বুধবার , ১০ নভেম্বর ২০২১ | ২৫শে মাঘ, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ
  1. অপরাধ
  2. অর্থনীতি
  3. আইন আদালত
  4. আন্তর্জাতিক
  5. আরো
  6. ইসলাম
  7. এক্সক্লুসিভ
  8. কক্সবাজার
  9. করোনাভাইরাস
  10. খেলাধুলা
  11. জাতীয়
  12. জেলা-উপজেলা
  13. পর্যটন
  14. প্রবাস
  15. বিজ্ঞান ও তথ্যপ্রযুক্তি

মাদক জব্দের ঘটনায় পলাতক আসামী করায় দুই সহোদরের প্রতিবাদ

প্রতিবেদক
সৈয়দ আলম
নভেম্বর ১০, ২০২১ ২:৩৪ পূর্বাহ্ণ

টেকনাফের হ্নীলা ইউনিয়নের জাদিমোরা এলাকা হতে ২ বিজিবি কর্তৃক মালিক বিহীন ৭০ হাজার পিস ইয়াবার চালান আটকের ঘটনায় সাবেক জনপ্রিয় আবুল মঞ্জুর প্রকাশ মন্জুর মেম্বারের দুই সন্তান জনগণের মেম্বার প্রার্থী হাসান আব্দুল্লাহ ও মো. ইউসুফকে পলাতক আসামী করে মামলা দায়ের করায় তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানিয়েছেন। মামলায় পলাতক আসামীর এমন নাম শুনে হতবাক হাসান আবদুল্লাহ ও ইউসুফ।

এই জগণ্যতম মিথ্যা ও প্রতিপক্ষের ষড়যন্ত্রের যোগসাজসের মামলার প্রতিবাদ জানিয়ে দুই সহোদর এক যৌথ বিবৃতিতে বলেন, আমি হাসান আব্দুল্লাহ ও আমার ভাই মো. ইউসুফ স্থানীয় একটি সম্ভ্রান্ত পরিবারের সন্তান। বিগত সময়ে আমার বাবা জাদিমোরা এলাকার সফল মেম্বার ছিলেন। রাজনৈতিক পরিবারের সন্তান হিসেবে যখন আমি এলাকায় নেতৃত্ব দেয়ার চিন্তা করি তখন স্থানীয় বিরোধী একটি চক্র কৌশলে সরকারী বিভিন্ন গোয়েন্দা সংস্থা ও বিভিন্ন আইন প্র‍য়োগকারী সংস্থাকে আমার পরিবার তথা আমার ব্যাপারে ভূল বুঝিয়ে আমাকে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রনালয়ের মাদকের তালিকায় নাম যুক্ত করে।
পরবর্তীতে এই তালিকা থেকে দ্বায়মুক্তির জন্য সরকারের নির্দেশের প্রতি সম্মান জানিয়ে আমি বিগত ২০১৯ সালে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর মাধ্যমে আত্মসমর্পন করে আইনী প্রক্রিয়ায় জামিনে এসে সুশৃংখল জীবন যাপন শুরু করি। গেল ২০ সেপ্টেম্বর হ্নীলা ইউপি নির্বাচনে আমি আমার জাদিমোরা তথা ৯নং ওয়ার্ড থেকে মেম্বার নির্বাচনে প্রতিদ্বন্ধিতা করে ওই কালো টাকা ও অদৃশ্য চক্রের কাছে হেরে যায়। এরপর থেকে আমাদের বিরোদ্ধে বিভিন্নজনকে ব্যবহার করে সম্মানহানি করছে চক্রটি। ভোটের পরেও ৩/৪ টি মামলা দিয়ে আমাদের ঘর ও এলাকাছাড়া করেছে। এরপর উচ্চ আদালত থেকে আমরা জামিন নিয়ে এলাকায় বসবাস করছি। এরপর এই ইয়াবা মামলায় আসামী করে আবারো এলাকাছাড়া করার পাঁয়তারা করছে।
এদিকে বিভিন্ন গণমাধ্যম সূত্রে জানতে পারি, গত (৭ নভেম্বর) ২ বিজিবির আওতাধীন দমদমিয়া বিওপির সদস্যরা জাদিমোরা এলাকা হতে ৭০ হাজার পিস ইয়াবারর একটি চালান আটক করে। এসময় পাচারকারীরা মাদকের চালানটি ফেলে সাঁতরিয়ে মিয়ানমারের দিকে পালিয়ে যাওয়াতে তাদের আটক করতে পারেনি বলে উল্লেখ করেন বিজিবি। কিন্তু কি কারনে কার ইশারায় উক্ত মালিকবিহীন ইয়াবা জব্দের মামলায় আমাকে ১ নং ও আমার নিরীহ ভাই মো. ইউসুফকে ২ নং পলাতক আসামী হিসেবে উল্লেখ করা হয়েছে। কিন্তু কেন বারবার আমরা মামলা, হামলার শিকার হচ্ছি? প্রশাসন চক্রের কাছে কেন জীম্মি হয়ে আমাদের পরিবারকে ধ্বংস করছে। বর্তমান আওয়ামী সরকার থাকাকালেও আমরা মুক্তিযুদ্ধের স্বপক্ষের রাজনীতি করেও বাঁচতে পারছি না। এরচেয়ে দু:খ আর কি হতে পারে। আমরা শপথ করে বলতে পারি, এই হাস্যকর ইয়াবার চালানের পলাতক মামলায় আমাদেরকে আসামী করতে নির্বাচনে প্রতিদ্বন্দ্বি মহলের ইন্ধন রয়েছে। আর আমার নিরীহ ভাই ইউসুফ এলাকায়ও থাকে না। সে তার দোকানের মালামালের জন্য ঢাকায় রয়েছে। ইউসুফ একজন শান্ত ভদ্র ছেলে তার ক্লিন ইমেজ নষ্ট করার জন্য তাকেও ইয়াবা মামলা জড়িয়ে দিয়েছে।
আমার পরিবারের পক্ষ থেকে আমি এই ঘটনার তীব্র প্রতিবাদ জানাচ্ছি। পাশাপাশি কারো কথায় প্ররোচিত না হয়ে বিজিবির মতো একটি সুশৃংখল বাহিনীকে বিষয়টি পুনরায় তদন্ত করে মাদকের আসল মালিক সনাক্ত পূর্বক আইনের আওতায় আনার আহবান জানাচ্ছি। পাশাপাশি দায়িত্বরত গোয়েন্দা সংস্থা, তদন্ত কর্মকর্তা ও গণমাধ্যমকর্মীদের আসল রহস্য বের করার অনুরোধ জানাচ্ছি। এবং ৯নং ওয়ার্ডের সর্বস্তরের জনসাধারণসহ কাউকে বিভ্রান্ত না হওয়ার অনুরোধ জানাচ্ছি।

