1. litonsaikat@gmail.com : neelsaikat :
  2. shahjahanauh@gmail.com : কক্সবাজার আলো : কক্সবাজার আলো
  3. syedalamtek@gmail.com : syedalam :

পেকুয়া থানা পুলিশের সেপ্টম্বর মাসের আইন শৃংখলা প্রতিবেদন

  • আপডেটের সময় : সোমবার, ৩ অক্টোবর, ২০১৬
  • ১১ দেখা হয়েছে

এস.এম.ছগির আহমদ আজগরী;পেকুয়া(কক্সবাজার)সংবাদদাতা .
কক্সবাজারের পেকুয়া থানা পুলিশ চলতি বছরের সেপ্টম্বর মাসের আইন শৃংখলা প্রতিবেদন প্রকাশ করেছে। এসময় নিয়মিত মাসিক অভিযানে অপহৃত ভিকটিম, চোরাই গরু, চোলাই মদ, ইয়াবা ও দেশীয় তৈরী বন্দুক, কার্তুজ উদ্ধার ছাড়াও উল্লেখযোগ্য সংখ্যক ওয়ারেন্ট তামিলের পাশাপাশি ফৌজদারী অপরাধে সংশ্লিষ্টতার দায়ে একাধিক জনকে বিভিন্ন মেয়াদের সাজা এবং নিয়মিত মামলার আসামী গ্রেপ্তারের সাফল্য দেখিয়েছে পুলিশ। থানার মাসিক প্রতিবেদন সংশ্লিষ্ট এ এস আই মোঃ নাজিরের দেয়া তথ্যের উদ্ধৃত সূত্রে জানা যায়, চলতি বছরের সদ্য বিদায়ী সেপ্টম্বর মাসে পুলিশের নিয়মিত ধারাবাহিক অভিযান, টহল নজরদারীতে জি.আর মামলার-৩৩টি, সি.আর মামলার-১৭টি ওয়ারেন্ট তামিল করে পুলিশ। পৃথক পৃথক অভিযানে ২টি চোরাই গরু উদ্ধার ও চোরাই গরু পাঁচারে জড়িত ৪জনকে আটক, ১২লিটার চোলাই মদ উদ্ধারে ১জন আটক,, ৬পিস ইয়াবা উদ্ধারে সংশ্লিষ্টতায় ১জন ও ৩০০গ্রাম গাঁজা উদ্ধার সংশ্লিষ্টতায় ১জনকে গ্রেপ্তার করা হয়। একই মাসের অভিযানে একজন অপহৃত কিশোরী ভিকটিমকে উদ্ধার সহ ঘটনায় জড়িত ১জনকে ধৃত করে পুলিশ। এছাড়া, র‌্যাবের অভিযানে ৫টি আগ্নেয়াস্ত্র উদ্ধার ও অস্ত্র ব্যবসায়ীকে গ্রেপ্তার করতঃ থানায় নিয়মিত মামলা রুজু প্রক্রিয়ায় জেলহাযতে প্রেরণ করা হয়। মাসব্যাপী পরিচালিত অভিযানকালে পেকুয়া থানার ও.সি জিয়া মোঃ মোস্তাফিজ ভুঁইয়া গোপন সংবাদের ভিত্তিতে উপজেলার সদর ইউনিয়নের গোঁয়াখালী এলাকার রাস্তার পাশ থেকে পরিত্যাক্ত অবস্থায় ১টি দেশীয় তৈরী বন্দুক, ২রাউন্ড কার্তুজ, ২টাইগার বোতল ভর্তি চোলাই মদ ও ২জোড়া পুরাতন সেন্ডেল উদ্ধার করেন। সরবরাহকৃত তথ্য বিবরণী সূত্রে আরো জানা গেছে যে, সেপ্টম্বর মাসে মাদক সেবন, মাদক পাঁচার, ইভটিজিং, নারী ও শিশু নির্যাতনের ঘটনায় সংশ্লিষ্টতার দায়ে ৮জনকে ফৌজদারী অভিযোগে বিভিন্ন মেয়াদে সাজা দেয় পুলিশ। পুরো মাসে বিভিন্ন ঘটনা ও অপরাধ মূলক কার্যক্রমে ১৯টি নিয়মিত মামলা রুজু হয় থানায়। সেই সাথে নিয়মিত মামলায় সংশ্লিষ্টতার অভিযোগে ১৭জনকে গ্রেপ্তার পূর্বক বিজ্ঞ আদালতে সৌপর্দ্দ করে পুলিশ। এদিকে, চলতি সেপ্টম্বর মাসে কক্সবাজারের পেকুয়ায় পুলিশের ৭দিনের বিশেষ অভিযান (ব্লক রেইডে) অস্ত্র, গুলি ও মাদকের বিভিন্ন উপকরণ উদ্ধার ও উল্লেখযোগ্য পরিমান ওয়ারেন্ট তামিলের খবর পাওয়া