শুক্রবার , ১৭ জুলাই ২০১৫ | ১৯শে আশ্বিন, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ
  1. অপরাধ
  2. অর্থনীতি
  3. আইন আদালত
  4. আন্তর্জাতিক
  5. আরো
  6. ইসলাম
  7. এক্সক্লুসিভ
  8. কক্সবাজার
  9. করোনাভাইরাস
  10. খেলাধুলা
  11. জাতীয়
  12. জেলা-উপজেলা
  13. পর্যটন
  14. প্রবাস
  15. বিজ্ঞান ও তথ্যপ্রযুক্তি

কাল খুশির ঈদ

প্রতিবেদক
কক্সবাজার আলো
জুলাই ১৭, ২০১৫ ৭:৫৬ অপরাহ্ণ

কক্সবাজার আলো ডেস্ক :
পবিত্র শাওয়াল মাসের চাঁদ দেখা গেছে। বছর ঘুরে আবার এসেছে খুশির ঈদ। এক মাস সিয়াম সাধনার পর শনিবার এই খুশির ঈদ উদযাপনের জন্য প্রস্তুত বাংলাদেশসহ বিশ্বের বিভিন্ন দেশের মুসলমনরা। বাংলাদেশের প্রতিটি মুসলমানের হৃদয়ে অনুরণিত হচ্ছে জাতীয় কবি কাজী নজরুল ইসলামের সেই কালজয়ী গান ‘রমজানের ঐ রোজার শেষে এল খুশির ঈদ’।
ঈদের চাঁদ উঠেছে এমন খবর শোনার পর পরই ঘরে-ঘরে জনে-জনে শুরু হয়েছে ঈদের আনন্দ। শনিবার সকালে ঈদুল ফিতরের নামাজের পরই কোলাকুলিতে ঘোষিত হবে সৌহার্দ্য আর ভ্রাতৃত্বের মহিমা।
শুক্রবার বিকেল থেকেই এক ফালি বাঁকা চাঁদের আশায় পশ্চিমাকাশে বারবার তাকিয়েছিল সবাই। শাওয়াল মাসের চাঁদের খবর নিতে বৈঠকে বসেছিল  জাতীয় চাঁদ দেখা দেখা কমিটিও।  সবার কাঙ্খিত বাঁকা চাঁদ দেখা গেছে অবশেষে। সরকারের পক্ষ থেকেও ঈদুল ফিতরের আনুষ্ঠানিক ঘোষণা দেওয়া হয়েছে। শনিবার উদযাপিত হবে আনন্দের ঈদ।
মুসলিম সম্প্রদায়ের সবচেয়ে বড় এই আনন্দ-উৎসব  সামাজিক সম্প্রীতি আর সাম্যচেতনায় ভাস্বর। ধনী-গরিবনির্বিশেষে সবাই ঈদের আনন্দে শামিল হবে- এটাই এই উৎসবের মূল মর্মবাণী। মাসজুড়ে রোজা পালনের মাধ্যমে সংযম আর ত্যাগের শিক্ষা অর্জন এই আনন্দের জন্য প্রস্তুত করেছে প্রতিটি মুসলমানকে।
ধনী-গরিব সবাই সাধ্যমতো চেষ্টা করছে স্বজন-পরিজন নিয়ে দিনটি উদযাপনের।  ঈদের  কেনাকাটা সেরে তাই সবাই ছুটেছে মাটি  ও নাড়ির টানে শহর ছেড়ে গ্রামে। স্বজন-পরিজন, বন্ধু-বান্ধবের সঙ্গে মিলনের বাঁধভাঙা উচ্ছ্বাস দেখা গেছে পথে পথে।
এখন ঘরে ঘরে চলছে পিঠা-পায়েস বানানোর তোড়জোড়। শিশু-তরুণ-বৃদ্ধ সবাই প্রস্তুতি নিচ্ছে ঈদগায়ে গিয়ে নামাজ আদায়ের। কিশোরী-তরুণীরা বসছে মেহেদিতে হাত রাঙাতে।
পবিত্র ঈদুল ফিতরের জামাতের জন্য প্রস্তুত রাজধানীসহ দেশের ঈদগাহগুলো। বরাবরের মতো দেশের বৃহত্তম ঈদের জামাতের জন্য প্রস্তুত কিশোরগঞ্জের শোলাকিয়া ঈদগাহ ময়দান। রাজধানীতে তিন শতাধিকেরও বেশি স্থানে ঈদ জামাতের ব্যবস্থা গ্রহণ করেছে ঢাকা দক্ষিণ ও উত্তর সিটি করপোরেশন।
রাজধানীতে ঈদের প্রধান জামাত অনুষ্ঠিত হবে জাতীয় ঈদগাহ ময়দানে। এ ছাড়া বায়তুল মোকাররমসহ রাজধানীর বিভিন্ন এলাকার মাঠ ও মসজিদে ঈদের জামাত অনুষ্ঠিত হবে।
ঈদ উপলক্ষে দেশবাসী ও মুসলিম উম্মাহর অব্যাহত শান্তি, অগ্রগতি ও সমৃদ্ধি কামনা করে বাণী দিয়েছেন রাষ্ট্রপতি আবদুল হামিদ, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ও বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়া।

সর্বশেষ - উপজেলা

আপনার জন্য নির্বাচিত

প্রধান অতিথি পীর সাহেব বায়তুশ শরফ আল্লামা কুতুব উদ্দিন- বায়তুশ শরফের মরহুম পীর সাহেব আল্লামা আব্দুল জাব্বার রঃ এর ১৯ তম ইন্তেকাল বাষির্কীর স্মরণ সভা ২০ মার্চ

করোনায় একদিনে আক্রান্ত পৌনে ৬ লাখ, মৃত ৮৮১১

রুদ্র অয়ন’র ”শেষ থেকে শুরু”

কনসার্টে বাংলা গান গাওয়ায় শানকে পাথর নিক্ষেপ

দেশের মহিলা মাদরাসা গুলো আদর্শ মা তৈরীর কাজ করছে- আব্দুল হালিম বোখারী

সাক্ষ্য দতিে আদালতে খাদজিা

কক্সবাজার সমুদ্র সৈকতে গোসলে নেমে প্রাণ গেল স্কুল ছাত্রের

বাংলাদেশ-ইংল্যান্ড সিরিজ ২০১৬: ‘ম্যাজিক মেহেদি’

জোয়ারিয়ানালায় আদালতের নির্দেশ অমান্য করে বসতবাড়ি নির্মাণ, উল্টো মামলা দিয়ে হয়রানি

হাসিনা পারবেন না, পারবেন খালেদা