বৃহস্পতিবার , ৩০ জুলাই ২০১৫ | ১৬ই মাঘ, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ
  1. অপরাধ
  2. অর্থনীতি
  3. আইন আদালত
  4. আন্তর্জাতিক
  5. আরো
  6. ইসলাম
  7. এক্সক্লুসিভ
  8. কক্সবাজার
  9. করোনাভাইরাস
  10. খেলাধুলা
  11. জাতীয়
  12. জেলা-উপজেলা
  13. পর্যটন
  14. প্রবাস
  15. বিজ্ঞান ও তথ্যপ্রযুক্তি

ঈদগড়-ঈদগাও যোগাযোগ বিচ্ছিন্ন : লোকজন চরম দুর্ভোগে

প্রতিবেদক
কক্সবাজার আলো
জুলাই ৩০, ২০১৫ ৬:৩২ অপরাহ্ণ

বাঁশের সাকো তৈরি করে লোকজনের কাছ হতে দৈনিক নগদ অর্থ আদায়
এম আবু হেনা সাগর, ঈদগাঁও :
থেমে থেমে বৃষ্টিপাত আর পাহাড়ী ঢলে কক্সবাজার সদর উপজেলার ঈদগাঁও আর রামু উপজেলা ঈদগড় সড়ক যোগাযোগ বিছিন্ন হয়ে পড়েছে। যার ফলে ঈদগাঁও-ঈদগড়-বাইশারী তিন ইউনিয়নের লক্ষাধিক মানুষ চরম দুর্ভোগে পড়েছে। পাশাপাশি গত ২/১ দিন ধরে বিদ্যুৎ সংযোগ বিচ্ছিন্ন হওয়ায় রাইছ মিল সহ বিভিন্ন ব্যাবসা প্রতিষ্টান বন্ধ রয়েছে। জানা যায়, ঈদগাঁও-ঈদগড়-বাইশারী সড়কের একাধিক স্থান পানিতে তলিয়ে গিয়ে হাবুডুবু অবস্থায় রয়েছে। প্রশাসনিক কোন সহযোগিতা না থাকায় ভোমরিয়াঘোনা এলাকার কিছু অসাধু ব্যক্তি সিন্ডিকেট করে বাঁশের সাকো তৈরি করে লোকজনের কাছ হতে হাতিয়ে নিচ্ছে দৈনিক নগদ টাকা। উক্ত সড়কের ভাঙ্গনকে কেন্দ্র করে ঈদগড় ও বাইশারী বাজারে নিত্যপন্যের বাজারে আগুন লেগেছে। প্রতিদিন লাফিয়ে লাফিয়ে বাড়ছে কাঁচা পন্যের মূল্য। অপরদিকে সড়ক ভাঙ্গনের আগে ঈদগাঁও থেকে ঈদগড় বাজারে আনতে বস্তা প্রতি ভাড়া দিতে হত ২০ টাকা কিন্তু ভাঙ্গনের পর হতে বস্তা প্রতি লেবার ও গাড়ীভাড়া দিতে হচ্ছে ১৫০ টাকার বেশী। সড়কে চলাচল কৃত যাত্রীরা জানান, ঈদগড় থেকে ঈদগাঁও যেতে গাড়ীভাড়া দিতে হতে জনপ্রতি মাত্র ২০টাকা কিন্তু সড়ক বিছিন্ন হওয়ার পর হতে ঈদগড় থেকে ঈদগাঁও যেতে গাড়ী ভাড়া গুনতে হচ্ছে ৬০ টাকা করে। এছাড়া ও পাঁয়ে হেঁটে যেতে হচ্ছে দুই কিলোমিটার রাস্তা।স্থানীয় এলাকাবাসীর অভিযোগ, প্রতিবছর ঈদগাঁও-ঈদগড় সড়কের ভোমরিয়া ঘোনা এলাকার এই স্থানটি বর্ষাকাল আসলে ভেঙ্গে গিয়ে, দুর্ভোগ পোহাতে হয় সাধারন লোকজনকে। এই ভাঙ্গনকে কেন্দ্র করে সাকো তৈরি করে কিছু লোক পথচারীদের কাছ হতে টাকা আদায় করছে। সড়কটির এই স্থানটি বর্ষাকালে নদীর পানি সড়কের উপর দিয়ে প্লাবিত হয়ে ভাঙ্গনের সৃষ্টি হয়।এর অন্যতম কারন হচ্ছে গত ছয় বছরের অধিক সময় ধরে নদীর বেড়ীবাঁধ ভেঙ্গে গেছে সেখান হতে পানি এসে এই অবস্থার সৃষ্টি হলে ও পানি উন্নয়ন বোর্ড এই পর্যন্ত কোন ধরনের সংস্কারের পদক্ষেপ নেইনি। তার সাথে গতকাল বৃষ্টিপাত ও দমকা হাওয়ায় ঈদগড়ের প্রত্যন্ত গ্রামগঞ্জে ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে বলেও জানা যায়। বর্তমানে সড়কের এমন নাজুক অবস্থা সৃষ্টি হয়েছে যে, ঈদগড় থেকে ঈদগাঁও যেতে ৩০ মিনিটের পথ এখন যেতে এক ঘন্টার অধিক সময় অতিবাহিত হচ্ছে। তাই সাধারন পথচারীদের দাবী, সড়ক কতৃপক্ষ যাতে এই সড়ক সংস্কারের দ্রুত পদক্ষেপ নেয়। অন্যথায় প্রতিবছর বর্ষা মৌসুমে ঈদগাঁও, ঈদগড় ও বাইশারী এলাকার চলাচলরত লোকজনকে মরণ দশায় ভুগতে হবে।

সর্বশেষ - অপরাধ

আপনার জন্য নির্বাচিত

শুমারিতে অন্তর্ভুক্ত হতে উদ্বুদ্ধকরণ সভা ও সাংস্কৃতিক প্রচারণা

‘অর্থআত্মসাতের বিচারের ভয়ে খেলাফত দখলে নিতে চায় মিয়াজী’

সেন্টমার্টিন ইউনিয়ন আ.লীগের নির্বাচিত সাধারণ সম্পাদককে বাদ দিয়ে পূর্নাঙ্গ কমিটি ঘোষনা, নেতাকর্মিদের ক্ষোভ

‘গৌতম বুদ্ধের কেশধাতু’ দেখে অভিভূত রাষ্ট্রপতি

রপ্তানিযোগ্য শুটকি-বালাচাও উৎপাদন করছে কক্সবাজার শপ

করোনা : আরও সোয়া ৬ কোটি টাকা, সাড়ে ৯ হাজার টন চাল বরাদ্দ

‘কিরে কোটা আন্দোলন করে কত টাকা পেলি?’আয় তোকে আন্দোলন দেখাই।’

কক্সবাজারে ডিসি সাহেবের বলীখেলা ও বৈশাখী মেলা ২-৪ মে

রোহিঙ্গা ইস্যুতে গাম্বিয়ার পাশে কানাডা-নেদারল্যান্ডস

ইতালির বিপক্ষে দাপুটে জয়, চ্যাম্পিয়নদের চ্যাম্পিয়ন আর্জেন্টিনা