1. litonsaikat@gmail.com : neelsaikat :
  2. shahjahanauh@gmail.com : কক্সবাজার আলো : কক্সবাজার আলো
  3. syedalamtek@gmail.com : syedalam :
  4. bblythe20172018@mail.ru : traceyhowes586 :

সীমান্তে বন্দুকযুদ্ধে ইয়াবা ব্যবসায়ী নিহত, ইয়াবা ও অস্ত্র উদ্ধার

  • আপডেটের সময় : শুক্রবার, ২২ জানুয়ারী, ২০২১
  • ১৬৩ দেখা হয়েছে

নিজস্ব প্রতিবেদক :
বান্দরবানের নাইক্ষ্যংছড়ি সীমান্তে বিজিবি সদস্যদের সাথে বন্দুকযুদ্ধে একজন নিহত হয়েছে। এসময় দুই বিজিবি সদস্য আহত হয়েছে। ঘটনাস্থল থেকে ৫০ হাজার পিস ইয়াবা ও অস্ত্র উদ্ধার করা হয়েছে।

নিহত ব্যক্তি হচ্ছে উখিয়ার কুতুপালং রোহিঙ্গা ক্যাম্পের-১, ব্লক-এ/৭, এর ওয়াদুল হক এর ছেলে আব্দুর রহিম (২৫)।

কক্সবাজার ৩৪ বিজিবির অধিনায়ক লে.কর্ণেল আলী হায়দার আজাদ আহমেদ জানান, ২২ জানুয়ারি কক্সবাজার ব্যাটালিয়ন (৩৪ বিজিবি) এর বাইশফাঁড়ী বিওপি’র সদস্যগণ গোপন সংবাদের ভিত্তিতে জানতে পারে, কতিপয় ইয়াবা ব্যবসায়ী বিপুল পরিমাণ ইয়াবা নিয়ে মায়ানমার হতে বাংলাদেশে প্রবেশ করতে পারে।
এমন সংবাদের ভিত্তিতে বাইশফাঁড়ী বিওপি’র দুইটি চৌকস আভিযানিক টহল দল সীমান্ত পিলার-৩৬/২এস হতে আনুমানিক ১০০ গজ বাংলাদেশের অভ্যন্তরে এবং বান্দরবান জেলার নাইক্ষ্যংছড়ি উপজেলার ৩নং ঘুমঘুম ইউনিয়নের দক্ষিণ বাইশফাঁড়ী নতুন ব্রীজ হতে আনুমানিক ১৫ গজ পূর্ব দিকে রাস্তার ঢালুতে অবস্থান গ্রহণ করে।

পরবর্তীতে রাত আনুমানিক ০৩৪৫ ঘটিকায় ৮/১০ জনের ১টি দল পাহাড়ী এলাকা দিয়ে বাংলাদেশের দিকে আসতে দেখে তাদেরকে চ্যালেঞ্জ করলে তারা দুইভাগে বিভক্ত হয়ে তাদের হাতে থাকা অস্ত্র-সস্ত্র দিয়ে টহল দলকে লক্ষ্য করে এলোপাথাড়ি গুলি বর্ষণ শুরু করে।
এ সময় টহল দল তাদের জান-মাল রক্ষার্থে পাল্টা গুলি করে।
এক পর্যায়ে অজ্ঞাতনামা ইয়াবা ব্যবসায়ীরা পাহাড়ী জঙ্গলের মধ্য দিয়ে মায়ানমারের ভিতরে পালিয়ে যায়।

পরবর্তীতে টহল দল ঘটনাস্থলে উপস্থিত হলে অজ্ঞাতনামা ১ জন ব্যক্তিকে গুলিবিদ্ধ হয়ে গুরুতর আহত অবস্থায় এবং তার পার্শ্বে ইয়াবা সদৃশ বস্তু ও দেশীয় তৈরী দুইনলা বন্দুক পড়ে থাকতে দেখে।
পরবর্তীতে আহত ব্যক্তির জীবন রক্ষার্থে চিকিৎসার জন্য উখিয়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন।

উক্ত গোলাগুলির ঘটনায় ২ জন বিজিবি সদস্য আহত হয় এবং আহত বিজিবি সদস্যদের উখিয়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স হতে প্রাথমিক চিকিৎসা প্রদান করেন।
এ ব্যাপারে আইনানুগ কার্যক্রম প্রক্রিয়াধীন রয়েছে।
ঘটনাস্থল হতে ৫০ হাজার পিস বার্মিজ ইয়াবা, দেশীয় তৈরী দুইনলা বন্দুক – ০১টি, বন্দুকের কার্তুজ – ০৪ রাউন্ড উদ্ধার করা হয়।

উল্লেখ্য, কক্সবাজার ব্যাটালিয়ন (৩৪ বিজিবি) এর দায়িত্বপূর্ণ এলাকায় গত ০১ জানুয়ারি ২০২০ হতে অদ্যাবধি পর্যন্ত চোরাচালান ও মাদক বিরোধী অভিযান পরিচালনা করে বিজিবি টহলদল কর্তৃক ৩৬,৭৪,০০১ পিস বার্মিজ ইয়াবাসহ ৩২৩ জন আসামী আটক করে। যার আনুমানিক মূল্য ১১০,২২,০০,৩০০/- (একশত দশ কোটি বাইশ লক্ষ তিনশত) টাকা ।

এই বিভাগের আরও খবর

  • © ২০১৪ - ২০২০ সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত | কক্সবাজার আলো .কম
Site Customized By NewsTech.Com