সোমবার , ১৪ সেপ্টেম্বর ২০১৫ | ১৬ই মাঘ, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ
  1. অপরাধ
  2. অর্থনীতি
  3. আইন আদালত
  4. আন্তর্জাতিক
  5. আরো
  6. ইসলাম
  7. এক্সক্লুসিভ
  8. কক্সবাজার
  9. করোনাভাইরাস
  10. খেলাধুলা
  11. জাতীয়
  12. জেলা-উপজেলা
  13. পর্যটন
  14. প্রবাস
  15. বিজ্ঞান ও তথ্যপ্রযুক্তি

উখিয়ার সাহাব উদ্দিন ৪ মাস ইন্দোনেশিয়ার বন্দিশিবিরে

প্রতিবেদক
কক্সবাজার আলো
সেপ্টেম্বর ১৪, ২০১৫ ৮:৩৫ অপরাহ্ণ

উখিয়ার সাহাব উদ্দিন ৪ মাস ইন্দোনেশিয়ার বন্দিশিবিরে
উখিয়া প্রতিনিধি :
মানবপাচারকারীর খপ্পরে পড়ে সাগরপথে মালয়েশিয়ার উদ্দেশ্যে রওয়ানা হতে গিয়ে উখিয়ার সাহাব উদ্দিন (২৫) তিন মাস ধরে ইন্দোনেশিয়ার বন্দিশিবিরে মানবেতর দিনযাপন করছে। সে রাজাপালং ইউনিয়নের ডেইলপাড়া গ্রামের হতদরিদ্র আলী আকবরের ছেলে। সম্প্রতি বন্দিশিবিরে তার অবস্থানের খবর পেয়ে পরিবারে নেমে এসেছে আহাজারি। পারিবারিক সূত্রে জানা যায়, কম খরচে মালয়েশিয়ার উদ্দেশ্যে রওয়ানা হতে গিয়ে এলাকার কতিপয় চিহ্নিত দালাল তাকে লাখ টাকায় বিক্রি করে দেয় আরেক মানবপাচারকারী সদস্যের হাতে। ওই মানবপাচারকারী সাহাব উদ্দিনকে ১২ দিন ধরে সোনাইছড়ির গভীর জঙ্গলে আটকে রাখে। সম্প্রতি ইন্দোনেশিয়ার বন্দিশিবির থেকে ফেরত আসা সাহাব উদ্দিনের বন্ধু চকরিয়ার নয়ন নামের এক যুবক মুঠোফোনে জানান সে ও সাহাব উদ্দিন সহ প্রায় ৩৫ জন লোককে ওই মানবপাচাকারী গত ৪ মাস আগে রেজুর মোহনা দিয়ে মাছ ধরার ফিশিং বোটে তুলে দেয়। প্রায় ৪ ঘণ্টা ওই ফিশিং বোটটি সাগরে চলার একপর্যায়ে গভীর সাগরে অপেক্ষমান একটি ট্রলারে তুলে দেয়। ওই ট্রলারে আরো প্রায় ৩শ যাত্রী ছিল। প্রায় ১৫ দিনের সমুদ্র যাত্রার বর্ণনা দিতে গিয়ে নয়ন বলেন, দিনে একমুঠো ভাত, একটি লাল মরিচ দিয়ে তাদেরকে বাঁচিয়ে রাখা হয়েছে। কেউ কিছু চাইলে তাকে দালাল চক্রের সদস্যরা অমানসিক নির্যাতন করেছে। দীর্ঘ ১৫ দিন পর তাদেরকে ইন্দোনেশিয়ার কাছাকাছি উপকুলীয় এলাকায় নিয়ে যাওয়া হলে সেখানকার নৌবাহিনী সদস্যরা ট্রলার সহ ৩শ যাত্রীকে আটক করে বন্দিশিবিরে নিয়ে যায়। সাহাব উদ্দিনের পিতা আলী আকবর তার একমাত্র ছেলেকে ফিরে পেতে সরকারের দৃষ্টি আকর্ষণের জন্য বিভিন্ন পত্রপত্রিকায় লেখালেখি করার জন্য সাংবাদিকদের অনুরোধ জানিয়ে বলেন, তার সংসারের রুজি রোজগারের একমাত্র ভরসা এ সাহাব উদ্দিন ছাড়া পরিবারের হাল ধরার আর কেউ নেই। আলী আকবর আরো জানান, এ ঘটনা নিয়ে এনজিও সংস্থা হেলপ কক্সবাজারে একটি অভিযোগ করা হয়েছিল। হেলপ কক্সবাজারের নির্বাহী পরিচালক মোহাম্মদ আবুল কাশেম জানান, এ ব্যাপারে পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ে একটি তালিকা প্রেরণ করা হয়েছে।

সর্বশেষ - অপরাধ