1. litonsaikat@gmail.com : neelsaikat :
  2. shahjahanauh@gmail.com : কক্সবাজার আলো : কক্সবাজার আলো
  3. syedalamtek@gmail.com : syedalam :

পুলিশ ব্যস্ত ধান্দায় : কোর্ট হাজতখানায় আসামীদের মধ্যে মারামারি

  • আপডেটের সময় : শুক্রবার, ১৮ সেপ্টেম্বর, ২০১৫
  • ১২ দেখা হয়েছে

নিজস্ব প্রতিবেদক :
কক্সবাজার আদালতে চলছে কোট পুলিশের নিরব চাঁদাবাজি। এ চাঁদাবাজির কারনে তাদের কাছে জেলার সমস্ত মানুষ এক প্রকার জীম্মি হয়ে পড়েছে। কোন মানুষ কোর্ট হাজতে আসামী বা আত্বীয়-স্বজনকে দেখতে আসলে দায়িত্বরত পুলিশকে দিতে হয় বিভিন্ন কায়দায় মোটাংকের টাকা। টাকা না দিলে পায়ে ধরলেও ভিতরে যাওয়া যায়না। এমন দৃশ্য ১৭ সেপ্টেম্বর দুপুর ১২ টার দিকে সরেজমিনে দেখা গেছে, কক্সবাজার জেলা কারাগার থেকে নিয়মিত জামিনের জন্য প্রায় ৭৫ জন আসামীকে কোর্ট হাজতে আনে। তার মধ্যে কক্সবাজার শহরের পাহাড়তলীর রকি নামে এক আসামীকেও আনা হয়। তাদের কোর্ট হাজতে রাখার পর গর্জনিয়া এলাকার মৃত জাফর আলমের পুত্র নাজিম উদ্দিন (৩০) নামে এক আসামীর ভাই টাকা দিয়ে ভিতরে প্রবেশ করে। তখন হুড়োহুড়ি করে নাজিমকে ভিতর থেকে ডাকলে সে তাড়াতাড়ি আসার চেষ্টা করলে রকি তাকে হাত-পা ধরে বেধড়ক মারতে তাকে। হামলায় আসামী নাজিম উদ্দিনের মুখ ফেটে যায়। এতে সে গুরুতর আহত হয়। রক্তাত্ত হয়ে পুরো হাজত খানা। তখন মুহুর্তের মধ্যে পাল্টে যায় কোর্ট হাজতের পরিস্থিতি।
পরে দায়িত্বরত কোর্ট পুলিশ নাজিম উদ্দিনকে উদ্ধার করে দ্রুত জেলা সদর হাসপাতালে প্রেরন করে।
আহত নাজিম উদ্দিন জানান, তার ভাইয়ের সাথে দেখা করার সামনে আসলে রকি ও অপরাপর আসামী তাকে মারধর করে।
এ ঘটনায় কোর্ট হাজত খানা ও বাহিরে এক প্রকার ভীতিকর পরিস্থিতি সৃষ্টি হয়।
তথ্য সুত্রে জানা গেছে, কক্সবাজার জেলা কোর্ট পুলিশের নিরব ধান্দাবাজী ও আসামীদের আত্বীয়স্বজনদের সুন্দরী কোন মহিলা দেখতে গেলে তাদের বিভিন্ন লোভ-লালসায় পুলিশের ব্যারাকে প্রবেশ করে নানা গল্প-গোজব করে। পরে তাদের মোবাইল নাম্বার সংগ্রহ বিভিন্ন অনৈতিক কর্মকান্ড করারও অহরহ অভিযোগ রয়েছে।
টেকনাফ থেকে দেখতে আসা জাবের নামে এক ব্যক্তি জানান, সকালে তার ভাইকে ভাত দেয়ার জন্য ২ শত টাকা দিতে হয়েছে। পরে আবার দেখা করার জন্য ৩০০ টাকা প্রদান করি। এভাবে হাজার হাজা টাকা আদায় করে ভিতরে প্রবেশ করতে দেয়। তাও আবার ১০ মিনিটের জন্য।
গতকাল সরেজমিনে আরো দেখা গেছে, বাহিরে অবস্থানরত শত শত নারী-পুরুষ দাঁড়িয়ে আছে। সেখান থেকে কোর্ট পুলিশের ধান্দাবাজ কর্তারা সময় ভাগ করে ডেকে আলাদা করে টাকা নিয়ে আসামীদের সাথে হাজতে দেখা করতে ঢুকাই। এভাবে জেলার প্রত্যান্ত এলাকার মানুষদের কাছ থেকে লাখ লাখ টাকা হাতিয়ে নিলেও সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের কোন খবরই নেই।
এ ব্যাপারে কক্সবাজার কোর্ট পুলিশের ইনচার্জ জামাল উদ্দিন জানান, আসামীদের মধ্যে ভুল বুঝাবুঝির কারনে সামান্য মারামারি হয়েছে। পরে আহত ব্যক্তিকে উদ্ধার করে জেলা সদর হাসপাতালে প্রেরন করা হয়।

এই বিভাগের আরও খবর
  • © ২০১৪ - ২০২০ সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত | কক্সবাজার আলো .কম
Site Customized By NewsTech.Com