1. litonsaikat@gmail.com : neelsaikat :
  2. shahjahanauh@gmail.com : কক্সবাজার আলো : কক্সবাজার আলো
  3. syedalamtek@gmail.com : syedalam :
  4. bblythe20172018@mail.ru : traceyhowes586 :

পৌরসভার ভোটে সাড়ে ৬৮ কোটি টাকা চায় পুলিশ

  • আপডেটের সময় : বৃহস্পতিবার, ২৪ ডিসেম্বর, ২০১৫
  • ৩৪ দেখা হয়েছে

আসন্ন পৌরসভা নির্বাচনে আইনশৃঙ্খলা রক্ষায় নিয়োজিত থাকবে পুলিশ বাহিনীর ৭৩ হাজার ৭৮০ জন সদস্য। এ জন্য সংস্থাটি নির্বাচন কমিশনের (ইসি) কাছে পাঁচটি খাতে ৬৮ কোটি ৬০ লাখ টাকা বরাদ্দ চেয়েছে। এর মধ্যে শুধু গোয়েন্দা কার্যক্রমে থাকবে আট কোটি ৯৫ লাখ টাকা।

আজ বুধবার স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় থেকে পৌরসভা নির্বাচনে আইনশৃঙ্খলা রক্ষায়এ অর্থ মঞ্জুরি করার জন্য ইসি সচিবালয়ে চিঠি পাঠানো হয়।

একই সঙ্গে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় এ নির্বাচনের সার্বিক আইনশৃঙ্খলা রক্ষার্থে প্রয়োজনী বাহিনী মোতায়েনের খসড়া পরিপত্র পাঠিয়েছে।

মন্ত্রণালয়ের রাজনৈতিক শাখার যুগ্ম সচিব এ কে মফিজুল হকের সই করা এ খসড়া পরিপত্রে বলা হয়েছে, সাধারণ ভোটকেন্দ্রে ১৯ জন ও গুরুত্বপূর্ণ (ঝুঁকিপূর্ণ) ভোটকেন্দ্রে ২০ জন করে নিরাপত্তা সদস্য নিয়োজিত থাকবে। এ সময় সাধারণ কেন্দ্রে পাঁচজন অস্ত্রসহ ও গুরুত্বপূর্ণ কেন্দ্রে ছয়জন করে পুলিশ সদস্য নিয়োজিত থাকবে। এর বাইরে ১৪ জন ও ১৫ জন করে অঙ্গীভূত আনসার-ভিডিপি সদস্য নিয়োজিত থাকবে।

আইনশৃঙ্খলা রক্ষায় গত শনিবার সংশ্লিষ্টদের সঙ্গে সমন্বয় সভা করেছে ইসি। ইসি কর্মকর্তারা জানান, নির্বাচন কমিশনের চাহিদা যেমন ছিল সেভাবে নিরাপত্তা পরিকল্পনা রেখেছে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়। আইনশৃঙ্খলা রক্ষায় পুলিশ, বিজিবি, র‍্যাব, এবিপিএন, কোস্টগার্ড বহাল রাখা হয়েছে। এ নির্বাচনে ১০২ পৌরসভায় বিজিবি থাকবে।

তারা ২৮ ডিসেম্বর থেকে ৩১ ডিসেম্বর পর্যন্ত মাঠে থাকবে। এ সময় নির্বাহী ও বিচারিক হাকিম তাঁদের টহলে মোবাইল ও স্ট্রাইকিং ফোর্সের নেতৃত্ব দেবে। ইসি কর্মকর্তারা আরো জানান, ইসির চাহিদা অনুযায়ী এ নির্বাচনে প্রতি

পৌরসভায় একটি স্ট্রাইকিং ফোর্স, একটি মোবাইল টিম, র‍্যাবের ৮১টি টিম (ব্যাটালিয়ন সদরে ৫৬ ও র‍্যাব সদরে ২৫), ১০২ পৌরসভায় এক প্লাটুন বিজিবি এবং ছয়টি পৌরসভায় এক প্লাটুন কোস্টগার্ড নিয়োজিত রাখার কথা রেখেছে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়।

ইসির বাজেট শাখার এক কর্মকর্তা জানান, এ পর্যন্ত পুলিশের অর্থ বরাদ্দের তথ্য এসেছে। বিজিবি, কোস্টগার্ড ও আনসার কয়েকদিনের মধ্যে পাঠাবে। তিনি বলেন, তারা যে দাবি করুক না কেন ইসি বিবেচনা করে নির্দিষ্ট বরাদ্দ দেবে। কারণ আইনশৃঙ্খলায় ইসির বরাদ্দ রয়েছে ৫৫ কোটি টাকা। এর বাইরে যাবে না ইসি।

এ নির্বাচনে ভোটকেন্দ্র ও টহলের সদস্য নিয়ে এক লক্ষাধিক সদস্য থাকবে। পুলিশ ও আনসার বেশি থাকবে বলেও জানান ওই কর্মকর্তা।

স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের সহকারী সচিব জাহাঙ্গীর আলমের সই করা পুলিশের অর্থ বরাদ্দ সংক্রান্ত চাহিদা ইসির নির্বাচন পরিচালনা শাখায় পাঠানো হয়। ইসির সম্মতি নিয়ে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় বৃহস্পতিবার এ-সংক্রান্ত পরিপত্র জারি করবে।

এতে বলা হয়েছে, পৌর নির্বাচনে ৭৩ হাজার ৭৩০ জন সদস্য নিয়োজিত থাকবে।

তাদের ভাতা বাবদ প্রায় ১১ কোটি ৪২ লাখ টাকা, যানবাহন বাবদ ৩৬ কোটি ১২ লাখ টাকা, অন্যান্য ব্যয় ছয় কোটি ৫০ লাখ টাকা, শুকনো খাবার পাঁচ কোটি ৫৮ লাখ টাকা এবং গোয়েন্দা কার্যক্রমে আট কোটি ৯৫ লাখ টাকা বরাদ্দের প্রস্তাব রয়েছে।

ইসির কাছে পাঠানো ব্যয় বরাদ্দের প্রস্তাবটি পুলিশ মহাপরিদর্শকের কাছেও অনুলিপি দেওয়া হয়েছে। এরই মধ্যে এ নির্বাচন পরিচালনা ও আইনশৃঙ্খলায় ১০০ কোটি টাকা বরাদ্দ করেছে ইসি।

আগামী ৩০ ডিসেম্বর ২৩২ পৌরসভায় নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে।

এই বিভাগের আরও খবর
  • © ২০১৪ - ২০২১ সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত | কক্সবাজার আলো .কম
Site Customized By NewsTech.Com