1. litonsaikat@gmail.com : neelsaikat :
  2. shahjahanauh@gmail.com : কক্সবাজার আলো : কক্সবাজার আলো
  3. syedalamtek@gmail.com : syedalam :
  4. bblythe20172018@mail.ru : traceyhowes586 :

মহেশখালী দ্বীপ পানির নিচে, শিশুসহ নিহত ৪ : আহত শতাধিক

  • আপডেটের সময় : বুধবার, ২৯ জুলাই, ২০১৫
  • ৭২ দেখা হয়েছে

বন্যা পরিস্থিতির অবনতি, অসংখ্যা বাড়ি তলিয়েগেছে, গোটা দ্বীপ বিদ্যুৎ ও যোগাযোগ বিচ্ছিন্ন
আবুল বশর পারভেজ, মহেশখালী থেকে :
পুর্ণিমার জোয়ার ও গভীর নিন্মচাপের প্রভাবে কক্সবাজারের উপকূলীয় মহেশখালী দ্বীপের বন্যা পরিস্থিতির চরম অবনতি ঘটেছে। গতকাল এখানে নিহত হয়েছে শিশুসহ অন্তত: ৪ জন, আহত হয়েছে শতাধিক মানুষ। বন্যায় তলীয়ে গেছে অসংখ্য কাঁচা বাড়ি। গোটা উপজেলা বিদ্যুৎ ও যোগাযোগ বিচ্ছিন্ন হয়ে পড়েছে। দুর্গতদের নিরাপদে নিয়ে আসতে সন্ধ্যার পর থেকে প্রশাসনের নানামুখি তৎপরতা শুরু হয়।
জেলা আবহাওয়া অফিস, উপজেলা প্রশাসন ও বিভিন্ন এলাকা থেকে প্রাপ্ত খবরে জানাগেছে, মৌসুমি বায়ুর প্রভাবে সাগরে সৃষ্ট নিন্মচাপের ফলে গতকাল সকাল থেকে মহেশখালীতে ধারাবাহিক ভাবে বৃষ্টি ও ঝড়ো বৃৃষ্টি হচ্ছিল। সাগরে সৃষ্ট লঘুচাপটি ক্রমশ ঘনিভূত হয়ে গভীর নিন্ম চাপে পরিণত হয়। গতকাল সন্ধ্যায় এরিপোর্ট লেখা পর্যন্ত নিন্মচাপটি মহেশখালী তথা কক্সবাজার থেকে ১৩৫ কিলোমিটার দক্ষিণ-পশ্চিমে অবস্থান করছে। ফলে ঘুর্ণিঝড় কেন্দ্রের আশপাশে মহেশখালী উপকূলের কাছাকাছি উত্তর বঙ্গোপসাগরে সাগর উত্তাল রয়েছে। বৃষ্টির সাথে মহেশখালীতে ঘণ্টায় ৫০ থেকে ৬০ কিলোমিটার বেগে ঝড়ো হাওয়া বইছে। এদিকে সমুদ্র এমন উত্তল থাকায় গতকাল বিকেল ৩ টা নাগাদ সোনাদিয়া থেকে কাঁকড়া আহরণ করে ফেরার পথে ট্রলার ডুবির ঘটনায় ২ জেলে নিহত হয়েছে। এসময় পানিতে ডুবে আহত হয়েছে আরো ৭ জন। পরে স্থানীয়রা প্যারাবনে আটকে যাওয়া নিহত দুই ব্যক্তির মরদেহ উদ্ধার করে। নিহতরা হলেন গিয়াস উদ্দিন কালু (৩০), পিতা জাফর আলম, তাজিয়াকাটা, কুতুবজোম। অপরজন বড় মহেশখালীর মগরিয়াকাটা এলাকার ইয়ার মোহাম্মদের পুত্র মোহাম্মদ একরাম(২১)। দু’জনই কাঁকড়া আহরণের কাজ করত বলে জানাগেছে। অপরদিকে ব্যপক বৃষ্টির কারণে বড় মহেশখালীর পাহাড়তলী এলাকায় জনৈক দিনমজুর সৈয়দ নুরের