বন্দুকযুদ্ধে ইয়াবা কারবারী লালাইয়া নিহত

নিজস্ব প্রতিনিধি, টেকনাফ :
টেকনাফে নাফনদীর কিনারায় দু‘গ্রুপ ইয়াবা ব্যবসায়ীদের মধ্যে চালান খালাস নিয়ে গোলাগুলির ঘটনা ঘটেছে। এসময় এক ইয়াবা কারবারীর মৃতদেহ, অস্ত্র, বুলেট ও ইয়াবা উদ্ধার করা হয়েছে।
জানা যায়, ২৬ অক্টোবর ভোররাতে টেকনাফ মডেল থানার অফিসার্স ইনচার্জ প্রদীপ কুমারের নেতৃত্বে একদল পুলিশ হ্নীলা হতে মাদক বিরোধী অভিযান শেষে ফেরার পথে দমদমিয়া এলাকায় পৌঁছলে নাফনদীর কিনারায় গোলাগুলির শব্দ শুনতে পায়। পুলিশ ঘটনাস্থলে গেলে ইয়াবা কারবারীরা পুলিশকে লক্ষ্য করে গুলিবর্ষণ করে। পুলিশও আতœরক্ষার্থে পাল্টা গুলিবর্ষণ করে। এসময় উভয়পক্ষের প্রায় ৩৫/৪০ রাউন্ড গোলাগুলির ঘটনা ঘটে। পরে পরিস্থিতি শান্ত হলে ঘটনাস্থল তল্লাশী করে একটি গুলিবিদ্ধ মৃতদেহ, ২টি দেশীয় তৈরী অস্ত্র, ১০ রাউন্ড বুলেট ও ৬ হাজার পিস ইয়াবা পাওয়া যায়। মৃতদেহ থানায় নিয়ে উপজেলার হ্নীলা ইউনিয়নের ৬নং ওয়ার্ডের উলুচামরী এলাকার কালা মিয়া প্রকাশ কালুর পুত্র হামিদুল ইসলাম প্রকাশ লালাইয়া ওরফে বার্মাইয়া লালাইয়া বলে (৩৫) সনাক্ত করে।
নিহত ইয়াবা কারবারী লালাইয়া উক্ত এলাকার ইয়াবা ডন মৃত সিকদার আলীর পুত্র ও স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের তালিকাভূক্ত ইয়াবা ডন হামিদ হোছনের সেকেন্ড ইন কমান্ড। সে বিভিন্ন সংস্থার সোর্স পরিচয়ে নানা অপকর্ম করে জনজীবনকে বিষাক্ত করে তুলেছে।
টেকনাফ মডেল থানার অফিসার্স ইনচার্জ প্রদীপ কুমার দাশ, ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে বলেন তার বিরুদ্ধে টেকনাফ মডেল থানায় ৩টি মাদক, ৪টি মারামারি ও ১টি মানবপাচারসহ বেশ কয়েকটি বিভিন্ন অপরাধের মামলা রয়েছে। তার মৃতদেহ পোস্টমর্টেমের জন্য মর্গে প্রেরণ করা হয়েছে।

উপদেষ্টা সম্পাদক : হাসানুর রশীদ
সম্পাদক ও প্রকাশক : মুহাম্মদ শাহজাহান

নির্বাহী সম্পাদক : ছৈয়দ আলম

যোগাযোগ : ইয়াছির ভিলা, ২য় তলা শহিদ সরণী, কক্সবাজার। মোবাইল নং : ০১৮১৯-০৩৬৪৬০

গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের তথ্য অধিদপ্তরে নিবন্ধনের জন্য আবেদিত

Email:coxsbazaralo@gmail.com