1. litonsaikat@gmail.com : neelsaikat :
  2. shahjahanauh@gmail.com : কক্সবাজার আলো : কক্সবাজার আলো
  3. syedalamtek@gmail.com : syedalam :
শিরোনাম :
বিশ্বনবী (সা.)-কে কটাক্ষ করে ব্যঙ্গচিত্র প্রদর্শনীর প্রতিবাদে কক্সবাজারে বিক্ষোভ মিছিল চুনতীর ঐতিহাসিক ১৯ দিন ব্যাপী সীরাতুন্নবী (সা:) মাহফিল শুরু টেকনাফ প্রেসক্লাব ভবন নির্মাণ কাজের উদ্বোধন ফ্যাসিস্ট আওয়ামী সরকারের বিদায় ঘন্টা বেজে গেছে, পতন আসন্ন- কেন্দ্রীয় বিএনপি নেতা লুৎফুর রহমান কাজল নিশোর প্রথম চলচ্চিত্রের ট্রেইলার প্রকাশ (ভিডিও) শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের ছুটি নিয়ে সিদ্ধান্ত বৃহস্পতিবার রোনালদোবিহীন বার্সার মুখোমুখি হবে জুভেন্টাস রোহিঙ্গাদের ফিরিয়ে নিতে মিয়ানমারকে তাগিদ যুক্তরাষ্ট্রের পরীক্ষা নেয়ার অনুমতি পাচ্ছে বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয় শক্তিশালী সশস্ত্রবাহিনী গড়তে কাজ করছে সরকার: প্রধানমন্ত্রী

মরদেহ নেই কবরে : বাবা-ছেলে কারাগারে

  • আপডেটের সময় : সোমবার, ১০ আগস্ট, ২০১৫
  • ১২ দেখা হয়েছে

কক্সবাজার আলো ডেস্ক :
সিলেটের বিশ্বনাথে কবরে মরদেহ না পাওয়ার ঘটনায় বাবা-ছেলের জামিন নামঞ্জুর করে কারাগারে প্রেরণ করা হয়েছে। দিনমজুর আব্দুল মনাফ হত্যার ঘটনায় নিহতের ভাই আব্দুল হাশিমের দায়ের করা মামলায় তাদের দু’জনের জামিন না মঞ্জুর করা হয়। তারা হলেন, হরিপুর গ্রামের উস্তার আলী ও তার ছেলে মিন্টু মিয়া।
সোমবার (১০ আগস্ট) দুপুরে জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট-২ আদালতের বিচারক নজরুল ইসলাম তাদের জামিন নামঞ্জুর করে কারাগারে প্রেরণের জন্য পুলিশকে নির্দেশ দেন।
এর আগে, ৪ আগস্ট দুপুরে আদালতের নির্দেশে দাফনের ২ মাস ১৩ দিন পর ময়নাতদন্তের জন্য মরদেহ উত্তোলন করতে যান উপজেলা নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট ও সহকারী কমিশনার (ভূমি) সুহেল মাহমুদ, সিলেটের সিভিল সার্জন ডা. মো. হাবিবুর রহমানসহ সংশ্লিষ্টরা। কিন্তু কবর খোঁড়ার পর মরদেহ পাওয়া যায়নি। শুধু আলামত হিসেবে কিছু কাফনের কাপড়, সুতলী ও নীল রংয়ের পলিথিন সংগ্রহ করা হয়। এ ঘটনায় এলাকাজুড়ে চাঞ্চল্য সৃষ্ট হয়।
স্থানীয়রা জানান, মরদেহটি বিশ্বনাথ উপজেলার খাজাঞ্চী ইউনিয়নের হরিপুর গ্রামের মৃত জবান আলীর ছেলে আব্দুল মনাফের (৫৫)। গত ১৬ মে বিকেলে তিনি নিখোঁজ হন। এরপর ১৮ মে সন্ধ্যায় বসতঘরের সম্মুখের গোয়াল ঘর থেকে আব্দুল মনাফের মরদেহ উদ্ধার করা হয়। পরদিন (১৯ মে) আব্দুল মনাফকে হত্যার অভিযোগে গ্রামবাসী হরিপুর গ্রামের অভিযুক্ত উস্তার আলী ও তার ছেলে মিন্টু মিয়াকে আটক করে পুলিশে সোপর্দ করেন। অবশ্য পরে তারা আদালত থেকে শর্ত সাপেক্ষে জামিন লাভ করেন।
এ ঘটনার পর নিহতের ভাই আব্দুল হাশিম বাদী হয়ে ৫ জনের নামে ও অজ্ঞাত আরও ৪/৫ জনকে আসামি করে ২৫ মে জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আমলী আদালত-৩-এ একটি দরখাস্ত মামলা দায়ের করেন (সি.আর নং-১৪১/২০১৫)। মামলায় অভিযুক্তরা হলেন, হরিপুর গ্রামের উস্তার আলী তার ছেলে টিটু মিয়া (২৫), ভাই মিন্টু মিয়া (২২), লুৎফুর (৩২) ও একই গ্রামের মৃত মজর আলীর ছেলে কবিরুল (৩৫)।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই বিভাগের আরও খবর
  • © ২০১৪ - ২০২০ সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত | কক্সবাজার আলো .কম
Site Customized By NewsTech.Com