বৃহস্পতিবার , ১৩ আগস্ট ২০১৫ | ২১শে মাঘ, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ
  1. অপরাধ
  2. অর্থনীতি
  3. আইন আদালত
  4. আন্তর্জাতিক
  5. আরো
  6. ইসলাম
  7. এক্সক্লুসিভ
  8. কক্সবাজার
  9. করোনাভাইরাস
  10. খেলাধুলা
  11. জাতীয়
  12. জেলা-উপজেলা
  13. পর্যটন
  14. প্রবাস
  15. বিজ্ঞান ও তথ্যপ্রযুক্তি

পোনা সংকট : চিংড়ি শিল্পে অনিশ্চয়তা

প্রতিবেদক
কক্সবাজার আলো
আগস্ট ১৩, ২০১৫ ১১:৫৪ পূর্বাহ্ণ

এম আবু হেনা সাগর, ঈদগাঁও :
কক্সবাজার জেলাব্যাপী বাগদা চিংড়ি পোনার সংকটে পড়েছেন চাষী-খামারী ও উদ্যোক্তারা। সাম্প্রতিককালে ঘুর্ণিঝড় কোমেনজনিত উচ্চমাত্রার জোয়ার ও জলোচ্ছ্বাসে জেলার উপকুলীয় চিংড়ি খামারসমূহের বেড়ীবাধ বিলীন হয়ে ইতিপূর্বের মজুদকৃত পোনা সাগরে ভেসে গেলে আবারো নতুন করে পোনা মজুদ করার প্রয়োজন হয়। কিন্তু হ্যাচারী সমূহ উদপাদনে না থাকায় প্রয়োজনীয় পোনা না পেয়ে এখন মাথায় হাত দেওয়ার উপক্রম হয়েছে চাষীদের। মৎস্য ও প্রাণী সম্পদ মন্ত্রনালয়ের নির্দেশে বিগত মে থেকে ২০ জুলাই পর্যন্ত সাগরে ট্রলিংয়ের উপর নিষেধাজ্ঞা থাকায় মা-চিংড়ি আহরণকারী জাহাজগুলো সাগরে যেতে পারেনি। ফলে প্রয়োজনীয় মাদার শ্রিম্প না পাওয়ায় উদপাদন অব্যাহত রাখতে পারেনি কক্সবাজার কলাতলীসহ বাগদা চিংড়ি হ্যাচারীগুলো। এখন এর প্রভাব পড়ছে জেলার ৬৫ হাজার হেক্টর চিংড়ি চাষে। তবে চাষীদের মতে, এখন পোনা মজুদ না করা না গেলে আগামী নভেম্বর ডিসেম্বর চিংড়ি মৌসুম শেষ হওয়ার আগে আহরণ করা যাবে না। ফলে বিপুল লোকসানে পড়বেন উদ্যোক্তারা ও এর প্রভাব পড়বে চিংড়ি চাষ-উৎপাদন-প্রক্রিয়াজাত ও রপ্তানিতে। এ পোনা সংকটের ফলে চলতি উৎপাদন মৌসুমে কক্সবাজারের চিংড়ি শিল্প ভয়াবহ অনিশ্চয়তায় পড়েছে। অন্যদিকে হ্যাচারীতে পোনার দু®প্রাপ্যতার ফলে সাগর-নদীমোহনা ও অন্যান্য প্রকৃতিক উৎস থেকে অবৈধ পন্থায় পোনা আহরণ বেড়ে গেছে। এতে ঝুঁকির মুখে পড়েছে সাগরের মৎস্য সম্পদ।

সর্বশেষ - অপরাধ

আপনার জন্য নির্বাচিত