1. litonsaikat@gmail.com : neelsaikat :
  2. shahjahanauh@gmail.com : কক্সবাজার আলো : কক্সবাজার আলো
  3. syedalamtek@gmail.com : syedalam :

বন্দি থাকা মঞ্জুরের চিরকুট থেকে…

  • আপডেটের সময় : মঙ্গলবার, ১১ আগস্ট, ২০১৫
  • ১৮ দেখা হয়েছে

কক্সবাজার আলো :
মৃত্যুর দুয়ার থেকে ফিরে এসেছেন মঞ্জুর। এখন রয়েছেন কক্সবাজার সাংস্কৃতিক কেন্দ্রের ৩য় তলার একটি কক্ষে। বুধবার রঙ মিস্ত্রী মঞ্জুর ফিরে যাবেন নরসিংদীর শিবপুর উপজেলার ছড়িপুরা গ্রামে। যেখানে তার জন্য প্রতীক্ষায় প্রহর গুণছে প্রিয়জনেরা।
১০ আগস্ট মায়ানমার থেকে উদ্ধার হয়ে আসা ১৫৯ জন বাংলাদেশির মধ্যে তিনি একজন। তার সংসারে রয়েছে স্ত্রী, বৃদ্ধ মা-বাবা ও প্রাণের চেয়েও প্রিয় দুই সন্তান। সংসারের অভাব ঘোচাতেই প্রায় ৫ মাসে আগে বাড়ি থেকে বের হয়েছিলেন তিনি।
এক বন্ধুর প্ররোচনায় কাউকে কিছু না বলে সিদ্ধান্ত নিয়েছিলেন সাগর পথে মালয়েশিয়া যাওয়ার। কিন্তু বাড়ি থেকে বের হওয়ার পর থেকেই তার চোখে মুখে ছিলো না আর রঙিন স্বপ্ন। তাকে চারদিক ঘিরে ছিলো বিভৎস অন্ধকার আর মৃত্যু নামক বিভীষিকা।
তিনি দেখেছেন গভীর সাগরে জাহাজে দালালদের অত্যাচার আর নিপীড়ন সইতে না পেরে মৃত্যুকে আলিঙ্গন করার দৃশ্য অনেকের। তাকে নীরবে সইতে হয়েছে জাহাজের পাটাতনে প্রকাশ্যে মা-বোনদের ওপর চলা নির্মম নির্যাতন। আর সেইসব দুঃসহ স্মৃতি ছোট ছোট চিরকুটে লিখে রেখেছেন মঞ্জুর।

মঞ্জুরের লেখা সেই চিরকুটগুলোর লেখা হুবহু পাঠকদের জন্য তুলে ধরা হলো :
“মনে দুঃখ পাইছি আমি বুঝাই কেমন করে। জ্ঞানী হলে বুঝবে তুমি আকার-ইকারে। বিপদে আমরা পড়ে গেলাম বিশাল সাগরে। মৃত্যু আমরা মেনে নিলাম পাঁচ কলেমা পড়ে। অনেক কষ্টের পরে আমরা জীবন ফিরে পেলাম। ৩ মাস পরে আমরা মাটিতে পা রাখিলাম। অনেক মানুষ মরে গেলো সাগরের মাঝখানে। সেই সব দেখে মোদের ভয় লাগল মনে। শিপের উপর মেয়েদেরকে করেছে নির্য়াতন। সেই কাহিনী দেখে মোদের কেঁদে উঠলো মন। ওই সময় মনে পড়লো বাড়ির সবার কথা। স্বপ্নে আমি দেখেছি কাঁদছে আমার মা-বাবা। চোখের জলে বুক ভাসাচ্ছে জনম দুঃখী মা। আসার সময় মা’র কাছে দোয়া নিতে পারলাম না। সবার কথা ভেবে এখন ঝরে চোখের পানি। এখন আমি বুঝে গেলাম জীবন কত দামি।
বাকি দুমাস কাটাইয়া দিলাম বার্মার কারাগারে। সেই মনের দুঃখ আমি বুঝাই কাহারে। জীবন আমার কাছে শুধু দুঃখে দুঃখে গড়া। এই জীবনে বেঁচে থেকেও আজ আমি মরা। সেই কথা ভেবে ভেবে আমার রাত কাটে চিন্তায়। তোমরা কেউ পাগল হইওনা মালয়েশিয়া কয়ে। মালয়েশিয়ার মাঝে আছে শুধু দুঃখ যন্ত্রনা। সেই দুঃখ তোমরা কেউ সইতে পারবে না। তোমরা কেউ মনে করনো আমি একজন কবি। আমি শুধু মনের আবেগে কষ্ট শুধু লিখি। জন্ম আমার গরীব ঘরে। সাধারণ একজন ছেলে। তোমরা সবাই অবাক হবে আমার পরিচয় শুনে, মনে বড় আশা ছিল খিছু ঠাকা জমাবার।
বাড়ি আমার শিবপুরে ছড়িপুরা গ্রামে। আমার দেশের সবাই আমায় মঞ্জুর নামে চিনে। এই বলে শেষ করলাম করুন কাহিনীর কথা। ভুল হলে তোমরা কেউ নিওনা মনে ব্যথা।’’

এই বিভাগের আরও খবর
  • © ২০১৪ - ২০২০ সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত | কক্সবাজার আলো .কম
Site Customized By NewsTech.Com