1. litonsaikat@gmail.com : neelsaikat :
  2. shahjahanauh@gmail.com : কক্সবাজার আলো : কক্সবাজার আলো
  3. syedalamtek@gmail.com : syedalam :
  4. bblythe20172018@mail.ru : traceyhowes586 :

রামুর ধেছুয়াপালং উচ্চ বিদ্যালয়ে আবারো চুরি : শিক্ষার্থীদের প্রতিবাদ মিছিল ও সমাবেশ অনুষ্ঠিত

  • আপডেটের সময় : সোমবার, ৭ সেপ্টেম্বর, ২০১৫
  • ৩২ দেখা হয়েছে

সোয়েব সাঈদ, রামু :
রামু উপজেলার খুনিয়াপালং ইউনিয়নের ধেছুয়াপালং উচ্চ বিদ্যালয়ে আবারো চুরির ঘটনা ঘটেছে। সংঘবদ্ধ চোর বিদ্যালয়ের ৯টি বেঞ্চ, বেঞ্চ তৈরীর জন্য রাখা গাছ সহ বেশ কিছু মালামাল লুট করেছে। একের পর এক চুরির ঘটনায় বিক্ষুব্দ শিক্ষার্থীরা এলাকায় বিক্ষোভ মিছিল ও সমাবেশ করেছে।
বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মো. ওসমান গনি জানিয়েছেন, গত শুক্রবার সাপ্তাহিক এবং শনিবার জন্মাষ্টমী উপলক্ষে বিদ্যালয় দুদি বন্ধ ছিলো। গতকাল রবিবার শিক্ষক এবং শিক্ষার্থীরা বিদ্যালয়ে এসে ভাংচুরের দৃশ্য দেখেন। পরে শ্রেণি কক্ষে গিয়ে দেখেন ৯টি বেঞ্চ এবং বেঞ্চ তৈরীর জন্য রাখা গাছ সহ বেশ কিছু মালামাল লুট হয়েছে। বিদ্যালয়ের দপ্তরী আবুল বশর জানান, সকালে এসে দেখেন বিদ্যালয়ের কয়েকটি শ্রেণি কক্ষের তালা, হাতল ছিলো না।
স্থানীয়দের ধারনা বিদ্যালয়ের জমি নিয়ে বিরোধের জের ধরে এলাকার একটি প্রভাবশালী মহল ধারাবাহিক ষড়যন্ত্রের অংশ হিসেবে পরিকল্পিতভাবে এ চুরির ঘটনা ঘটিয়েছে। ৬ সেপেট্মবর (রবিবার) দুপুরে বিদ্যালয় ছুটির পর ছাত্র-ছাত্রীরা নিজেদের উদ্যোগে রামু-মরিচ্যা সড়কে একটি বিক্ষোভ মিছিল এবং পৃথক সমাবেশ করে।
বড়ডেপা ও বানিয়া পাড়া ষ্টেশনে আয়োজিত পৃথক প্রতিবাদ সমাবেশে শিক্ষার্থীরা বলেন, যে কোন বিষয় নিয়ে দ্বন্ধ থাকতেই পারে। তাই বলে বিদ্যালয়ে একের পর এক চুরি, মল নিক্ষেপ, শিক্ষকদের লাঞ্চিত করার ঘটনা মেনে নেয়া যায়না। এসব অপকর্মের ফলে বিদ্যালয়ের সুনাম হানি এবং শিক্ষার্থীদের পাঠদান চরমভাবে ব্যাহত হচ্ছে। তাই এসব অপকর্মে জড়িতদের অবিলম্বে গ্রেফতার করে আইনের আওতায় আনতে হবে। অপরাধিদের কবল থেকে বিদ্যালয়টিকে রক্ষায় শিক্ষার্থীরা সাংসদ কমল এবং উপজেলা চেয়ারম্যান সহ প্রশাসনের হস্তক্ষেপ কামনা করেন। সমাবেশে দশম শ্রেণির ছাত্র আমানত উল্লাহ, হেলাল উদ্দিন, রফিকুল ইসলাম, অষ্টম শ্রেণির ছাত্র সাইফুল ইসলাম ও মঈন উদ্দিন প্রমূখ বক্তব্য রাখেন।

বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মো. ওসমান গনি জানিয়েছেন, চুরির ঘটনায় বিদ্যালয়ের অন্যান্য শিক্ষকদের সাথে পরামর্শ করে থানা এবং উপজেলা প্রশাসনের কাছে লিখিত অভিযোগ দেয়া হবে।

এই বিভাগের আরও খবর

  • © ২০১৪ - ২০২০ সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত | কক্সবাজার আলো .কম
Site Customized By NewsTech.Com