1. litonsaikat@gmail.com : neelsaikat :
  2. shahjahanauh@gmail.com : কক্সবাজার আলো : কক্সবাজার আলো
  3. syedalamtek@gmail.com : syedalam :
শিরোনাম :
হ্নীলায় টেকনাফ সাংবাদিক সমিতি (টেসাস) এর কার্যালয় উদ্বোধন আমি মরে গেলে আমার সব সৃষ্টি ধ্বংস করো- কবীর সুমন রাত ৮টায় এল ক্লাসিকো যুদ্ধে বার্সা-রিয়াল করোনায় আরও ১৯ মৃত্যু, নতুন শনাক্ত ১০৯৪ সাংবাদিকনেতা গাজীর মুক্তির দাবিতে কক্সবাজারে মানববন্ধন, বিক্ষোভ মিছিল ও সমাবেশ কক্সবাজার প্রধান সড়ক বিএস মতে সড়ক বিভাগের অধিগ্রহণকৃত জমিতেই নির্মিত হবে ব্যারিস্টার রফিক-উল হকের মৃত্যুতে রাষ্ট্রপতি, প্রধানমন্ত্রী ও প্রধান বিচারপতির শোক দুঃসময়ে আইনি লড়াইয়ে এগিয়ে আসেন ব্যারিস্টার রফিক-উল হক: প্রধানমন্ত্রী সাবেক অ্যাটর্নি জেনারেল ব্যারিস্টার রফিক-উল হক আর নেই টেকনাফ পৌর-ছাত্রলীগের বিশেষ জরুরী সভা অনুষ্ঠিত

