুর্ভোগ পোহাতে হচ্ছে চালকদের। অন্যদিকে ভোগান্তিতে পড়তে হচ্ছে যাত্রী সাধারণকে। সড়কে চলাচলরত একাধিক গাড়ীর চালক আর পথচারীদের মতে, অতিসত্ত্বর যদি উত্তর মহেশখালীর কালারমারছড়া ইউনিয়নের নোনাছড়ি থেকে চালিয়াতলী  পর্যন্ত যাতায়াতের সড়কটি সংস্কার করা হয় তাহলে বিশাল এলাকাবাসী নিশ্চিন্তে  তথা আরাম-আয়েশে উপজেলা সদরে এবং কক্সবাজারের নানা কাজে কর্মে আসা-যাওয়া করতে পারবে। অপরদিকে দেখা গেছে, কালারমারছড়া বাজার থেকে উত্তরনলবিলা বাজার পর্যন্ত সড়কের বিশাল অংশ থেকে পিচ উঠে গেছে। সৃষ্টি হয়েছে বড় আকারে গর্তের। এক জায়গায় বের হয়ে গেছে ইটের টুকরো। একাধিক পথচারী জানান, আমরা মহাজোট সরকারের কাছে দাবী জানাচ্ছি যে, অবিলম্বে সামান্য কালারমারছড়া ইউনিয়নের সড়কটি পর্যাপ্ত পরিমাণ সংস্কার করে যাতায়াতের সুব্যবস্থা করার প্রতি। অন্যথায় বৃহত্তর কালারমারছড়া বাসীকে মরণ দশায় পড়তে হবে।

এই বিভাগের আরও খবর

  • © ২০১৪ - ২০২০ সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত | কক্সবাজার আলো .কম
Site Customized By NewsTech.Com