1. litonsaikat@gmail.com : neelsaikat :
  2. shahjahanauh@gmail.com : কক্সবাজার আলো : কক্সবাজার আলো
  3. syedalamtek@gmail.com : syedalam :

রামুর ঈদগড়-ঈদগাও সড়ক যোগাযোগ বিচ্ছিন্ন : যাতায়াতে দুর্ভোগ

  • আপডেটের সময় : মঙ্গলবার, ১ সেপ্টেম্বর, ২০১৫
  • ১৫ দেখা হয়েছে

রামু প্রতিনিধি :
জনগুরুত্বপূর্ণ ঈদগাঁও-ঈদগড় সড়ক দিয়ে যোগাযোগ বিচ্ছিন্ন হয়ে পড়েছে। এতে করে এ সড়কের লোকজন ও যানবাহন চলাচলে দুর্ভোগ আর দুর্গতিতে পড়েছে। ঈদগাঁও মন্ডল পাড়া ও ব্রীক ফিল্ড সংলগ্ন পৃথক দুটি স্থান অতি বৃষ্টিপাত আর পাহাড়ী ঢলের পানিতে ভেঙ্গে যাওয়ায় সকল ধরনের যান দুই মাস ধরে চলাচল বন্ধ রয়েছে।এবং ঈদগড় হিমছড়ি স্থানে নদির পানিতে এক কিলো মিটার সড়ক তলিয়ে যেতে পারে। ঈদগড় বাসি বড় ধরনের দোর্ভোগের শিকার হতে পারে এলাকার কিছু লোক উক্ত স্থানে কাঠের সাঁকো বসিয়ে স্থানীয় জন প্রতিনিদিদের চোখে লজ্জা দিয়ে লোকজনের অস্থায়ী পারাপারের ব্যবস্থা করেছে। অন্যদিকে সড়কের ভাঙ্গন স্থান দিয়ে ঈদগড় নদীর ওজান থেকে বয়ে আসা পাহাড়ী ঢলের পানি ঢুকে সংলগ্ন এলাকায় ঈদগড় ঈদগাঁও সহ বন্যা দেখা দিয়েছে। ক্ষতিগ্রস্ত এলাকার মধ্যে রয়েছে ঈদগড় চরপাড়া রেনুরকুল ঈদগাঁও  ভোমরিয়াঘোনা, পশ্চিম ভোমরিয়াঘোনা, মন্ডল পাড়া, পাল পাড়া, কানিয়া ছড়া, চৌধুরী পাড়া, দরগাহ পাড়া প্রভৃতি। উক্ত এলাকার কয়েকশ বাড়ি ঘর পানিবন্দী হয়ে পড়েছে। সংশ্লিষ্ট এলাকার লোকজন মানবেতর জীবন যাপন করছেন। এদিকে টানা কয়েকদিনের অঝর বর্ষণে বৃহত্তর ঈদগাঁওর প্রত্যন্ত এলাকায় ও গুরুত্বপূর্ণ প্রতিষ্ঠানে পানি ঢুকে পড়েছে। এরই মধ্যে রয়েছে ঈদগাঁও ইউনিয়ন পরিষদ, ঈদগাঁও প্রাণী সম্পদ কল্যাণ কেন্দ্র, ঈদগাহ আদর্শ উচ্চ বিদ্যালয়, ঈদগাঁও সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়, ঈদগাঁও সমন্বিত প্রতিবন্ধী হোস্টেল, ঈদগাহ হাই স্কুল একাডেমিক ভবন কাম সাইক্লোন শেল্টার,জালালাবাদ স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ কেন্দ্র, ভূমি অফিস ইত্যাদি। এদিকে বৃষ্টির পানিতে বৃহত্তর ঈদগাঁও’র প্রত্যন্ত এলাকা এখনো পানিতে নিমজ্জিত। বাজার সংলগ্ন জাগির পাড়া, তেলি পাড়া, জলদাস পাড়া এবং বৃহত্তর মাইজ পাড়ার শত শত ঘরবাড়ি পানিতে ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। একাধিক মৎস্য প্রজেক্টে পানি ঢুকে বন্যার পানির সাথে একাকার হয়ে গেছে। কেবল কয়েকটি খাবার দোকান ও নিত্যাপন্যর দোকান খোলা থাকলেও ক্রেতা সাধারণের উপস্থিতি খুবই কম। বাজার ঘুরে দেখা গেছে, বৃষ্টি ও বন্যার পানি ঢুকে বাজারের দোকানপাট ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। শিক্ষা প্রতিষ্ঠান ও বাণিজ্যিক প্রতিষ্ঠানের স্বাভাবিক কাজকর্ম চরমভাবে ব্যাহত হচ্ছে। বাজারের অপ্রতুল ও অপরিকল্পিত ড্রেনেজ ব্যবস্থার কারণে সুষ্ঠু পানি নিষ্কাশন সম্ভব হচ্ছে না। বাজার আগত লোকজনকে পোহাতে হচ্ছে চরম দূর্ভোগ। লোকজনের পাশাপাশি সকল ধরনের যান চলাচল সীমিত হয়ে পড়েছে বাজারে।  অল্প কিছু রিকশা-ভ্যান চললেও চালকরা ইচ্ছেমতো ভাড়া আদায় করছে বলে যাত্রীদের অভিযোগ। এদিকে জন প্রতিনিদিদের এই বিষয়ে কোন আগ্রহ না থাকায় দুঃখ প্রকাশ করলেন জাতীয় মানবাধিকার ইউনিটির ঈদগড় ইউনিয়ন শাখার সভাপতি মোঃআবুল কাশেম জানান ঈদগড় বাইশারী বাসীর কপালে মনে হয় আরও দুঃখ আছে সকল কে সচেতন হওয়ার আহবান জানান এবং যুব সমাজকেও এক হওয়ার আহবান জানান

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই বিভাগের আরও খবর
  • © ২০১৪ - ২০২০ সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত | কক্সবাজার আলো .কম
Site Customized By NewsTech.Com