সামরিক বাহিনীর মসজিদ গুলোতে নিরাপত্তা জোরদার

  • আপডেটের সময় : রবিবার, ২৫ সেপ্টেম্বর, ২০১৬
  • ১৭ দেখা হয়েছে

জঙ্গি তৎপরতা থেকে সতর্ক থাকতে সামরিক বাহিনীর মসজিদগুলো নজরদারি করা হচ্ছে। পাশাপাশি দৃশ্যমান নানামুখী নিরাপত্তার ব্যবস্থা নেয়া হয়েছে। এর মধ্যে রয়েছে আর্চওয়ে স্থাপন, মেটাল ডিটেক্টর দিয়ে তল্লাশি ও তল্লাশি দল নিয়োগ। সংসদীয় কমিটিকে দেয়া প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয়ের এক প্রতিবেদনে এ তথ্য জানানো হয়েছে। এর আগে সংসদীয় কমিটি তাদের সুপারিশে বলে, দেশের মসজিদে তালিমের নামে কি ধরনের কার্যক্রম সংগঠিত হয় তা অত্যন্ত সতর্কতার সঙ্গে পর্যবেক্ষণ এবং এ ধরনের তৎপরতায় যাতে সামরিক বাহিনীর সদস্যদের সন্তানরা জড়িয়ে না যায় সেদিকে প্রখর দৃষ্টি রাখতে ব্যবস্থা নেয়ার সুপারিশ করা হয়। প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয় বিষয়ক সংসদীয় কমিটির ১৯তম বৈঠকে ওই সুপারিশ করা হয়। পরে প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয়ের উপ-সচিব মুহম্মদ আশরাফ আলী ফারুক স্বাক্ষরিত প্রতিবেদনে সেনাবাহিনী, নৌবাহিনী ও বিমানবাহিনী আলাদাভাবে তাদের পদক্ষেপ তুলে ধরে। এ প্রসঙ্গে সেনাবাহিনী জানিয়েছে, বাংলাদেশ সেনাবাহিনী ইতিপূর্বে ধর্মীয় রীতি পালনের ক্ষেত্রে বিভিন্ন সময়ে নির্দেশনা প্রদান করেছে। এছাড়াও জঙ্গিবাদ, উগ্র জিহাদী মতবাদ, গণতন্ত্র ও সরকারবিরোধী কার্যকলাপ প্রসঙ্গে সচেতনতা এবং সাম্প্রতিককালে সংঘটিত জঙ্গি হামলা ও সেনানিবাসে প্রাসঙ্গিক নিরাপত্তা ব্যবস্থা জোরদারকরণ প্রসঙ্গে ইতিমধ্যে সংশ্লিষ্ট সকলকে প্রয়োজনীয় দিক-নির্দেশনা প্রদান করা হয়েছে। একই প্রসঙ্গে নৌবাহিনী জানিয়েছে, বাংলাদেশ নৌবাহিনীর সকল মসজিদসমূহে নজরদারি অব্যাহত রয়েছে। নৌবাহিনীর বিভিন্ন ঘাঁটির অভ্যন্তরে অবস্থিত এবং নৌবাহিনী দ্বারা পরিচালিত সকল মসজিদে যথাযথ দৃশ্যমান নিরাপত্তা ব্যবস্থা ইতিমধ্যে গ্রহণ করা হয়েছে। মসজিদের প্রবেশমুখে আর্চওয়ে স্থাপন, মেটাল ডিটেক্টর দিয়ে তল্লাশি এবং তল্লাশি দল নিয়োগ করা হয়েছে। এছাড়াও মসজিদে কোনো প্রকার তালিমের আয়োজন করা হয় না। নৌবাহিনী জানিয়েছে, সকল মসজিদে জুমার নামাজে ইসলামী ফাউন্ডেশন বাংলাদেশ থেকে পাওয়া খুতবা বয়ান করা হচ্ছে। যেহেতু মসজিদগুলো ঘাঁটির অভ্যন্তরে সুরক্ষিত এলাকায় অবস্থিত ফলে বাহির থেকে আগত মুসল্লিরা সকল প্রকার তল্লাশির মাধ্যমে মসজিদে প্রবেশ করতে পারে। এ ব্যাপারে নিয়মিত নজরদারিসহ পর্যবেক্ষণ এবং তল্লাশি অব্যাহত আছে। এদিকে বিমানবাহিনী জানিয়েছে, বাংলাদেশ বিমান বাহিনীর বিভিন্ন ঘাঁটি/ইউনিটের আওতাধীন সকল মসজিদসমূহের সকল কার্যক্রম সতর্কতার সঙ্গে পর্যবেক্ষণ এবং এ ধরনের কার্যক্রমের আড়ালে বিমানবাহিনীর সদস্যগণ ও তাদের সন্তানরা যাতে কোনো অপতৎপরতায় জড়িয়ে না পড়ে সেদিকে প্রখর দৃষ্টি রাখার ব্যবস্থা গ্রহণ করা হয়েছে। এদিকে গতকাল সংসদ সচিবালয়ে প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয় বিষয়ক সংসদীয় কমিটির বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়। এ নিয়ে সংসদ সচিবালয়ের এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়, বৈঠকে ডিজিএফআই’র কার্যক্রম আরো যুগোপযোগী, গতিশীল, কার্যকরী এবং আধুনিকায়নের লক্ষ্যে ফলপ্রসূ গোয়েন্দা প্রশিক্ষণ প্রদান এবং সন্দেহজনক অনলাইন আর্থিক লেনদেন মনিটরিং এর সুপারিশ করা হয়। এছাড়া কমিটি দেশের অভ্যন্তরে ও ক্রসবর্ডার সিকিউরিটি জোরদার করে সন্ত্রাস ও জঙ্গিবাদ নির্মূলে দেশের নিরাপত্তা সংস্থাগুলোকে আরো বেশি তৎপর হওয়ার সুপারিশ করে। বৈঠকে সাম্প্রতিক সময়ে দেশে সংঘটিত সন্ত্রাসী হামলার ‘মাস্টার মাইন্ডদের’ চিহ্নিত করে আইনের আওতায় এনে শাস্তি নিশ্চিত করার সুপারিশ করা হয় বলেও বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়। সুবিদ আলী ভূইয়ার সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত বৈঠকে কমিটির সদস্য মো. ইলিয়াস আলী মোল্লাহ, মাহমুদ উস সামাদ চৌধুরী, হোসনে আরা বেগম অংশ নেন। এছাড়া সশস্ত্র বাহিনীর সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তারা অংশ নেন।

এ প্রসঙ্গে আন্তঃবাহিনী জনসংযোগ পরিদপ্তর (আইএসপিআর) পরিচালক লে. কর্নেল রাশিদুল হাসান গতকাল টেলিফোনে মানবজমিনকে বলেন, ক্যান্টনমেন্টের সমস্ত জায়গায় নিরাপত্তা ব্যবস্থা নেয়া হয়েছে। এরই অংশ হিসেবে মসজিদগুলোতে নিরাপত্তা জোরদার করা হয়েছে। তিনি বলেন, নামাজের প্রত্যেক ওয়াক্তে তল্লাশি করে মসজিদে প্রবেশের ব্যবস্থা রাখা হয়েছে। শুক্রবার জুমআর খুতবা নিয়মিত মনিটর করা হচ্ছে। দেশের সার্বিক পরিস্থিতি বিবেচনা করে এ ধরনের সতর্কতামূলক ব্যবস্থা নেয়া হয়েছে।

উৎসঃ   মানব জমিন

Please Share This Post in Your Social Media

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই বিভাগের আরও খবর
  • © ২০১৪ - ২০২০ সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত | কক্সবাজার আলো .কম
Site Customized By NewsTech.Com