1. litonsaikat@gmail.com : neelsaikat :
  2. shahjahanauh@gmail.com : কক্সবাজার আলো : কক্সবাজার আলো
  3. syedalamtek@gmail.com : syedalam :

টেকনাফ উপজেলায় টানা বর্ষণে জনজীবন বিপর্যস্ত

  • আপডেটের সময় : মঙ্গলবার, ১ সেপ্টেম্বর, ২০১৫
  • ৬ দেখা হয়েছে

সাইফুদ্দীন মোহাম্মদ মামুন,টেকনাফ :
টেকনাফ উপজেলায় কয়েকটি জায়গায় টানা বর্ষণে জনজীবন বিপর্যস্থ হয়ে পড়েছে। ভারী বৃস্টি, বঙ্গোপসাগর ও নাফনদীর জোয়ারের পানিতে উপজেলার প্রত্যন্ত এলাকার বসতবাড়ি, সড়ক, মৎস্যঘের ও শিক্ষা প্রতিষ্ঠান ডুবে যোগাযোগ ব্যবস্থা বিপর্যস্থ হয়ে সৃষ্টি হয়েছে জলাবদ্ধতা। এভাবে বৃস্টিপাতের ফলে পাহাড়ধ্বসের আশংকা করা হচ্ছে। গত রবিবার ভোর হওয়ার আগেই শুরু হওয়া বৃষ্টির গতি বিরতি ছাড়াই বাড়তে থাকে। ভারী বৃস্টিতেই কোথাও এক হাঁটু আবার কোথাও কোমর সমান পানিতে নিমজ্জিত হয়েছে গুরুত্বপূর্ণ সড়ক। বিভিন্ন বাসা-বাড়িতে পানি ঢুকে পড়ে। আবহাওয়া অধিদপ্তর জানিয়েছেন, এ ৩দিনে টেকনাফে ১৭৭ মিঃ লিঃ বৃষ্টিপাত রেকর্ড করেছেন। আবহাওয়া অধিদপ্তরের মতে বৃষ্টিপাতের এ রেকর্ড স্বাভাবিকের চেয়ে সামান্য বেশি। ভাদ্র মাসে এতো বৃষ্টিপাত অস্বাভাবিক বলে জানান। টেকনাফের স্থানীয় কমিউনিটি রেডিও নাফের স্টেশন ম্যানেজার মো: সিদ্দিক হোসেন জানান, উপজেলা নির্বাহী অফিসার শাহ মোজাহিদ উদ্দিনের কাছ থেকে পাওয়া আবহাওয়ার আপডেট খবর রীতিমত জনসাধারণের দৌড়গোড়ায় পৌছানোর লক্ষ্যে রেডিও নাফ সরাসরি ও রেকর্ডের মাধ্যমে প্রচার করেছে। প্রবল বৃষ্টি উপেক্ষা করে জরুরী প্রয়োজন ছাড়া কেউ ঘর থেকে বের হয়নি। যারা বেরিয়েছেন তারাও অটো বা রিকশা না পেয়ে চরম ভোগান্তির শিকার হন। এছাড়া জলাবদ্ধতা সৃষ্টি হওয়ার কারণে নাগরিক দুর্ভোগ চরমে। বিভিন্ন সূত্রে খবর নিয়ে জানা গেছে, বিভিন্ন জায়গায় নিম্নাঞ্চল পানিতে ডুবে বীজতলা ও ফসলের ক্ষতি হয়েছে, চিংড়ি ঘের তলিয়ে গেছে, কোথাও কোথাও ঢেউয়ের তোড়ে নদী ভাঙনের তীব্রতা বৃদ্ধি পেয়েছে। চাষিরা ফসল নিয়ে রয়েছেন দারুণ উদ্বেগ-উৎকণ্ঠার মধ্যে। স্থানীয় প্রশাসন জানমাল ও সম্পদ রক্ষায় জনসাধারণকে সতর্ক থাকার জন্য সর্তকতা জারী করেছে। টেকনাফ পৌর এলাকার কলেজ পাড়া, জালিয়াপাড়া,পুরান পল্লান পাড়ায় পানিতে স্কুল ও রাস্তা-ঘাট ডুবে গেছে। পাহাড়ী ঢলে কাঁচা ঘরবাড়ি ক্ষতিগ্রস্থ এবং স্থানীয় গ্রামীণ সড়কের ব্যাপক ক্ষতি হওয়ায় জনসাধারণের চলাচল ব্যাহত হচ্ছে। এছাড়া ভারী বর্ষণ, সতর্কতা সংকেত, নদ-নদী ও সাগর উত্তাল থাকায় নৌকা ও ট্রলার দিয়ে মাঝি মাল্লারা মাছ শিকারে যেতে না পারায় বিভিন্ন মাছ বাজারে মাছের চরম আঁকাল দেখা দিয়েছে। নিত্যদিনের চাহিদার তুলনায় মাছের বেঁচা-বিক্রি হচ্ছে তুলনামূলকভাবে খুবই কম ও দামও বেশি। টেকনাফ উপজেলা নির্বাহী অফিসার শাহ মোজাহিদ উদ্দিন জানান, উপজেলায় মাইকিং করে ভূমিধ্বস ও ভারী বৃষ্টিপাত হতে জানমাল রক্ষায় যথাযথ পদক্ষেপ নেওয়ার জন্য সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষকে নির্দেশ দেন।

Please Share This Post in Your Social Media

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই বিভাগের আরও খবর
  • © ২০১৪ - ২০২০ সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত | কক্সবাজার আলো .কম
Site Customized By NewsTech.Com