উপজেলাকক্সবাজাররাজনীতিলীড

সেন্টমার্টিনে আ,লীগের সম্মেলনে কারচুপি, ২ সভাপতি প্রার্থীর ভোট বর্জন

54views

হাফেজ মুহাম্মদ কাশেম :
২ জন সভাপতি পদপ্রার্থীর ভোট বর্জনের মাধ্যমে সেন্টমার্টিনদ্বীপে ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সম্মেলন সম্পন্ন হয়েছে। সভাপতি প্রার্থী ২ জন হলেন সেন্টমার্টিনদ্বীপের একমাত্র মুক্তিযোদ্ধা ও সেন্টমার্টিনদ্বীপে ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের প্রতিষ্টাতা সভাপতি বর্তমানে ৬নং ওয়ার্ডের মেম্বার হাজী আবদুস সালাম ও হাফেজ মোঃ সালাউদ্দিন কাদের শামীম। অভিযোগে যথাসময়ে কাউন্সিলারদের তালিকা না দেওয়া, কাউন্সিলারদের ভোটার তালিকায় অনিয়ম, তালিকায় বিএনপির লোক, মৃত এবং ভোটার তালিকা অবৈধ বলে দাবী করা হয়েছে। এ ব্যাপারে লিখিত অভিযোগ করা হয়েছে।
সেন্টমার্টিনদ্বীপের একমাত্র মুক্তিযোদ্ধা ও সেন্টমার্টিনদ্বীপে ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের প্রতিষ্টাতা সভাপতি বর্তমানে ৬নং ওয়ার্ডের মেম্বার হাজী আবদুস সালাম বলেন, ‘২৬ নভেম্বর ছিল সেন্টমার্টিনদ্বীপ ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সম্মেলন। কিন্ত অতীব দুঃখের বিষয় গোপনে কাউন্সিলারদের তালিকা তৈরী করা হয়েছে। ২৩৬ জনের কাউন্সিলার এবং ১৫ জন কো-অপ্ট সদস্যদের তালিকায় অনেকে বর্তমানে বিএনপি ও যুবদলের পদবীধারী লোকজন, মৃত ও নিকট আতœীয়স্বজন। কাউন্সিলারদের তালিকা আগে আমাদেরকে দেয়া হয়নি। ভোট গ্রহণের মাত্র ৬ ঘন্টা আগে আমরা তালিকা হাতে পেয়ে তা দেখে হতভম্ব হয়ে পড়েছি। কাউন্সিলার তালিকার ২২ নম্বর ক্রমিকের মোঃ সালাম বিএনপি, ৩৪ নম্বর ক্রমিকের আবদুল আলী মৃত, ৩৯ নম্বর ক্রমিকের হাজী মোঃ ছালেহ ও ৪০ নম্বর ক্রমিকের আবদুর রহমান মেম্বার বিএনপি নেতা, ৪৮ নম্বর ক্রমিকের সুলতান আহমদ বিএনপি, ৫০ নম্বর ক্রমিকের হাজী আবুল কালাম মৃত, ৫২ নম্বর ক্রমিকের কবির আহমদ বিএনপি, ৫৯ নম্বর ক্রমিকের কালু মিয়া ও ৬৪ নম্বর ক্রমিকের আবদুস সোবহান মৃত, ৬৫ নম্বর ক্রমিকের মোঃ শরীফ বিএনপি, ৭১ নম্বর ক্রমিকের জসিম উদ্দিন সরকারী চাকরীজীবি, ৮৬ নম্বর ক্রমিকের জাকের আহমদ বিএনপি, ৮৯ নম্বর ক্রমিকের মোঃ শরীফ বিএনপি, ৯০ নম্বর ক্রমিকের আবদুস শুকুর যুবদল, ৯৭ নম্বর ক্রমিকের দিল মোহাম্মদ বিএনপি, ১০১ নম্বর ক্রমিকের হোছন আহমদ যুবদল, ১০৭ নম্বর ক্রমিকের কোরবান আলী যুবদল, ১৩০ নম্বর ক্রমিকের মোঃ ছিদ্দিক বিএনপি, ১৩৩ নম্বর ক্রমিকের মোঃ রহিম বিএনপি, ১৪৩ নম্বর ক্রমিকের জাফর আলম যুবদল, ১৬৮ নম্বর ক্রমিকের মৌলভী ফিরোজ আহমদ বিএনপি, ১৬৯ নম্বর ক্রমিকের জোবাইদা খাতুন বিএনপি, ১৭৭ নম্বর ক্রমিকের নুরুল আলম যুবদল, ১৭৮ নম্বর ক্রমিকের ইয়াসমিন আক্তার বিএনপি, ১৭৯ নম্বর ক্রমিকের আবু বক্কর ছিদ্দিক যুবদল, ১৮০ নম্বর ক্রমিকের হামিদ হোছন যুবদলের ওয়ার্ড সভাপতি, ২০৭ নম্বর ক্রমিকের নুরুল আলম যুবদল নেতা, ২১৮ নম্বর ক্রমিকের মোঃ উল্লাহ বিএনপি, ২৩১ নম্বর ক্রমিকের আবদুল হামিদ বিএনপি, ২৩৩ নম্বর ক্রমিকের মাহবুব উল্লাহ বিএনপি যুবদল। কাউন্সিলারদের তালিকা নিয়ে ষড়যন্ত্রের বিষয়টি আঁচ করতে পেরে আগেই কক্সবাজার জেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি ও সেক্রেটারী, টেকনাফ উপজেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি ও সেক্রেটারী, সাবেক এমপি আলহাজ¦ আবদুর রহমান বদি সিআইপিকে দেয়া হয়েছিল। কিন্ত তাঁরা আমলে নেননি। আমাদের অভিযোগ আমলে না নিয়ে বিএনপি, যুবদল, পরষ্পর নিকট আতœীয়-স্বজন ও মৃত কাউন্সিলারদের অভিযুক্ত তালিকা নিয়ে একতরফাভাবে মুজিবুর রহমানকে সভাপতি ও আপন ভাতিজা জাহিদ হোসেনকে সাধারণ সম্পাদক করে কমিটি ঘোষণা করা হয়েছে। যা অত্যন্ত দুঃখজনক। বর্তমানে পুরো দ্বীপটিই পারিবারিক লীগে পরিণত হয়েছে। যুবলীগের সভাপতি হচ্ছে আপন ভাতিজা আক্তার কামাল ও সাধারণ সম্পাদক আপন ভাগিনা সুলতান আহমদ। ছাত্রলীগের সভাপতি আপন মামাত ভাই আবদুল্লাহ। আমরা এ ব্যাপারে সুষ্ট তদন্ত করে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণের দাবী জানাচ্ছি। ##

Leave a Response