আন্তর্জাতিকজাতীয়

বুর্জ খলিফায় লাল সবুজের পতাকা প্রদর্শিত

16views

 

এসএ সাদেকঃ  সংযুক্ত আরব আমিরাতে করুনা ভাইরাসের প্রকোপ থেকে বাঁচতে মানুষ যখন উৎকন্ঠায় ভুগছে, প্রবাসী সহ সাধারণ মানুষ যখন জীবন বাঁচাতে অনিশ্চয়তার দোলায় দুলছে, অর্থনৈতিক অনিশ্চয়তার মধ্যে প্রবাসীরা যখন দুশ্চিন্তায়, জরুরি অবস্থা জারী করে যখন প্রশাসন জনসাধারনকে ঘরে ফেরার তাগিদ দিচ্ছিল ঠিক সেই সময়ে পৃথিবীর সর্বোচ্চ দালান বুর্জ খলিফায় বাংলাদেশের লাল সবুজ পতাকাকে তুলে ধরলো অামিরাত। এই লাল সবুজ পতাকা লক্ষ প্রবাসী এবং বিশ্ববাসিকে জানান দিল আমরা শুধু আনন্দ-উৎসবে নয়,মহাপ্লাবনের ধ্বংসস্তূপে নয়, সংগ্রাম আর অস্থিরতাই নয়। মহাদুর্যোগ দুর্বিপাকে ,ঘুটঘুটে অন্ধকার ও অনিশ্চয়তার মধ্যে ,মৃত্যুর অন্তিম শয্যায় অমৃত সুধা পানে , যেকোন সময়ে অামরা পৃথিবীর বুকে অবিরাম জেগে আছি, অনাধিকাল ধরে জেগে থাকবো বাংলাদেশ।গতকাল ২৬ শে মার্চ সন্ধ্যা ৭ টা ১ মিনিটে পৃথিবীর সর্বোচ্চ দালান বুর্জ খলিফার বুক জুরে জেগে উঠল লাল-সবুজের পতাকা। দুবাই বাংলাদেশ কনস্যুলেট জেনারেলের সুপারিশে বাংলাদেশের মহান স্বাধীনতা দিবস উপলক্ষে স্বাধীনতার স্থপতি বঙ্গবন্ধুর জন্মশত বার্ষিকী চলাকালিন সময়ে সংযুক্ত আরব আমিরাতের বিখ্যাত ইমার গ্রুপ বুর্জ খলিফার অবয়বে বাংলাদেশের লাল সবুজ পতাকা প্রদর্শনের ব্যবস্থা করেন। এবারসহ দ্বিতীয় বারের মতন বুর্জ খালিফায় বাংলাদেশের পতাকা প্রদর্শিত হলো। বিশ্বের সর্বোচ্চ দালান বুর্জ খলিফায় ২০১৯ সালের ২৬ মার্চ সন্ধ্যা সাতটায় প্রথম বারের মত বাংলাদেশের পতাকা প্রদর্শিত হয়। গত বছর বাংলাদেশ কনস্যুলেটের উদ্যোগে এবং অামিরাত বাংলাদেশ কমিউনিটির সিনিয়র দুই-তিনজন ব্যক্তির তৎপরতায় বিশ্বের অন্যতম রিয়েলস্টেট কোম্পানী ও নির্মাণ কোম্পানি ইমার অামিরাত সরকারের অনুমতিক্রমে বাংলাদেশ কে সম্মান জানিয়ে এ পতাকা প্রদর্শনের ব্যবস্থা করেন। বিশ্বের সর্বোচ্চ এবং অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ এ টয়লেস টাওয়ারে বাংলাদেশের পতাকা প্রদর্শিত হওয়ায় বিদেশি দর্শনার্থীদের কাছে বাংলাদেশের মর্যাদা অনেকগুন বৃদ্ধি পেয়েছে বলে সচেতন মহল মনে করেন। এদিকে বাংলাদেশ কনস্যুলেটের কনসাল জেনারেল ইকবাল হোসেন খান বিশ্বের সর্বোচ্চ দালান বুর্জ খলিফায় বাংলাদেশের স্বাধীনতা দিবস কে সম্মান জানিয়ে পতাকা প্রদর্শিত করায় আমিরাত সরকার ও ইমার গ্রুপকে আন্তরিক ধন্যবাদ জ্ঞাপন করছেন। তিনি বলেন আমিরাত সরকার এবং ইমার গ্রুপ এই দুর্যোগ মুহূর্তে বিশ্বের সর্বোচ্চ দালান বুর্জ খলিফায় বাংলাদেশের পতাকা প্রদর্শিত করে বাংলাদেশী জাতিকে সম্মানিত করে যে নজির স্থাপন করেছেন তা বাংলাদেশের জনগণ অাজীবন মনে রাখবে। তিনি বলেন সংযুক্ত আরব আমিরাতে প্রবাসী বাংলাদেশির সংখ্যা কম নয়।করুনা ভাইরাসের মতন এই মহামারীর দুর্যোগ না থাকলে হয়তো প্রবাসী বাংলাদেশিরা এই স্বাধীনতা দিবস কে বিভিন্ন ভাবে পালন করার উদ্যোগ গ্রহন করত । কিন্তু এই দুর্যোগে তা অার সম্ভব হয়নি প্রবাসীদের জন্য। তাই বুর্জ খলিফায় বাংলাদেশের পতাকা প্রদর্শিত হওয়ায় স্বাধীনতা দিবস পালনের কিছুটা আত্মতৃপ্তি মিটেছে প্রবাসী বাংলাদেশীদের। তিনি আগামীতে সারাবিশ্বে একটি সংগ্রামী স্বাধীন দেশ হিসেবে বিশ্ববাসী বাংলাদেশেকে সর্বোচ্চ আসনে স্থান দিবেন বলে প্রত্যাশা করেন। এদিকে দুবাইয়ের সর্বোচ্চ ভবন বুর্জ খলিফায় বাংলাদেশের পতাকা প্রদর্শিত হওয়ায় প্রবাসী বাংলাদেশীদের মধ্যে আত্মতৃপ্তি লক্ষ্য করা গেছে। কেননা করোনার ভাইরাসের মত এ দুর্যোগের ঘনঘটায় প্রবাসী বাংলাদেশিরা যখন ঘরের মধ্যে অবস্থান করছেন তখন তারা সোশ্যাল মিডিয়া এবং বাংলাদেশের বিভিন্ন ইলেকট্রনিক্স ও প্রিন্ট মিডিয়ায় এই খবরটি জানার জন্য তৎপর হতে দেখা গেছে। শত শত প্রবাসী সোশ্যাল মিডিয়ার মাধ্যমে পতাকা প্রদর্শনের জন্য আমিরাত সরকারকে ধন্যবাদ ও কৃতজ্ঞতা জানিয়েছেন। প্রবাসীরা বলেন আমিরাত সব সময় আমাদের বন্ধু রাষ্ট্র। বাংলাদেশের সুখ দুঃখে আমিরাত যেমন আমাদের পাশে থেকেছেন। আমরাও আমিরাতের সুখ দুঃখে আজীবন পাশে থাকতে চায়। তারা বলেন বিশ্বের সর্বোচ্চ দালান বুর্জ খলিফার প্রান্ত জুড়ে বাংলাদেশের পতাকা অবিরাম প্রদর্শিত হোক অনাদিকাল ধরে অামরা সেটাই প্রত্যাশা করি।

Leave a Response