1. litonsaikat@gmail.com : neelsaikat :
  2. shahjahanauh@gmail.com : কক্সবাজার আলো : কক্সবাজার আলো
  3. syedalamtek@gmail.com : syedalam :
  4. bblythe20172018@mail.ru : traceyhowes586 :

ঈদগাঁওতে শেষ মুহুর্তে দর্জি পরিবারে নির্ঘুম রাত কাটাচ্ছে

  • আপডেট : সোমবার, ১৩ জুলাই, ২০১৫
  • ৯৭ দেখা হয়েছে

এম আবু হেনা সাগর, ঈদগাঁও :
ঈদ যতই ঘনিয়ে আসছে, ততই দর্জি পরিবারে চলছে মহাব্যস্ততার ধুম। আবার অনেক দর্জি যথাসময়ে ক্রেতাদের মালামাল ডেলিভারী দেওয়ার লক্ষ্যে নির্ঘুম রাত কাটাচ্ছে। সে সাথে পাড়া-মহল্লার মেয়েরাও কাপড় তৈরির কাজে কর্মব্যস্ত হয়ে পড়েছে। জানা যায়, ঈদকে সামনে রেখে কক্সবাজার সদর উপজেলার বহুল আলোচিত বাণিজ্যিক কেন্দ্র ঈদগাঁও বাজারের সবকটি মার্কেটের বিপনী বিতানগুলো জমে উঠার পাশাপাশি প্রায় তিন শতাধিকের মত টেইলার্সে ক্রেতাদের ভিড় কিন্তু কম নয়। সমান তালে চলছে টেইলারিং ব্যবসা। বৃহত্তর ঈদগাঁও তথা জালালাবাদ, ইসলামাবাদ, ইসলামপুর, পোকখালী, চৌফলদন্ডীসহ ঈদগাঁওয়ের প্রত্যন্ত গ্রামগঞ্জের ক্রেতারা টেইলার্স থেকে তাদের পছন্দনীয় কাপড় ক্রয় করে টেকসইভাবে বা তাদের গায়ে মানায় এমন শার্ট-প্যান্ট তৈরি করতে দেখা যাচ্ছে। আবার কিছু কিছু ক্রেতা টেইলার্সমুখী হলেও অনেক ক্রেতা বিপনী বিতানমুখী হতে চোখে পড়ছে। ঝর ঝর শব্দে গভীর রাত পর্যন্ত ঈদগাঁও বাজারের নানা অলিগলি কিংবা ভাড়াকৃত দোকানে ক্রেতা সাধারণের কাপড় তৈরির কাজে মহা ব্যস্ততায় নির্ঘুমভাবে দিন-রাত পার করছে। এতে ডিজাইনেবল শার্ট-প্যান্ট তৈরিতে দর্জি কারিগরদের কর্মব্যস্ততার শেষ নেই বললেই চলে। পাশাপাশি এ সেলাই কাজে মুখরিত করে তুলছে বৃহত্তর এলাকার পাড়া-মহল্লার মেয়েরাও। থেমে নেই পুরুষ কারিগরদের পাশাপাশি মহিলা কারিগররাও। নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক কয়েজ দর্জি কারিগরের সাথে আজকের কক্সবাজারের এ প্রতিনিধির আলাপ হলে জানা যায়, তাদের এ কর্মব্যস্ততার ধুম চাঁদনি রাত পর্যন্ত অব্যাহত থাকবে বলে জানান। আবার বাজারের মসজিদ মার্কের্টের সৌখিন স্বত্ত্বাধিকারী এম. নুরুল আবছারের মতে, ঈদের শেষ মুহুর্ত হলেও টেইলার্সের ব্যবসা মোটামুটিভাবে চলছে বলে জানান।

সংবাদটি শেয়ার করুন

এই বিভাগের আরো খবর
© ২০১৪ - ২০২১ সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত।
Site Customized By NewsTech.Com