গেছে। থানার জনসংযোগ সূত্র বিষয়টির সত্যতা নিশ্চিত করেছেন। পেকুয়া থানার অভিযান বিষয়ক তথ্য কর্মকর্তা এ এস আই মোঃ নাজির এ প্রতিবেদকের সাথে আলাপকালে জানিয়েছেন, সরকার ও পুলিশ ডিপার্টমেন্টের উর্ধ্বতন মহলের নির্দ্দেশে চলতি বছরের সেপ্টম্বর মাসে সারাদেশে আইন শৃংখলা রক্ষাকারী বাহিনী সপ্তাহ ব্যাপী বিশেষ অভিযান চালায়। উক্ত অভিযানের অংশ হিসাবে পেকুয়া থানার অফিসার ইনচার্জ(ও.সি) জিয়া মোঃ মোস্তাফিজ ভুঁইয়ার নেতৃত্বে গত ২৩সেপ্টম্বর হইতে ২৯সেপ্টম্বর পর্যন্ত পেকুয়ার প্রত্যন্ত পাড়া মহল্লায় বিশেষ অভিযান পরিচালনা করে পেকুয়া থানা পুলিশ। এসময় পেকুয়া থানা পুলিশ জি.আর মামলার ২০টি, সি.আর মামলার ৯টি ওয়ারেন্ট তামিলের পাশাপাশি ফৌজদারী অপরাধে সংশ্লিষ্টতার দায়ে ৪জনকে বিভিন্ন মেয়াদে সাজা দেয় এবং নিয়মিত মামলার এজাহার নামীয় প্রধান ২ আসামীকে গ্রেপ্তার পূর্বক বিজ্ঞ আদালতে সৌপর্দ্দ করে পুলিশ। বিশেষ অভিযান চলাকালে ১২লিটার চোলাই মদ নিয়ে রাশেল(২৪) নামের এক মাদক ব্যবসায়ীকে গ্রেপ্তার পূর্বক তার বিরুদ্ধে পেকুয়া থানার এ এস আই নাজির বাদী হয়ে মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রন আইনের ২২(গ) ধারায় মামলা রুজু করে। যার মামলা নং-১২/২৩-০৯-১৬ইং। এসময় র‌্যাবের ৫টি ওয়ান শুটারগান (এল.জি) ০৮রাউন্ড ১২বোর কার্তুজসহ এক অস্ত্র ব্যবসায়ীকে গ্রেপ্তার পূর্বক থানায় নিয়মিত মামলা রুজু করা হয়। একই সময়ে ৩০০গ্রাম গাঁজা উদ্ধার সহ ঘটনায় জড়িতকে গ্রেপ্তার পূর্বক আইনগত ব্যবস্থা নেয় পুলিশ। পেকুয়া থানা পুলিশের সপ্তাহব্যাপী বিশেষ অভিযান চলাকালে নারী ও শিশু নির্যাতন মামলার ভিকটিম উদ্ধার ও ১জনকে গ্রেপ্তার করে। অভিযানের শেষ দিনে পেকুয়া থানার ওসি জিয়া মোঃ মোস্তাফিজ ভুঁইয়া গোপন সংবাদ সূত্রে পুলিশি অভিযান চালিয়ে পরিত্যক্ত অবস্থায় ১টি দেশীয় তৈরী ১নলা বন্দুক, ২রাউন্ড কার্তুজ, ২টাইগার কোল্ড ড্রিংক্স বোতল মদ ও ২জোড়া সেন্ডেল উদ্ধার সাফল্য দেখায় পুলিশ। এঘটনায় থানায় সাধারণ ডায়েরী রুজু হয় বলে থানা সূত্র জানায়। পেকুয়া থানার ও.সি জিয়া মোঃ মোস্তাফিজ ভুঁইয়া অভিযানের সত্যতা নিশ্চিত করেছেন। পেকুয়া থানার ও.সি জিয়া মোঃ মোস্তাফিজ ভুঁইয়া মাসিক আইন শৃংখলা প্রতিবেদন ও অভিযানের সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, পেকুয়া থানা পুলিশের ধারাবাহিক এ কার্যক্রম পুলিশ অব্যাহত রাখবে বলে জানান।

Please Share This Post in Your Social Media

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই বিভাগের আরও খবর
  • © ২০১৪ - ২০২০ সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত | কক্সবাজার আলো .কম
Site Customized By NewsTech.Com