1. litonsaikat@gmail.com : neelsaikat :
  2. shahjahanauh@gmail.com : কক্সবাজার আলো : কক্সবাজার আলো
  3. syedalamtek@gmail.com : syedalam :

রামুতে পুলিশ ডাকাত গুলি বিনিময়, অপহরন:১ দুইলক্ষ টাকা মুক্তিপণ দাবী

  • আপডেটের সময় : রবিবার, ১২ জুলাই, ২০১৫
  • ৩৬ দেখা হয়েছে

রামু প্রতিনিধি :
রামু উপজেলার ক্রাইমজোন নামে পরিচিত ঈদগাঁও-ঈদগড় সড়ক হতে ফের একজনকে অপহরণ করেছে দূর্বৃত্তকারী। জানাযায়,গত শনিবার সকাল সাড়ে সাতটার সময় ঈদগাঁও হতে বাইশারী গামী চাঁদের গাড়ী সড়কের ছনখোলা নামক স্থানে পৌছালে আগে হতে উৎপেতে থাকা ১০-১২ জন অপহরণকারী গাড়ীর গতিরোধ করে অস্ত্রের মুখে জিম্মি করে গর্জনিয়া ইউনিয়নের বড়বিল এলাকার মনজুর এর ছেলে গাড়ী চালক আবদুল আজিজ (২৫) অপহরণ করে গহীন অরণ্যের দিকে নিয়ে যায়।এর অপহরনের খবর এলাকার মধ্যে ছড়িয়ে পড়লে বাইশারী তদন্ত কেন্দ্রের ইনচার্জ আনিসুর রহমান ও ঈদগড় পুলিশ ফাঁড়ির একাদিক সদস্য উক্ত ঘটনাস্থল পরিদর্শন করতে যাওয়ার প্রাক্কালে ঈদগাঁও-ঈদগড় সড়কের ক্রাইম জোন নামে পরিচিত পানের ছরা নামক স্থানে পৌছালে ডাকাত দলের সদস্যরা পুলিশকে লক্ষ করে গুলি ছুড়লে পুলিশ ও পাল্টা গুলি ছুড়ে এক পর্যায়ে ডাকাত দল পিছুহটে অরণ্যের দিকে পালিয়ে যায়।অপহৃত ব্যক্তির পরিবার সূত্রে জানাযায়,এই ঘটনার কিছুক্ষন পর দূর্বৃত্তকারী অপহৃত পরিবারের লোকদের নিকট মোবাইল ফোনে দুই লক্ষ টাকা মুক্তিপণ দাবী করে।মুক্তিপণ না দিলে তাকে মেরে ফেলবে বলে হুমকি দেন।এই বিষয়ে ঈদগাঁও তদন্ত কেন্দ্রের ইনচার্জ মিনহাজ মাহামুদ (ভূইয়া) এর কাছে জানতে চাইলে, তিনি অপহরণের ঘটনার সত্যতা স্বীকার করেন এবং ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেন।চার ঘন্টা ব্যাপী অরণ্যে অভিযান পরিচালনা করার পরে ও অপহৃত ব্যক্তির কোন সন্ধান পাইনি বলে জানান তিনি। যারা এই ধরনের ঘটনার সাথে জড়িত তাদেরকে গ্রেপ্তার করার জন্য অভিযান চালাবে বলে ও জানান তিনি।এই বিষয়ে সহকারী পুলিশ সুপার রাকিবুল হাসান রাসেল এর কাছে জানতে চাইলে তিনি জানান, একের পর এক অপহরণের ঘটনার সাথে কারা জড়িত রয়েছে তা খতিয়ে দেখে আমাদের পক্ষ হতে ব্যবস্থা নেওয়া হবে বলে জানান তিনি।স্থানীয়দের অভিযোগ ঈদগাঁও-ঈদগড় সড়কে গত এক বছরের মধ্যে শতাদিক ডাকাতি ও ত্রিশটির মত অপহরণের ঘটনা ঘটেছে প্রশাসন এই পর্যন্ত ঘটনার সাথে জড়িত কোন অপরাধীকে গ্রেপ্তার করতে পারেনি।অপহৃত ব্যক্তির পরিবারের সদস্যরা মুক্তিপণ দিয়ে একের পর এক ব্যক্তিকে উদ্ধার করছে আর কত অপহরণের ঘটনা ঘটলে প্রশাসন ব্যবস্থা নেবে এখন এটা দেখার অপেক্ষায় স্থানীয়রা।

Please Share This Post in Your Social Media

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই বিভাগের আরও খবর
  • © ২০১৪ - ২০২০ সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত | কক্সবাজার আলো .কম
Site Customized By NewsTech.Com