1. litonsaikat@gmail.com : neelsaikat :
  2. shahjahanauh@gmail.com : কক্সবাজার আলো : কক্সবাজার আলো
  3. syedalamtek@gmail.com : syedalam :

মৌলভীবাজারের মণিপুরী তাঁত কাপড়ের চাহিদা বেড়েছে

  • আপডেটের সময় : বুধবার, ৮ জুলাই, ২০১৫
  • ২৫ দেখা হয়েছে

সিলেট প্রতিনিধি : ঈদুল ফিতরে মৌলভীবাজারের ঐতিহ্যবাহী মণিপুরী তাঁত সামগ্রীর চাহিদা বেড়েছে। জেলার শ্রীমঙ্গল ও কমলগঞ্জ উপজেলার মণিপুরী অধ্যুষিত ১০টি গ্রামের ঘরে ঘরে চলছে তাঁতের বিভিন্ন সামগ্রী তৈরির কাজ। অন্যদিকে, কমলগঞ্জের মাধবপুর ও শ্রীমঙ্গলের রামনগরে মণিপুরী শাড়ি, লুঙ্গি, থ্রিপিস, পাঞ্জাবি, বাঁশের কাজ করা সামগ্রী ও ব্যাগের দোকান খোলা হয়েছে। পুরোদমে বেচাকেনা এখনো শুরু না হলেও ব্যবসায়ীরা আশা করছেন, সব মিলিয়ে ঈদে তাদের তৈরি তাঁতসামগ্রী বিক্রি কোটি টাকা ছাড়িয়ে যাবে। জেলার কমলগঞ্জ উপজেলার মাধবপুর, রাণীরবাজার, কালারাইবিল, ভানুগাছ, বালিগাঁও, ইসলামপুর ও শ্রীমঙ্গল উপজেলার রামনগর গ্রামসহ গ্রায় ১০টি গ্রামে ঈদকে সামনে রেখে মণিপুরী তাঁতীরা ব্যস্ত সময় কাটাচ্ছেন। অন্যদিকে উৎপাদিত দ্রব্য বিক্রি করতে দোকানিরা বসেছেন বিভিন্ন আইটেমের সামগ্রী নিয়ে। এদিকে জেলার একমাত্র মণিপুরী তাঁতসামগ্রীর বাজার হল শ্রীমঙ্গলের রামনগরের মণিপুরীপাড়া। এখানকার ৬৫টি পরিবারের মধ্যে ৪০টি পরিবার ঈদকে সামনে রেখে তাদের নিজস্ব ডিজাইনে কাপড় বোনে। এ কাপড়গুলো এখানকার ১০টি দোকানে প্রদর্শিত হয়। জেলার বিভিন্ন স্থান থেকে ক্রেতারা এসে এগুলো কিনে থাকেন। ব্যবসায়ীরা জানান, ১৫ রোজার পর থেকে মূলত ঈদের বাজার বা কেনাকাটা পুরোদমে শুরু হয়। এবার শাড়ি প্রকারভেদে ৫০০ থেকে ৫ হাজার, নকশিকাঁথা ১৫০০ থেকে করে ৪ হাজার, থ্রিপিস ৪০০ থেকে ২ হাজার টাকায় বিক্রি হচ্ছে। এ ছাড়া বাঁশের তৈরি বিভিন্ন সামগ্রীর দোকানও এখানে রয়েছে। ঈদে এ সব দোকানে ভাল বিক্রি হয় বলে জানান ব্যবসায়ীরা।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই বিভাগের আরও খবর
  • © ২০১৪ - ২০২০ সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত | কক্সবাজার আলো .কম
Site Customized By NewsTech.Com