কাঁচাবাড়ি ধ্বসে পড়েছে। এসময় দেয়াল ছাপা পড়ে ৫ বছরের এক শিশুকণ্যা নিহত হয়। নিহত শিশুর নাম হুমায়রা বেগম। হুমায়রা ছৈয়দ নুরের মেয়ে। অপরদিকে সমুদ্রে মাছধরতে গিয়ে বাঁকখালী মোহনায় ট্রলার থেকে পড়ে গিয়ে নিহত হয় উপজেলার কালামার ছড়ার এক জেলে। নিহত জেলের নাম আব্দুল করিম(৩০), তিনি স্থানীয় মোহাম্মদ শাহ ঘোনার আব্দুল করিমের পুত্র। তাছাড়া বিছিন্ন ভাবে আরো কিছু হতাহতের খবর পাওয়া গেলেও নির্ভযোগ্য সূত্র থেকে তা নিশ্চিত হওয়া যায়নি।
সূত্র জানিয়েছে পুর্ণিমার জোয়ার ও গভীর নিন্মচাপের প্রভাবে মহেশখালী দ্বীপের নিন্মাঞ্চল প্রায় ৪ থেকে ৫ ফুট পানির নিচে তলীয়ে যায়। এসময় অসংখ্য কাঁচা বাড়িঘর ধ্বসে পড়ে। আহত হয় অনন্ত: শতাধিক লোক। পাহাড়ে ঢল ও ধ্বসের কারণে অসংখ্য পানের বরজ ক্ষতিগ্রস্থ হয়েছে। পানিতে একাকার হয়েপড়েছে বহু চিংড়ি প্রজেক্ট। ধারাবাহিক বৃষ্টির ফলে গত ৪ দিন ধরে মহেশখালীর সাথে দুরপাল্লার যান যোগাযোগ বিছিন্ন হয়ে পড়েছে। সমগ্র মহেশখালী বিদ্যুৎ বিচ্ছিন্ন অবস্থায় রয়েছে।
এদিকে সন্ধ্যার পর মহেশখালী উপজেলা নির্বাহী অফিসারের র্কাযালয়ে উপজেলা দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা কমিটির এক জরুরি সভা হয়েছে। উপজেলা প্রশাসন জরুরি কন্ট্রোল রুম খুলেলেছে। কন্ট্রোল রুমের নম্বর ০১৮৩৪ ৪৭৯ ২৭৭। উপজেলা নির্বাহী অফিসার মো: আনোয়ারুল নাসের জানান মহেশখালীর নিন্মাঞ্চল ও পাহাড়ি এলাকা থেকে অন্তত: ৩শত পরিবারকে নিরাপদ আশ্রয়ে নিয়ে আসা হয়েছে। রাতে স্বভাবিকের চেয়ে ৪-৫ ফুট অতিরিক্ত জোয়ারের পানি বৃদ্ধি পাওয়ার সংবাদে প্রশাসন ও রেডক্রিসেন্ট নানা প্রস্তুতিমূলক কার্যক্রম চালাচ্ছে। লোকজনকে নিরাপদ আশ্রয়ে চলে আসার জন্য মসজিদে মসজিদে মাইকিং করা আহ্বান জানানো হচ্ছে। কন্ট্রোল রুম ইনচার্জ উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তা শফিউল আলম সাকিব জানান দুর্যোগ মুকাবিলার জন্য প্রাথমিক ভাবে প্রশাসন প্রস্তুতি গ্রহণ করেছে।

এই বিভাগের আরও খবর
  • ২০১৪ - ২০২১ সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত | কক্সবাজার আলো .কম। গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের তথ‌্য মন্ত্রণালয়ে আবেদিত ।
Site Customized By NewsTech.Com