রবিবার , ২৬ জুলাই ২০১৫ | ২৯শে শ্রাবণ, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ
  1. অপরাধ
  2. অর্থনীতি
  3. আইন আদালত
  4. আন্তর্জাতিক
  5. আরো
  6. ইসলাম
  7. এক্সক্লুসিভ
  8. কক্সবাজার
  9. করোনাভাইরাস
  10. খেলাধুলা
  11. জাতীয়
  12. জেলা-উপজেলা
  13. পর্যটন
  14. প্রবাস
  15. বিজ্ঞান ও তথ্যপ্রযুক্তি

দুই সপ্তাহের ব্যবধানে আবারো বন্যার কবলে পেকুয়ার মানুষ

প্রতিবেদক
কক্সবাজার আলো
জুলাই ২৬, ২০১৫ ৭:১৯ অপরাহ্ণ

ইমরান হোসাইন, পেকুয়া :
টানা বৃষ্টি ও পাহাড়ি ঢলের পানিতে ফের পেকুয়ার ১৮গ্রামের মানুষ বন্যার পানিতে প্লাবিত হয়ে পড়েছে। এতে কমপক্ষে বিশ হাজার মানুষ পানিবন্দি হয়ে পড়েছে। ভেসে গেছে ক্ষেত খামার। ভেঙে পড়েছে অনেক বসতঘর। পেকুয়া সদর ইউনিয়নের পূর্বমেহেরনামা রাবারড্যাম সংলগ্ন এলাকায় পাউবোর ভেঙ্গে যাওয়া বেড়িবাঁধ গত দই সপ্তাহের মধ্যেও নির্মিত না হওয়ায় এবং টানা বৃষ্টিতে পেকুয়া সদর ইউনিয়নের নন্দীরপাড়া, হরিণাফাড়ি, সিরাদিয়া, জালিয়াখালী, পূর্বমেহেরনামা, বিলহাচুড়া, বলিরপাড়া, মোরারপাড়া, সৈকতপাড়া, উত্তরমেহেরনামা, ছৈরভাঙ্গা ও বাজারপাড়া এলাকার অরক্ষিত বেড়িবাঁধ দিয়ে বন্যার পানি ঢুকে ব্যাপকভাবে প্লাবিত হয়েছে। শিলখালী ইউনিয়নের চেয়ারম্যান নুরুল হোছাইন জানান, ইউনিয়নের দোকানপাড়া, পেঠানমাতবরপাড়া, আলীচানমাতবরপাড়া, হাজিরঘোনা, সবুজপাড়া, হেদায়াতাবাদ সহ দুই ইউনিয়নে মোট ১৮ গ্রাম প্লাবিত হয়ে কমপক্ষে বিশ হাজার লোকজন পানিবন্ধী হয়ে পড়েছে। এ সব এলাকার রাস্তাঘাট, শিক্ষাপ্রতিষ্টান, পুকুর, বসতবাড়ি পানির নীচে তলিয়ে গেছে। অপরদিকে পেকুয়ার প্রধান সড়ক বানিয়ারছড়া-মগনামা সড়ক পনির নিচে তলিয়ে গেছে। পেকুয়ার নদী-খাল সমূহের পানি বিপদসীমায় ৫ফুট উপর দিয়ে প্রবাহিত হচ্ছে। প্লাবিত গ্রাম সমূহের কমপক্ষে দশ হাজার লোকজন গবাদিপশু নিয়ে আশ্রয় কেন্দ্রে আশ্রয় নিয়েছে।
হরিণাফাড়ি গ্রামের পানিবন্ধী ইলিয়াছ ও শাহেদ জানান, গত কিছদিন আগেও বাড়িতে বন্যার পানি ঢুকে মজুদ থাকা খাদ্যশস্য নষ্ট হয়ে গেছে। এবং গতকাল থেকে আবার একই অবস্থা সৃষ্টি হয়েছে। তিনি ভেঙ্গে যাওয়া বেড়িবাঁধ নির্মাণ করে এলাকাবাসীকে প্রাণে বাচানোর জন্য সরকারের নিকট দাবী জানান।
পেকুয়া মাতবরপাড়া এলাকার মোক্তার জানান, আগামী আমন মৌসুমে বীজতলা তৈরী করে আমন ধানের চারা রোপনের জন্য বীজ বপন করা হয়েছে। বন্যার পানিতে প্লাবিত হওয়ায় সেই বীজতলা থেকে বপনের জন্য চারা পাব কিনা জানি না। অর্থাৎ এ মৌসমে চাষাবাদ চরম অনিশ্চয়তার মধ্যে ! তাহলে আমরা খাব কি  ? প্রশ্ন মোক্তারের।
উল্লেখ্য, গত শনিবার(২৫জুলাই) থেকে পানিবন্ধী ও বন্যায় প্লাবিত এলাকা পরিদর্শন ও বন্যার পানি নিষ্কাশনের জন্য সার্বিক চেষ্টা করে যাচ্ছেন পেকুয়া উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মারুফুর রশিদ খান, উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান শাফায়াত আজিজ রাজু, পেকুয়া সদর ইউনিয়নের চেয়ারম্যান বাহাদুর শাহ।

সর্বশেষ - উপজেলা

আপনার জন্য নির্বাচিত

একের পর এক ভয়াবহ অগ্নিকান্ডে নিঃস্ব হচ্ছে, পুড়ছে ৩ উপজেলাবাসী: রামুতে ভবন নির্মাণের পরও ঝুলে আছে ফায়ার সার্ভিসের কার্যক্রম

লবন বোঝাই ট্রাকে ৩৫ হাজার ইয়াবা, আটক ২

লবন বোঝাই ট্রাকে ৩৫ হাজার ইয়াবা, আটক ২

লিংক রোডে যাত্রীবাহী বাস থেকে গাঁজাসহ এক মহিলা আটক

রাণীনগররে ত্রিমোহনী প্রাথমকি বদ্যিালয়রে পরত্যিাক্ত ভবন ভঙ্গেে র্দুঘটনা ঘটার আশঙ্কা!

মিয়ানমার সেনাবাহিনীর গুলিতে ৮ রোহিঙ্গা নিহত

উখিয়ায় পৃৃথক সড়ক দুঘর্টনায় দুইজন নিহত

চকরিয়ায় আটককৃত গাঁজা বিক্রেতাকে ৬ মাসের কারাদন্ড

কবিতা চত্বর-মাদ্রাসা সড়ক সংস্কারের দাবিতে রাস্তায় নামলো জনতা

বেনজেমার হ্যাটট্রিকে পিএসজিকে হারিয়ে কোয়ার্টারে রিয়াল

অল্পের জন্য বেঁচে গেলেন অ্যাঞ্জেলা মার্কেল