প্রতিবাদকারী :
হাসান আব্দুল্লাহ ও মো. ইউসুফ।
পিতা : আবুল মঞ্জুর (সাবেক সফল মেম্বার)
৯নং ওয়ার্ড, জাদিমোরা, হ্নীলা, টেকনাফ।

সর্বশেষ - অপরাধ

আপনার জন্য নির্বাচিত

দ্বিতীয় দফায় কক্সবাজারে লকডাউন : কঠোর অবস্থানে সেনাবাহিনী

ঈদগাঁও ইউনিয়ন ছাত্রলীগ সভাপতিকে জড়িয়ে অপপ্রচার

শিক্ষার্থীদের আন্দোলনে সরকারের কঠোর আচরণ সমালোচিত হচ্ছে বৈশ্বিক গণমাধ্যমে

কক্সবাজার জেলা ছাত্রলীগের উদ্যোগে চিত্রাঙ্কন প্রতিযোগিতা

আমিরাতে বঙ্গবন্ধু গোল্ডকাপ ফুটবল টুর্ণামেন্টের নতুন তারকা  যারা

ঈদগাঁওতে ছড়ায় পড়ে শিশুর মর্মান্তিক মৃত্যু

কক্সবাজার সমুদ্র সৈকতের প্রাকৃতিক বৈশিষ্ট্য রক্ষা ও স্থাপনা নির্মাণ বন্ধের নির্দেশ হাইকোর্টের

আদনান সামিকে ‘ভারতীয় কুকুর’ বলে অপমান

খুটাখালীতে গণপিটুনিতে চোর নিহত ঃ গরু ও অস্ত্র উদ্ধার, ব্যবহৃত গাড়ী জব্দ

কক্সবাজার জেলা আ: লীগের ত্রি-বার্ষিক সম্মেলন চলছে